,
সংবাদ শিরোনাম :
» « বিকলের ঝুঁকিতে এনআইডির তথ্য-ভান্ডার ॥ সেবা নেয়া ৮২টি প্রতিষ্ঠান ঝুঁকিতে পড়তে পারে» « ঢাকায় মুস্তফা লুৎফুল্লাহ’র পুত্র অনিকের লাশ উদ্ধার» « সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসন ও আশ্রম ফাউন্ডেশনের আয়োজনে দুই দিনের কর্মশালা শুরু» « গুলিবিদ্ধ যুবকের লাশ উদ্ধার» « আখেরি মোনাজাতে দেশ ও জাতির কল্যাণ কামনায় শেষ হল বিশ্ব ইজতেমা» « পার্বত্য শান্তিচুক্তির ৮০ ভাগ বাস্তবায়িত -প্রধানমন্ত্রী» « আজ সরস্বতী পূজা» « সাতক্ষীরার সড়ক যাতায়াতের উন্নয়ন অপরিহার্য» « আবারও যশোরে পৃথক স্থান থেকে দুই অজ্ঞাত যুবকের গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার» « সরিষার বাম্পার ফলন, চাষীদের মুখে হাসি» « জেলা উন্নয়ন সমন্বয় কমিটির মাসিক সভা অনুষ্ঠিত

আম বয়ানে শুরু বিশ্ব ইজতেমা ॥ লাখো মুসল্লির জুমার নামাজ আদায়, ২ জনের মৃত্যু

FNS12012018_N_03

এফএনএস: গাজীপুরের টঙ্গীর তুরাগ নদীর তীরে গতকাল শুক্রবার বাদ ফজর আম বয়ানে মধ্যদিয়ে তাবলিগ জামাতের ৫৩তম বিশ্ব ইজতেমার প্রথম ধাপ শুরু হয়েছে। গতকাল শুক্রবার বাদ ফজর জর্দানের মাওলানা শায়েখ ওমর খতিবের আম বয়ানের মধ্যদিয়ে ইজতেমার আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম শুরু হয়। তিনি আরবিতে ইমানের গুরুত্ব বিষয়ে বয়ান করেন। এবারই প্রথমবারের মতো ইজতেমার আম বয়ান আরবিতে দেওয়া হলো। বয়ানের বাংলা করেন, মাওলানা সালেহ। বাদ জুমা বয়ান করেন বাংলাদেশের মাওলানা মোহাম্মদ হোসেন, বাদ আসর বয়ান করেন বাংলাদেশের মাওলানা আবদুল বারী ও বাদ মাগরিব বয়ান করেন বাংলাদেশের মাওলানা মোহাম্মদ রবিউল হক। রোববার পর্যন্ত তিনদিন ব্যাপী তাবলীগ জামাতের শীর্ষস্থানীয় মুরুব্বীরা আখলাক, ইমান ও আমলের ওপর বয়ান করবেন। ৫৩তম বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্বের গতকাল শুক্রবার প্রথম দিন উত্তরের হিমেল হাওয়া আর কনকনে শীত উপেক্ষা করে লাখো মুসল্লি বয়ান, তাশকিল, তাসবিহ-তাহলিলে কাটান। তবে তীব্র শীতের কারণে বিশেষ প্রয়োজন ছাড়া মুসল্লিদের প্যান্ডেলের বাইরে যেতে দেখা যায়নি। শীত বস্ত্র মুড়ি দিয়ে ইজতেমায়ী কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করেন তারা। তাবলীগ জামাতের শীর্ষ স্থানীয় মুরুব্বীরা আরবি ও উর্দুতে বয়ান করবেন এবং মুসল্লিদের সুবিধার্থে তা বাংলা তরজমা করা হবে। এছাড়াও এসব বয়ান ইংরেজী, ফার্সি ভাষায় তরজমা করা হচ্ছে। দেশ-বিদেশের লাখ লাখ মুসল্লি আল্লাহকে রাজি-খুশি করানোর জন্য এবং আখলাক ঠিক রাখতে বয়ান শুনছেন। ধর্মপ্রাণ মুসুল্লিরা বুধবার থেকে টঙ্গীর তুরাগ তীরে ইজতেমা ময়দানে এসে চটের তৈরি সুবিশাল ছামিয়ানার নিচে অবস্থান নেন। এবার বিদেশিসহ দেশের ১৬ জেলা থেকে আসা মুসল্লিরা অংশ নিয়েছে ইজতেমায়। বিশ্ব ইজতেমার মুরুব্বী গিয়াস উদ্দিন জানান, বাদ ফজর আম বয়ানের মধ্যে দিয়ে শুরু হয়েছে ৫৩তম বিশ্ব ইজতেমার প্রথম ধাপ। প্রথম ধাপে ইজতেমায় অংশ নিয়েছে দেশের ১৬ জেলার মুসল্লি। রোববার আখেরি মোনাজাতের মধ্যদিয়ে শেষ হবে প্রথম ধাপ। ফের ১৯ জানুয়ারি শুরু হবে দ্বিতীয় ধাপ। একইভাবে আখেরি মোনাজাতের মধ্যেদিয়ে ২১ জানুয়ারি শেষ হবে এবারের (২০১৮ সালের) বিশ্ব ইজতেমা- বলেন তিনি। লাখো মুসল্লির জুমার নামাজ আদায়: গাজীপুরের টঙ্গীর তুরাগ নদীর তীরে ধর্মপ্রাণ লাখো মুসল্লির অংশগ্রহণে জুমার নামাজ আদায় হয়েছে। এতে অংশ নিয়েছেন দেশ-বিদেশের কয়েক লাখ মুসুল্লি। ৫৩তম বিশ্ব ইজতেমায় গতকাল শুক্রবার দুপুরে পৌনে ২টার দিকে জুমার নামাজ শুরু হয়। জুমার নামাজে ইমামতি করেন ঢাকার কাকরাইল মসজিদের হাফেজ মাওলানা মোহাম্মদ যোবায়ের। নামাজে অংশ নিতে জনসমুদ্রে পরিণত হয় ইজতেমা ময়দান। ঢাকা-গাজীপুরসহ আশপাশের এলাকার লাখ লাখ মুসল্লি নামাজে অংশ নেন। ইজতেমা ময়দান ছাড়াও মুসল্লিরা সড়ক-মহাসড়ক ও অলি-গলিসহ বিভিন্ন স্থানে পাটি, চটের বস্তা, খবরের কাগজ, চাদর ও পলিথিন বিছিয়ে নামাজে অংশ নেন। দুইজনের মৃত্যু: টঙ্গীর তুরাগ তীরে ইজতেমায় আসা দুইজনের মৃত্যু হয়েছে। একজন গাড়িচাপায় আর অন্যজন শ্বাসকষ্টে মারা গেছেন। টঙ্গী থানার এএসআই মো. আলমগীর নাজির বলেন, গত বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে টঙ্গীর স্টেশন রোড এলাকায় আবদুল মামুন ওরফে মনা (৩৩) নামের এক ব্যক্তি রাস্তা পার হচ্ছিলেন। তিনি ইজতেমায় যোগ দিতে আসছিলেন। গাড়িচাপায় ঘটনাস্থলেই মারা গেছেন। নিহত মামুন ঢাকার পশ্চিম আগারগাঁও এলাকার বাসিন্দা কেরামত আলীর ছেলে বলে তিনি জানান। এছাড়া আজিজুল হক (৬০) নামে এক ব্যক্তি মারা গেছেন বলে মাসলেহাল জামাতের সদস্য মো. আদম আলী জানিয়েছেন। তিনি চিকিৎসকের বরাতে বলেন, আজিজুল শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন। গত বৃহস্পতিবার মধ্যরাতে তিনি মারা যান। তার বাড়ি মাগুড়ার শালিখা থানার হবিশপুর গ্রামে। ফজরের নামাজের পর ইজতেমা ময়দানে জানাজা শেষে লাশ গ্রামের বাড়ি পাঠানো হয়েছে বলে তিনি জানান। উল্লেখ্য, তাবলিগ জামাতের একপক্ষের বিরোধিতার মুখে দিল্লির মাওলানা মোহাম্মদ সাদ কান্ধলভির অংশগ্রহণ ছাড়াই এবারের বিশ্ব ইজতেমা শুরু হয়েছে টঙ্গীর তুরাগ তীরে। ইজতেমার মুরব্বি প্রকৌশলী মোহাম্মদ গিয়াস উদ্দিন জানান, ইজতেমার সকল কার্যক্রম শান্তিপূর্ণভাবে শুরু হয়েছে। দেশি-বিদেশি লক্ষাধিক মানুষ এতে অংশ নিয়েছেন। গতকাল শুক্রবার ভোরে জর্ডানের মাওলানা শেখ ওমর খতিবের বয়ানের মধ্য দিয়ে শুরু হয় এবারের ইজতেমা। তার বয়ান বাংলায় অনুবাদ করেন বাংলাদেশের মাওলানা আবদুল মতিন। এর আগে কয়েক বছর ধরে সাদ কান্ধলভি এই বয়ান দিতেন। ভারতের ইসলামি পন্ডিত মুহাম্মদ ইলিয়াস কান্ধলভি ১৯২০-এর দশকে তাবলিগ জামাত নামে সংস্কারবাদি আন্দোলন সূচনা করেন। এ আন্দোলনের উদ্দেশ্য ইসলামের মৌলিক মূল্যবোধের প্রচার। বিতর্ক থেকে দূরে রাখতে এ সংগঠনে রাজনীতি নিয়ে আলোচনা হয় না। এ সংঘের মূল কেন্দ্র (মারকাজ) দিল্লিতে। ইলিয়াস কান্ধলভির মৃত্যুর পর তার ছেলে মাওলানা মোহাম্মদ ইউসুফ নেতৃত্বে আসেন। সম্প্রতি ইউসুফের ছেলে সাদ নেতৃত্বে আসার পর ইমামতি বা কোরআন শিখিয়ে বেতন নেওয়ার সমালোচনা করেন। এ কারণে তিনি একটি পক্ষের বিরোধিতার মুখে পড়েন। মুরব্বি গিয়াস বলেন, বিগত কয়েক বছরের মত এবারও দুই পর্বে ইজতেমা হবে। প্রথম পর্ব রোববার আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হবে। এরপর চার দিন বিরতি দিয়ে ১৯ জানুয়ারি শুরু হবে দ্বিতীয় পর্ব। ইজতেমায় মুসলিম জাতির শান্তি, কল্যাণ, অগ্রগতি ও ঐক্য কামনা করে আখেরি মোনাজাত করা হবে। কয়েক বছর ধরে সাদ আখেরি মোনাজাত পরিচালনা করলেও এবার তিনি না থাকায় আখেরি মোনাজাত কে পরিচালনা করবেন তা এখনও নির্ধারণ করা হয়নি বলে তিনি জানান।

Share
[related_post themes="flat" id="237247"]

সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ॥ জিএম নুর ইসলাম, কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল, যশোর রোড, সাতক্ষীরা, ফোন ও ফ্যাক্স ॥ ০৪৭১-৬৩০৮০, ০৪৭১-৬৩১১৮
নিউজ ডেস্ক ॥ ০৪৭১-৬৪৩৯১, বিজ্ঞাপন ॥ ০১৫৫৮৫৫২৮৫০ ই-মেইল ॥ driste4391@yahoo.com