,
সংবাদ শিরোনাম :
» « জ্বালানি তেল পরিবহন জটিলতায় \ বিদ্যুৎ খাতে বড় সঙ্কটের আশঙ্কা» « শুকিয়ে যাচ্ছে সাতক্ষীরা কালিগঞ্জ সড়কের দুই ধারের গাছ» « ৭৫টি উটপাখি ও ৩১ ভরি স্বর্ণালংকার উদ্ধার» « এতিমদের সহযোগীতা করা সকলের নৈতিক দায়িত্ব -জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ ইফতেখার হোসেন» « সাতক্ষীরায় সাহিত্য সাময়িকী প্রকাশনা উৎসবে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত» « কলারোয়ায় ৯ বছরের তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রী ধর্ষনের শিকার» « মোটরসাইকেলের ধাক্কায় শিশু শিক্ষার্থী নিহত» « মৃত্যুসনদপত্রের আন্তর্জাতিক মান অনুসরণ শীর্ষক কর্মশালা» « জমি জমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে বসত ঘরে অগ্নি সংযোগ» « সাতক্ষীরা স্টেডিয়ামে বিভাগীয় জোনের কাবাডি প্রতিযোগিতা উদ্বোধন» « জি বাংলায় বাংলাদেশে বাছাই পর্বে মনোনীত জেলার কন্যা তপস্যা খান

চীনের ‘বিস্ময়কর বরফ বালক’

এফএনএস ডেস্ক: বরফ জমানো প্রচন্ড ঠান্ডার মধ্যে চীনের প্রাথমিক বিদ্যালয়ের এক শিশু সাড়ে ৪ কিলোমিটার হেঁটে স্কুলে পৌঁছানোর ছবি সামাজিক মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে পড়েছে। শিশুটির বয়স মাত্র আট বছর। নিতান্তই দরিদ্র পরিবারের শিশু সে। ঘণ্টাব্যাপী বরফ শীতল পথ পেরিয়ে যেতে তার মাথায় চুলগুলোতে বরফ জমাট বেঁধে যায়। এই ছবি দেশটির গ্রামীণ এলাকায় দারিদ্র্যের প্রভাব নিয়ে বিতর্ক জোরদার করেছে। দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলীয় ইউনান প্রদেশের এক প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছাত্র ওয়াংফুম্যান ‘বিস্ময়কর বরফ বালক’ হিসেবে পরিচিতি পেয়েছে। স্কুলে পৌঁছানোর পরে গোলাপী গাল ও বরফ আচ্ছাদিত চুলের বালকটির ছবি তোলেন স্কুলের শিক্ষক এবং সামাজিক মাধ্যমে পোস্ট করেন। চীনের সংবাদ মাধ্যমে এই রিপোর্ট প্রকাশ পায়। চীনের রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন সংবাদ সংস্থার খবরে বলা হয়, বাড়ি থেকে সাড়ে ৪ কিলোমিটার হেঁটে এক ঘন্টার বেশি সময়ে ওয়াং স্কুলে পৌঁছায়। এদিন তাপমাত্রা ছিল মাইনাস ৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস। চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং ২০১২ সালে ক্ষমতা গ্রহণের পরে দারিদ্র্য দূরীকরণের অঙ্গীকার ঘোষণা করেছিলেন এবং ২০২০ সাল নাগাদ গ্রামীণ দারিদ্র্য নিরসন করে মধ্য মাত্রার সমৃদ্ধ সমাজক নির্মাণের ঘোষণা করেন। সরকারি হিসেবে দেখা যায়, ২০১৬ সালে দেশটির গ্রামীণ জনগোষ্ঠীর প্রায় ৪৩ দশমিক ৩ মিলিয়ন লোক দারিদ্র্য সীমার নিচে বসবাস করছে। দেশটির দারিদ্র্য সীমায় বসবাসকারিদের বার্ষিক মাথাপিছু আয় ২৩০০ ইউয়ান (৩৪৬ ডলার)। এই আয়ের নিচে বসবাসকারীদের দরিদ্র ধরা হয়। ওয়াং এমনই এক দরিদ্র পরিবারের সন্তান। ওয়াং’র বাবা-মা শহরে কাজ করেন। তারা তাদের শিশুদের গ্রামে দাদা-দাদীর কাছে রেখে আসেন। সম্প্রতি চীনের দারিদ্র্যের এই চিত্র নিয়ে তুমুল আলোচনা চলছে।

Share
[related_post themes="flat" id="237148"]

সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ॥ জিএম নুর ইসলাম, কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল, যশোর রোড, সাতক্ষীরা, ফোন ও ফ্যাক্স ॥ ০৪৭১-৬৩০৮০, ০৪৭১-৬৩১১৮
নিউজ ডেস্ক ॥ ০৪৭১-৬৪৩৯১, বিজ্ঞাপন ॥ ০১৫৫৮৫৫২৮৫০ ই-মেইল ॥ driste4391@yahoo.com