,
সংবাদ শিরোনাম :
» « পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচন ॥ ‘অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন’ বিতর্কে এবার হুদা-মাহবুব» « শিল্পকলা একাডেমীর প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও নাটক প্রদর্শনী» « সাতক্ষীরা রসুলপুর সরকারি প্রাথমিক বালিকা বিদ্যালয়ে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও পুরুস্কার বিতরনী অনুষ্ঠিত» « সাতক্ষীরা পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজে বার্ষিক ক্রীড়া ও সাংস্কৃতি প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত ॥ আজ পুরুস্কার বিতরনী» « সাতক্ষীরায় অবসর প্রাপ্ত সরকারী কর্মচারীদের মাঝে অনুদান বিতরন করলেন জেলা প্রশাসক» « সাতক্ষীরায় নন-এমপিও শিক্ষকদের এমপিও ভুক্তির দাবিতে মানববন্ধন অনুুষ্ঠিত» « আশাশুনি গ্যাস সিলিন্ডার বিষ্ফোরনে এক মহিলা আহত» « বিজিবির অভিযানে ৫০ বোতল ফেনসিডিল সহ এক মাদক ব্যবসায়ী আটক» « আখেরি মোনাজাতে শেষ হলো এবারের বিশ্ব ইজতেমা» « মধ্য কাটিয়ায় ৩৯তম বার্ষিক আমিনিয়া ওয়াজ মাহফিল অনুষ্ঠিত» « বাংলাদেশের গার্মেন্টস শিল্প এবং জাতীয় অর্থনীতি

চোখের যতœ নিন

এফএনএস স্বাস্থ্য: চোখ পরিষ্কার করার বিষয়টি খানিকটা অদ্ভূত মনে হলেও এই অত্যন্ত গুরুত্বপূণ অঙ্গটির জন্য প্রয়োজন বাড়তি যতœ। ভারতীয় চক্ষু চিকিৎসক ডা. কেইকি মেহতা বলেন, ‘বৃষ্টির মৌসুমে চোখে সংক্রমণের ঝুঁকি বেশি থাকে তাই বাড়তি যতেœর প্রয়োজন পড়ে। বৃষ্টির পানি যাতে সরাসরি চোখে না পড়ে সেদিকে বিশেষ খেয়াল রাখতে হবে।’ এ ছাড়াও যেসব বিষয়ে খেয়াল রাখতে হবে পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা : বৃষ্টির সময় ঘরে ফিরে মুখ, হাত, পা ভালোভাবে পরিষ্কার করে নিতে হবে। সম্ভব হলে কুসুম গরম পানি দিয়ে গোসল করে নেয়া যেতে পারে। আলাদা তোয়ালে ব্যবহার : শরীরের জন্য যে তোয়ালে ব্যবহার করা হয়, মুখের ক্ষেত্রে তা বাদ দেয়াই বুদ্ধিমানের কাজ। মুখ মোছার জন্য আলাদা নরম তোয়ালে বা টিস্যু পেপার ব্যবহার করা যেতে পারে। এতে শরীরের জীবাণু চোখের সংস্পশের্ আসবে না। চশমা পরিষ্কার রাখা: পাওয়ারসহ চশমা হোক বা সানগ্লাস, সবসময় পরিষ্কার রাখা জরুরি। যারা বেশি পাওয়ারের চশমা পরেন, বৃষ্টির সময় তাদের উচিত ব্যাগে একটি বাড়তি চশমা রাখা। কারণ পানি লেগে চশমা ঘোলা হয়ে যেতে পারে। লেন্স পরার ক্ষেত্রে সচেতন থাকুন : যারা লেন্স ব্যবহার করেন তাদেরও উচিত হবে সঙ্গে বাড়তি লেন্স ও আনুষঙ্গিক জিনিসগুলো রাখা। লেন্সে যাতে ধুলাবালি না ঢোকে সেদিকেও খেয়াল রাখতে হবে। এ ক্ষেত্রে সানগ্লাস কাজে লাগাতে পারেন। চোখে সরাসরি বৃষ্টির পানি যাতে না পড়ে: বৃষ্টির পানি সরাসরি চোখে প্রবেশ করতে দেয়া যাবে না। চেহারায় বৃষ্টির পানি উপভোগ করার সময় চোখ খোলা যাবে না। কারণ, বৃষ্টির পানি বিশুদ্ধ হলেও আকাশ থেকে মাটিতে আসা পযর্ন্ত এতে মেশে অসংখ্য জীবাণু, মাইক্রোব এবং বিভিন্ন পরিবেশগত দূষিত উপাদান, যা চোখের জন্য ক্ষতিকর। চোখে পানির ঝাপটা দেওয়া: দিন শেষে ঘরে ফিরলে পরিষ্কার পানি দিয়ে চোখে ঝাপটা দেয়া উচিত। তবে এর আগে হাত ভালোভাবে পরিষ্কার করে নিতে হবে। হালকাভাবে চোখে পানি ঝাপটা দেয়া হলে চোখ পরিষ্কার থাকবে। চোখ অত্যন্ত সংবেদনশীল একটি অঙ্গ। তাই চোখে কোনো কিছু ঢুকে গেলে সঙ্গে সঙ্গে পানির ঝাপটা দেয়া উচিত। তাছাড়া বৃষ্টির পানি চোখে পড়লে চুলকানি বা অস্বস্তি হতে পারে।

Share
[related_post themes="flat" id="278438"]

সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ॥ জিএম নুর ইসলাম, কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল, যশোর রোড, সাতক্ষীরা, ফোন ও ফ্যাক্স ॥ ০৪৭১-৬৩০৮০, ০৪৭১-৬৩১১৮
নিউজ ডেস্ক ॥ ০৪৭১-৬৪৩৯১, বিজ্ঞাপন ॥ ০১৫৫৮৫৫২৮৫০ ই-মেইল ॥ driste4391@yahoo.com