,
সংবাদ শিরোনাম :
» « একনেকে ৪ হাজার কোটি টাকা ব্যয়ে ইভিএম কেনার প্রকল্প অনুমোদন» « সাতক্ষীরা সদর উপজেলায় দুঃস্থ পরিবার ও বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের মাঝে টিন বিতরন» « সুলতানপুর উঠান বৈঠকে সরকারের উন্নয়ন তুলে ধরলেন সংসদ সদস্য মীর মোস্তাক আহমেদ রবি» « কবি নজরুল ইনস্টিটিউটের সংবাদ সম্মেলন ॥ আজ সাতক্ষীরায় অনুষ্ঠিত হচ্ছে জাতীয় নজরুল সম্মেলন» « সাতক্ষীরায় আদালতের নির্দেশ অমান্য করায় সাবেক ডিসি ও ইউএনও সহ তিন জনের কারাদন্ড» « পারুলিয়া ও কুলিয়ায় সমাবেশে অধ্যাপক ডাঃ আ,ফ,ম রুহুল হক এম,পি» « নজরুল ইসলামের নৌকার স্বপক্ষে পথসভা» « ভাঙ্গনের কবলে মুন্সীগঞ্জ বাজার রোড» « মরহুম চেয়ারম্যান মোশাররফের রুহের মাগফিরাত কামনায় দোয়া» « জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহের পুরস্কার বিতরণকালে বিভাগীয় কমিশনার ॥ শিক্ষার্থীরা আগামীতে বিশ্বকে প্রতিনিধিত্ব করবে» « কুয়েটকে বিশ্বসেরা বিশ্ববিদ্যালয়ে উন্নীত করতে চাই ॥ কুয়েট ভিসি প্রফেসর ড. কাজী সাজ্জাদ হোসেন

পনের বছর পর চাঁদপুরের লনু মিয়াকে সাতক্ষীরার গ্রামে খুঁজে পেলেন স্বজনরা

02 Fira Poa

এহসান নগরঘাটা থেকে \ পনের বছর আগে সেই যে চা খাবার নাম করে বাড়ি থেকে বেরিয়েছিলেন তারপর থেকে তার কোনো খোঁজ মিলছিল না তার। এরই মধ্যে স্বামীর শোক বয়ে মারা গেছেন স্ত্রী আয়তুননেসা। ছেলে মেয়েরা অঝোরে কেঁদেছেন বাবার জন্য। কিন্তু কোনো কিনারা করতে পারেন নি । অবশেষে ৭০ বছরের আবুল খায়ের ওরফে লনু মিয়াকে তার স্বজনরা খুঁজে পেলেন সাাতক্ষীরার গ্রামে। টানা পনের বছরের হতাশা ও ব্যথা বেদনার সমাপ্তি ঘটলো , হাসি আর কান্নার সংমিশ্রনে এক হৃদয় বিদারক দৃশ্যের অবতারনা ঘটলো আজ রোববার । লনু মিয়ার বাড়ি চাঁদপুর জেলার মতলব উপজেলার পাঁচকিপাড়া গ্রামে। দিনমজুর লনু মিয়া অপ্রকৃতিস্থ ছিলেন না। তবে প্রায়ই তার কিছুটা মতিভ্রম ঘটতো। দিনমজুরের কাজ করতেন মাঠে ঘাটে। দুই ছেলে পাঁচ মেয়ের বাবা লনু মিয়া একদিন বিকালে চা খাবার কথা বলে বাড়ি থেকে বেরিয়ে যান। তারপর থেকে ছিলেন নিরুদ্দেশ। পরিবারের সবাই তাকে খুঁজে খুঁজে হয়রানি হয়েছেন। স্বামীর শোকে শয্যাশায়ী হয়ে ১৩ বছর আগে চির বিদায় নিয়েছেন তার স্ত্রী আয়তুননেসা। অবশেষে তার পরিবারে খবর গেলো আবুল খায়ের ওরফে লনু মিয়া সাতক্ষীরা শহর থেকে পাঁচ কিলোমিটার দুরে ত্রিশ মাইল মোড়ে চা দোকানি নুর ইসলামের তত্ত¡াবধানে একটি মসজিদে আশ্রয় নিয়েছেন । সেখানে তার থাকার ব্যবস্থাও করে দেওয়া হয়েছে। তিনি কথা বলতে পারেন না। কিছু বললে শুধু তাকিয়েই থাকেন। অসুস্থ লনু মিয়ার চিকিৎসার জন্য ওষুধপত্রও কিনে দেন নুর ইসলাম ও তার সহমর্মীরা। খবর পেয়ে মতলবের গ্রাম থেকে ছুটে আসেন লনু মিয়ার ছেলে শাহজাহান সরদার, ছোট ভাই শাহ আলম, নাতি ফারুক হোসেন। আজ সকালে তারা এখানে পৌঁছালে এক হৃদয় বিদারক দৃশ্যের অবতারনা ঘটে। তারা তাদের প্রিয় স্বজনকে পেয়ে অশ্র“ সজল হয়ে ওঠেন। অবশেষে তাকে নিয়ে রওনা দেন চাঁদপুরের উদ্দেশ্যে। এ সময় তারা ধন্যবাদ জানান লনু মিয়াকে আশ্রয়দাতা চা দোকানি নুর ইসলাম ও অন্যদের। আর নির্বাক লনু মিয়া স্বজনদের সাথে গাড়িতে উঠবার সময় ফ্যাল ফ্যাল করে তাকিয়ে থাকেন তাদের দিকে।

Share
[related_post themes="flat" id="260966"]

সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ॥ জিএম নুর ইসলাম, কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল, যশোর রোড, সাতক্ষীরা, ফোন ও ফ্যাক্স ॥ ০৪৭১-৬৩০৮০, ০৪৭১-৬৩১১৮
নিউজ ডেস্ক ॥ ০৪৭১-৬৪৩৯১, বিজ্ঞাপন ॥ ০১৫৫৮৫৫২৮৫০ ই-মেইল ॥ driste4391@yahoo.com