,
সংবাদ শিরোনাম :
» « ৪৮ ঘণ্টা বন্ধ থাকতে পারে ইন্টারনেট» « সাতক্ষীরায় বর্ণাঢ্য আয়োজনে জাতীয় শ্রমিক লীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত» « সাতক্ষীরায় নিয়তি কাঁদছে ভাগ্যের কারাগারে যাত্রাপালা অনুষ্ঠিত» « নিউজ নেটওয়ার্কের আয়োজনে ২য় দফায় ৫ দিনের সাংবাদিক প্রশিক্ষণ কর্মশালার উদ্বোধন» « দূর্যোগ মোকাবিলায় প্রস্তুতি এবং বাস্তবতা» « ব্রহ্মরাজপুর বাজারে নৌকার স্বপক্ষে প্রচার ও এমপি রবি’র উন্নয়নের লিফলেট বিতরণ» « কালিগঞ্জ টু বাঁশতলা সড়কটি বেহাল দশা : জরুরী সংস্কারের দাবি» « দুর্গাপুজা শান্তিপুর্ণ করতে আইন শৃংখলা বিষয়ক মতবিনিময় সভা» « কেরালকাতা ইউনিয়নের ৩টি গ্রামে ৪২৭টি পরিবারে বিদ্যুতায়নের উদ্বোধন» « সরকারের উন্নয়ন চিত্র তুলে ধরে পথসভা ও লিফলেট বিতরণ করেন দোলন» « সীমান্তে বিজিবি-বিএসএফ’র মতবিনিময়

ইসরায়েলি বসতি শান্তি প্রক্রিয়া জটিল করে তুলছে -ট্রাম্প

এফএনএস ডেস্ক: ইসরায়েলি ‘বসতি’ ফিলিস্তিনের সঙ্গে শান্তি প্রক্রিয়াকে ‘জটিল’ করে তুলছে বলে সতর্ক করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ইসরায়েলকে বিষয়টি মাথায় রাখার পরামর্শ দিয়েছেন তিনি। ইসরায়েলের একটি পত্রিকাকে ট্রাম্প বলেন, ফিলিস্তিন এমনকি ইসরায়েল কেউই শান্তি স্থাপন করতে প্রস্তুত বলে তিনি মনে করেন না। ট্রাম্প গত বছর ডিসেম্বরে জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী হিসাবে স্বীকৃতি দিয়ে ফিলিস্তিনিদের মধ্যে ক্ষোভ সঞ্চার করেছেন। ফিলিস্তিনিরা শান্তি আলোচনায় রাজি না হলে তাদেরকে সাহায্য বন্ধের হুমকিও দিয়েছেন তিনি। আর এখন তিনি ইসরায়েলকে নিয়ে মন্তব্য করলেন। গত রোববার ইসরায়েলের হাইয়ুম পত্রিকায় প্রকাশিত এক সাক্ষাৎকারে ট্রাম্প ওই মন্তব্য করেন। যুক্তরাষ্ট্র কখন শান্তি পরিকল্পনা পেশ করবে? পত্রিকার সম্পাদক বোয়াজ বিসমুথের এ প্রশ্নের জবাবে ট্রাম্প বলেন, “আমরা দেখব কি ঘটে। এ মুহূর্তে ফিলিস্তিন শান্তি স্থাপনের পথে নেই। আর কেবল তারাই নয়; ইসরায়েলের ব্যাপারেও আমার মনে হচ্ছে, তারা শান্তি স্থাপন করতে ইচ্ছুক না। সুতরাং, আমাদের কেবলই অপেক্ষা করে যেতে হবে আর দেখতে হবে কি হয়। শান্তি পরিকল্পনায় ইসরায়েলি বসতি’র বিষয়টি থাকবে কি না- এ প্রশ্নের জবাবে ট্রাম্প বলেন, আমরা বসতি নিয়ে কথা বলব। বসতিস্থপন এমন একটি বিষয় যেটি সবসময়ই শান্তি প্রক্রিয়াকে জটিল করেছে এবং খুবই জটিল করে তুলছে। সুতরাং, বিষয়টি নিয়ে ইসরায়েলকে খুবই সতর্ক থাকতে হবে বলে আমি মনে করি। ১৯৬৭ সালের মধ্যপ্রাচ্য যুদ্ধে ইসরায়েলের দখল করে নেওয়া পশ্চিম তীর এবং পূর্ব জেরুজালেমে গড়ে তোলা প্রায় ১৪০ টি বসতিতে বাস করে ৬ লাখেরও বেশি ইহুদি। আন্তর্জাতিক আইনের আওতায় এ বসতিস্থাপন অবৈধ। যদিও ইসরায়েল তা মানে না। হাইয়ুম পত্রিকার সঙ্গে সাক্ষাৎকারে ট্রাম্প ফিলিস্তিনের সঙ্গে শান্তি নিশ্চিত করার জন্য ইসরায়েলকে ‘উলে­খযোগ্য আপোস’ করতে হবে বলে মস্তব্য করেছেন। জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দেয়ার সিদ্ধান্তকে ট্রাম্প তার প্রথম বছরের ক্ষমতাকালের ‘গুরুত্বপূর্ণ মুহূর্ত’ হিসেবেও অভিহিত করেছেন সাক্ষাৎকারে। বলা হচ্ছে, ট্রাম্পের ডিসেম্বর ঘোষণায় জেরুজালেমে ফিলিস্তিনের উপস্থিতির বিষয়টি নাকচ করা হয়নি, যারা জেরুজালেমের পূর্বাঞ্চলকে নিজেদের ভবিষ্যৎ রাজধানী হিসেবে দাবি করে আসছে। ১৯৬৭ সালের আরব-ইসরায়েল যুদ্ধের পর ওই অংশটি ইসরায়েল দখল করেছে, কিন্তু আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি পায়নি। ট্রাম্প বলেন, আমি স্পষ্ট করে বলতে চাই, জেরুজালেম ইসরায়েলের রাজধানী। এখন দুই পক্ষ কোথায় সীমান্ত টানা হবে তা নিয়ে সমঝোতায় পৌঁছলে আমি সমর্থন দেব। তিনি বলেন, শান্তিচুক্তি সম্ভব করতে চাইলে উভয়পক্ষকেই লক্ষণীয় আপস করতে হবে বলে আমি মনে করি।

Share
[related_post themes="flat" id="241797"]

সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ॥ জিএম নুর ইসলাম, কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল, যশোর রোড, সাতক্ষীরা, ফোন ও ফ্যাক্স ॥ ০৪৭১-৬৩০৮০, ০৪৭১-৬৩১১৮
নিউজ ডেস্ক ॥ ০৪৭১-৬৪৩৯১, বিজ্ঞাপন ॥ ০১৫৫৮৫৫২৮৫০ ই-মেইল ॥ driste4391@yahoo.com