,
সংবাদ শিরোনাম :
» « বিশ হাজার কোটি টাকা ছাড়িয়েছে দেশের ওষুধের বাজার» « সাতক্ষীরায় সফটরক প্রিমিয়ার ক্রিকেট লীগে ইউনাইটেড ক্লাব চ্যাম্পিয়ান» « বঙ্গবন্ধু ও নেতাজী জাতীয় শহীদ মিনারের লক্ষ্যে সাইকেল র‌্যালি» « কেমন আছে প্রিয় সুন্দরবন (চার) ॥ কটকা সমূদ্র সৈকত সৌন্দর্যের হাতছানি দিচ্ছে» « সাতক্ষীরায় দুই দিন ব্যাপী ভালবাসার শব্দমালা আবৃত্তি উৎসব পুরুস্কার বিতরণীর মধ্যে সমাপ্ত» « সাতক্ষীরায় গৃহবধু আঁখির হত্যাকারীদের শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত» « আমবয়ানের মধ্য দিয়ে বিশ্ব ইজতেমা শুরু» « বড় ধরনের সংকটগুলোতে ডব্লিউএইচওকে প্রায়ই ভুল পদক্ষেপ নিতে দেখা যায় -প্রধানমন্ত্রী» « কবি আল মাহমুদের বিদায়» « সাতক্ষীরায় বর্ণাঢ্য আয়োজনে রং পালিশ শ্রমিক ইউনিয়নের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত» « যশোরে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২

গ্রাম বাংলার ঐতিহ্য, কুঠির শিল্পের একাল সেকাল এবং হারিয়ে যাওয়া

বিশ্ব এগিয়ে চলেছে, বাংলাদেশ ও এগিয়ে চলেছে। আধুনিকতা আর উন্নয়ন বাংলাদেশকে স্পর্শ করেছে। প্রতিনিয়ত বাংলাদেশ এগিয়ে চলেছে। এগিয়ে চলা বাংলাদেশের অতীত ঐতিহ্য হারিয়ে যেতে বসেছে আর অতীত ঐতিহ্যের স্থানে আধুনিকযন্ত্র চালিত পণ্য সামগ্রী অবস্থান করে নিচ্ছে। উন্নত এবং আধুনিক বিশ্বের প্রতিচ্ছবি বাংলাদেশ সেই সাথে তথ্য প্রযুক্তির অবাধ সমাহার বাংলাদেশকে বিশেষ ভাবে পরিপূর্ণতা দান করেছে। গ্রাম বাংলার অতীত ঐতিহ্য এবং নানান ধরনের কুটির শিল্প হারিয়ে যেতে বসেছে। আমাদের দেশের সামগ্রীক বাস্তবতায় হারিয়ে যাওয়া এবং হারিয়ে যেতে বসা সামগ্রীর মধ্যে বিশেষ ভাবে উল্লেখ্য ঢেকি, পালকি, হারিকেন, নকসিকাঁথা, ধামা, কুলো, ঝুড়ি সহ বহুবিধ সামগ্রী। সাতক্ষীরা হতে প্রকাশিত এবং বহুল প্রচারিত দৈনিক দৃষ্টিপাত গতকাল “হারিয়ে যাচ্ছে গ্রাম বাংলার চিরায়ত ঐতিহ্য এবং কুটির শিল্প” শিরোনামে ঐতিহ্য সমৃদ্ধ এবং হারিয়ে যাওয়া বিষয়ক প্রতিবেদন প্রকাশ করে। প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে সাতক্ষীরার বাস্তবতায় পথে পথে বিবাহ উৎসব চোখে পড়ত আর উক্ত বিবাহ উৎসব বিশেষ ভাবে ব্যবহৃত হতো পালকি, বেহারারা গ্রামের একাবেঁকা মেঠো পথে পালকি চড়িয়ে গ্রামের বধুকে ঘরে নিতো, বর বধুকে নাচিয়ে গাইয়ে আনন্দে মাতোয়ারা হতো, গ্রামীন জনপদের অতি পরিচিত ঢেকি, গ্রামের মা বোনেরা উক্ত ঢোকির সহায়তা ধান ভানতো পূর্বেকার সময় ধান মাড়াই করার অন্যতম মাধ্যম ছিল ঢেকি কিন্তু সময়ের বিবর্তনে আধুনিকতার স্পর্শে ঢেকি হারিয়ে গেছে, গরুর গাড়ী ছিল উল্লেখযোগ্য যানবাহন সেই গরুর গাড়ি ও হারিয়ে গেছে, আমাদের অতীত ইতিহাস সমৃদ্ধ গ্রামীন জনপদের চিরচেনা মাধ্যম গুলো হারিয়ে যেতে বসেছে, হারিয়ে যাচ্ছে কুটির শিল্প ও আমাদের ঐতিহ্যরক্ষায় তা যথাযথ ভাবে সংরক্ষন করতে হবে।

Share
[related_post themes="flat" id="270126"]

সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ॥ জিএম নুর ইসলাম, কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল, যশোর রোড, সাতক্ষীরা, ফোন ও ফ্যাক্স ॥ ০৪৭১-৬৩০৮০, ০৪৭১-৬৩১১৮
নিউজ ডেস্ক ॥ ০৪৭১-৬৪৩৯১, বিজ্ঞাপন ॥ ০১৫৫৮৫৫২৮৫০ ই-মেইল ॥ driste4391@yahoo.com