,
সংবাদ শিরোনাম :
» « অর্থনৈতিক অঞ্চলগুলোতে আগ্রহ বাড়ছে বিনিয়োগকারীদের» « ভিজিডি’র উপকারভোগী মহিলাদের মাঝে মুনাফাসহ সঞ্চয় ফেরত প্রদান» « ক্যান্সার আক্রান্ত অসহায় সাজেদা খাতুন ॥ গণশুনানীর মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর কাছে সাহায্যের আবেদন পাঠালেন» « সাতক্ষীরায় জাতীয় ভিটামিন এ প্লাস ক্যাম্পেইন উপলক্ষে ওরিয়েন্টেশন ॥ জেলায় ২ লক্ষ ৩৮ হাজার ৩২৭ জন শিশু ভিটামিন এ খাবেন» « তালায় এক মাদক ব্যবসায়ীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ» « চেক প্রতারনা মামলা ॥ সাবেক তাঁতীলীগ সভাপতি কারাদন্ড ও জরিমানা» « সাতক্ষীরা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা উদ্বোধন ॥ পুরস্কার বিতরণী আজ» « শ্যামনগর টেংরাখালী ওয়াপদা ভেঁড়িবাঁধে ভয়াবহ ভাঙ্গন ॥ পানিবন্দী হতে পারে দুই ইউনিয়নের কয়েক হাজার মানুষ» « প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ইরানের রাষ্ট্রদূতের সৌজন্য সাক্ষাত» « মদিনার দরগায় বার্ষিক মেলা উপলক্ষে জারি গান অনুষ্ঠিত» « কাদাকাটিতে শ্রীমদ্ভাগবত মহোৎসব সম্পন্ন

প্রশ্ন ফাঁস ঠেকাতে বাদ যাবে এমসিকিউ -প্রতিমন্ত্রী

এফএনএস : প্রশ্ন ফাঁস নিয়ে সমালোচনার মুখে থাকা শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী কাজী কেরামত আলী বহু নির্বাচনী প্রশ্ন (এমসিকিউ) তুলে দেওয়ার কথা বলেছেন। সোমবার জাতীয় সংসদে রাষ্ট্রপতির ভাষণ নিয়ে আলোচনায় দাঁড়িয়ে তিনি এই সময়ের অন্যতম আলোচিত বিষয় প্রশ্ন ফাঁস নিয়ে কথা বলেন। প্রতিমন্ত্রী বলেন, “এমসিকিউ প্রশ্ন পর্যায়ক্রমে তুলে দেওয়া হবে। তাহলে প্রশ্ন ফাঁসের সুযোগ থাকবে না।” চলতি এসএসসিতে এই পর্যন্ত সবগুলো বিষয়েরই এমসিকিউ প্রশ্ন পরীক্ষা শুরুর আগেই ফেইসবুকসহ ইন্টারনেটে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফাঁস হয়েছে। ১৯৯২ সালে এসএসসিতে প্রবর্তনের সময় ৫০ নম্বরের পরীক্ষা এমসিকিউতে নেওয়া হত। পরে তা কমিয়ে আনা হয়। প্রশ্ন ফাঁস ঠেকাতে এমসিকিউ তুলে দেওয়ার পক্ষে এর আগে শিক্ষা সচিবও মত জানিয়েছিলেন। গত বছরজুড়ে বিভিন্ন পাবলিক পরীক্ষায় প্রশ্ন ফাঁসের পর এবার এসএসসিতে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদের কড়া হুঁশিয়ারি এবং প্রশ্ন ফাঁসকারীদের ধরিয়ে দিলে পুরস্কার ঘোষণার পরও চলছে একই ধারা। এক মাস আগে প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্বে আসা কাজী কেরামত বলেন, “একটি চক্র প্রশ্ন ফাঁস করে সরকারকে বিব্রত করার চেষ্টা করছে। ইতোমধ্যে তাদের কয়েকজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।” প্রতিমন্ত্রী বলার পর প্রশ্ন ফাঁস নিয়ে সংসদে জাতীয় পার্টির নুরুল ইসলাম মিলন বলেন, “পাবলিক পরীক্ষায় প্রশ্ন ফাঁস এখন স্বাভাবিক হয়ে গেছে। এটা নিয়ন্ত্রণের বাইরে। চরম ব্যর্থতা বলব না। মনে হয় সাহসী সৎ নিষ্ঠাবান লোক সেখানে নেই। “শিক্ষা বোর্ড দুর্নীতির আখড়া হয়েছে। প্রশ্নপত্র ফাঁস নিয়ন্ত্রণ করতে পারে না। সৎ নিষ্ঠাবান লোক খুঁজে বের করে দায়িত্ব দেওয়া উচিত। কোচিং ব্যবস্থাও দায়ী। এটা চিরতরে বন্ধ করে দেওয়া উচিৎ।”

Share
[related_post themes="flat" id="241856"]

সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ॥ জিএম নুর ইসলাম, কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল, যশোর রোড, সাতক্ষীরা, ফোন ও ফ্যাক্স ॥ ০৪৭১-৬৩০৮০, ০৪৭১-৬৩১১৮
নিউজ ডেস্ক ॥ ০৪৭১-৬৪৩৯১, বিজ্ঞাপন ॥ ০১৫৫৮৫৫২৮৫০ ই-মেইল ॥ driste4391@yahoo.com