,
সংবাদ শিরোনাম :
» « ৪৮ ঘণ্টা বন্ধ থাকতে পারে ইন্টারনেট» « সাতক্ষীরায় বর্ণাঢ্য আয়োজনে জাতীয় শ্রমিক লীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত» « সাতক্ষীরায় নিয়তি কাঁদছে ভাগ্যের কারাগারে যাত্রাপালা অনুষ্ঠিত» « নিউজ নেটওয়ার্কের আয়োজনে ২য় দফায় ৫ দিনের সাংবাদিক প্রশিক্ষণ কর্মশালার উদ্বোধন» « দূর্যোগ মোকাবিলায় প্রস্তুতি এবং বাস্তবতা» « ব্রহ্মরাজপুর বাজারে নৌকার স্বপক্ষে প্রচার ও এমপি রবি’র উন্নয়নের লিফলেট বিতরণ» « কালিগঞ্জ টু বাঁশতলা সড়কটি বেহাল দশা : জরুরী সংস্কারের দাবি» « দুর্গাপুজা শান্তিপুর্ণ করতে আইন শৃংখলা বিষয়ক মতবিনিময় সভা» « কেরালকাতা ইউনিয়নের ৩টি গ্রামে ৪২৭টি পরিবারে বিদ্যুতায়নের উদ্বোধন» « সরকারের উন্নয়ন চিত্র তুলে ধরে পথসভা ও লিফলেট বিতরণ করেন দোলন» « সীমান্তে বিজিবি-বিএসএফ’র মতবিনিময়

রোহিঙ্গা বিষয়ে সু চির অনুধাবন নিয়ে বরিসের সংশয়

06-Rohingga

এফএনএস ডেস্ক: মিয়ানমারের শরণার্থীদের আতঙ্কজনক দুরবস্থা সু চির উপলব্ধি করার বিষয়ে সংশয় প্রকাশ করেছেন যুক্তরাজ্যের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বরিস জনসন। মিয়ানমারের রাজধানী নেপিডোয় গত রোববার দেশটির রাষ্ট্রীয় উপদেষ্টা অং সান সুচির সঙ্গে তিনি বৈঠক করেন। বিবিসিকে বরিস বলেন, ‘আমরা যা দেখেছি, মনে হয় না হেলিকপ্টারে করে তিনি (সু চি) তা দেখেছেন।’ মিয়ানমারের রোহিঙ্গা-অধ্যুষিত রাখাইন রাজ্যে গত আগস্টে তল­াশিচৌকিতে হামলার পর সেখানে সন্ত্রাসবিরোধী অভিযান শুরু করে দেশটির নিরাপত্তা বাহিনী। এরপর প্রাণ বাঁচাতে দলে দলে সীমান্ত পেরিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করতে শুরু করে রোহিঙ্গারা। জাতিসংঘের তথ্য অনুসারে, এ দফায় প্রায় সাত লাখ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে। এই রোহিঙ্গাদের প্রায় সবাই অভিযোগ করেছে, মিয়ানমারের সেনারা রাখাইনে অভিযানের নামে হত্যা, গণহত্যা, ধর্ষণ, অগ্নিসংযোগ ও লুটপাট চালিয়েছে। মিয়ানমার কর্তৃপক্ষ রোহিঙ্গা সংকটের বিষয়টি অস্বীকার করে আসছে। বরিস এটা বিশ্বাস করেন কি না, তা জানতে চেয়েছিলেন বিবিসির সংবাদদাতা রীতা চক্রবর্তী। জবাবে বরিস বলেন, ‘রাজনীতিবিদদের সঙ্গে কথা বলে সু চি সম্পর্কে যা শুনেছি, তাতে আমার মনে হয় না রাখাইন রাজ্যে যা হয়েছে, এর পুরোটা খবর তাঁর (সু চি) কাছে এসেছে। জীবনে কখনো এমন ঘটনা দেখিনি। শত শত গ্রাম পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। এটি পুরোপুরি একটি ধ্বংসযজ্ঞ।’ তিনি বলেন, ‘আমি মনে করি, এখন যা দরকার, তা হলো এমন নেতৃত্ব, যারা গৃহহীন এসব লোকজনকে নিজের ঘরে ফিরে যেতে সহায়তা করতে জাতিসংঘের সংস্থাগুলোর সঙ্গে কাজ করবে।’ বরিস তাঁর সাক্ষাতে সু চির কাছে রোহিঙ্গাদের ‘ভয়াবহ পরিস্থিতির’ কথা তুলে ধরে তাদের ভবিষ্যৎ নিয়ে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেন। বৈঠকে বরিস রাখাইন রাজ্যে সহিংসতার ঘটনায় পূর্ণাঙ্গ ও নিরপেক্ষ তদন্তের জন্য মিয়ানমার কর্তৃপক্ষের প্রতি জোর আহŸান জানিয়েছেন। একই সঙ্গে মানবাধিকার লঙ্ঘনের ঘটনায় যারা জড়িত, তাদের আইনের আওতায় আনতে এবং রোহিঙ্গাদের নিরাপদ প্রত্যাবাসনের ব্যবস্থা করার আহŸান জানান। এই বৈঠকের আগে বরিস রাখাইনে একটি সংক্ষিপ্ত পরিদর্শনেও যান। এর আগে বাংলাদেশ সফরের সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন যুক্তরাজ্যের পররাষ্ট্রমন্ত্রী। এ ছাড়া তিনি গত শনিবার কক্সবাজারে রোহিঙ্গা শিবিরও পরিদর্শন করেন।

Share
[related_post themes="flat" id="241803"]

সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ॥ জিএম নুর ইসলাম, কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল, যশোর রোড, সাতক্ষীরা, ফোন ও ফ্যাক্স ॥ ০৪৭১-৬৩০৮০, ০৪৭১-৬৩১১৮
নিউজ ডেস্ক ॥ ০৪৭১-৬৪৩৯১, বিজ্ঞাপন ॥ ০১৫৫৮৫৫২৮৫০ ই-মেইল ॥ driste4391@yahoo.com