,
সংবাদ শিরোনাম :
» « অর্থনৈতিক অঞ্চলগুলোতে আগ্রহ বাড়ছে বিনিয়োগকারীদের» « ভিজিডি’র উপকারভোগী মহিলাদের মাঝে মুনাফাসহ সঞ্চয় ফেরত প্রদান» « ক্যান্সার আক্রান্ত অসহায় সাজেদা খাতুন ॥ গণশুনানীর মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর কাছে সাহায্যের আবেদন পাঠালেন» « সাতক্ষীরায় জাতীয় ভিটামিন এ প্লাস ক্যাম্পেইন উপলক্ষে ওরিয়েন্টেশন ॥ জেলায় ২ লক্ষ ৩৮ হাজার ৩২৭ জন শিশু ভিটামিন এ খাবেন» « তালায় এক মাদক ব্যবসায়ীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ» « চেক প্রতারনা মামলা ॥ সাবেক তাঁতীলীগ সভাপতি কারাদন্ড ও জরিমানা» « সাতক্ষীরা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা উদ্বোধন ॥ পুরস্কার বিতরণী আজ» « শ্যামনগর টেংরাখালী ওয়াপদা ভেঁড়িবাঁধে ভয়াবহ ভাঙ্গন ॥ পানিবন্দী হতে পারে দুই ইউনিয়নের কয়েক হাজার মানুষ» « প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ইরানের রাষ্ট্রদূতের সৌজন্য সাক্ষাত» « মদিনার দরগায় বার্ষিক মেলা উপলক্ষে জারি গান অনুষ্ঠিত» « কাদাকাটিতে শ্রীমদ্ভাগবত মহোৎসব সম্পন্ন

চারশ বস্তা সার কদমতলায় আটকের ঘটনায় তদন্ত

ধুলিহর প্রতিনিধি ॥ ধুলিহর ইউপি’র চারশ বস্তা সার কদমতলায় আটক অতঃপর কৃষি অফিসারের মৌখিক সুপারিশে ছেড়ে দেয়ার ঘটনায় সংবাদ প্রকাশিত হওয়ায় উপজেলা কৃষি অফিসারসহ সংশ্লিষ্ঠদের দৌঁড়ঝাঁপ এবং বিভিন্ন মহলে শুরু করেছে তদবীর। এ ঘটনায় গতকাল সকালে উপজেলা কৃষি অফিসার ও সদর ভূমি কর্মকর্তা রনি আলম সরজমিনে ধুলিহর ইউনিয়নের কোমরপুর আমতলা মোড়ে মেসার্স আবুল হোসেন মোঃ মকছুদুর রহমান এর সার গোডাউন তদন্তকালে তিনি সেখানে ৩০৫ বস্তা সার দেখতে পান কিন্তু থাকার কথা ৪০০ শত বস্তা। বাকি ৯৫ বস্তা সার কোথায় গেল জানতে চাইলে এই ডিলার কোন স্বদউত্তর দিতে না পারায় পরবর্তীতে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে তিনি জানান। বাকি ৪টি গোডাউন কৃষি অফিসার আমজাদ হোসেন নিজেই তদন্ত করেন এবং তিনি বলেন, সব গোডাউনে সার আছে। প্রকৃত পক্ষে ধুলিহর ইউনিয়নের লাইসেন্সের মালিকের বাড়ি ইউনিয়নের বাইরে হওয়ায় এই ইউনিয়নের কৃষকের এই দুর্দশা। এই লাইসেন্স বাতিল করে পূনরায় ধুলিহরের স্থানীয়দের লাইসেন্স দেওয়ার জন্য জানান এলাকার কৃষক ও সুধিজন। স্বল্প মূল্যে, কম পরিবহন খরচে ঘরে বসে সার পাবেন কৃষকরা এমন লক্ষ্যে এবং উদ্দেশ্যকে সামনে রেখে, কৃষক হয়রানী রোধে, স্বল্প মূল্যে সার পেতে তাই সরকার প্রতিটি ইউনিয়নে ডিলার নিয়োগ দিয়েছে। স্ব স্ব ইউনিয়নের কৃষকরা নির্ধারিত ইউনিয়ন ভিত্তিক ডিলারদের মাধ্যমে সার সংগ্রহ করবেন। কিন্তু জনৈক এসএস এন্টারপ্রাইজের স্বত্তাধিকারী শফিকুল ইসলাম একা ৫টি লাইসেন্স নিজের আয়ত্বে নিয়ে সারের কৃত্রিম সংকট সৃষ্টি করে অধিক মূল্যে বিক্রির অভিযোগ রয়েছে। আর এমন অনৈতিক অবৈধ, নিয়ম বহির্ভূত, কৃত্রিম সংকট সৃষ্টির ঘটনা সে ঘটিয়ে আসছে দীর্ঘদিন ধরে। এমন অনিয়মকারীর বিরুদ্ধে যথাযথ তদন্ত পূর্বক আইনি ব্যবস্থা নেয়ার দাবী জানিয়েছেন স্ব স্ব ইউনিয়নের সাধারণ কৃষকরা।

Share
[related_post themes="flat" id="276972"]

সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ॥ জিএম নুর ইসলাম, কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল, যশোর রোড, সাতক্ষীরা, ফোন ও ফ্যাক্স ॥ ০৪৭১-৬৩০৮০, ০৪৭১-৬৩১১৮
নিউজ ডেস্ক ॥ ০৪৭১-৬৪৩৯১, বিজ্ঞাপন ॥ ০১৫৫৮৫৫২৮৫০ ই-মেইল ॥ driste4391@yahoo.com