,
সংবাদ শিরোনাম :
» « নুসরাত হত্যা ॥ বিচার বিভাগীয় তদন্ত চায় টিআইবি» « জাতীয় স্বাস্থ্য সেবা সপ্তাহ উপলক্ষে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে পরিচ্ছন্ন কার্যক্রম উদ্বোধন» « মধুতে ভেজাল মিশ্রন ঃ ক্রেতারা সাবধান!» « কোদন্ডায় স্বামীর হাতে স্ত্রী নিহত ॥ স্বামীর আত্মহত্যার চেষ্টা॥ ঘাতক স্বামী আটক» « বনবিভাগের অভিযানে অবৈধ জাল বিষের বোতল ও নৌকা আটক।» « আহমদ শরীফকে ৩৫ লাখ টাকা অনুদান দিলেন প্রধানমন্ত্রী» « নিষিদ্ধ করা হল কংগ্রেসের ‘চৌকিদার চোর হ্যায়’ বিজ্ঞাপন, রাহুলকে চিঠি কমিশনের» « তিন কেন্দ্রে দাপাদাপি শাসকদলের, কেন্দ্রীয় বাহিনী কই? বিরোধীদের তোপের মুখে কমিশন» « সড়কে সড়কে থেমে নেই দূর্ঘটনা» « চাম্পাফুল বছরের শুরু থেকে চিংড়ী ঘেরগুলোতে ব্যাপক ভাইরাসের আক্রমন» « যশোরে গাঁজা সহ এক মাদক ব্যবসায়ী আটক

যুগোপযোগী করা হলো টেলিযোগাযোগ নীতিমালা

Telecom-Act

জি এম শাহনেওয়াজ, ঢাকা থেকে ॥ সাইবার অপরাধ ও হুমকি থেকে রাষ্ট্রের সার্বভৌমত্ব সুরক্ষা, টেলিযোগাযোগখাতে সুবিধা বঞ্চিত এলাকাকে অগ্রাধিকার প্রদান, অ্যানালগ থেকে ডিজিটাল সম্প্রচার ব্যবস্থায় অনুকূল পরিবেশ সৃষ্টি এবং টেলিযোগাযোগ খাতের মান ও দক্ষতা বৃদ্ধির মাধ্যমে সাশ্রয়ী সেবা নিশ্চিত করার ক্ষেত্র রেখে বিদ্যমান টেলিযোগাযোগ নীতিমালাকে যুগোপযোগী করে প্রণয়ন করা হয়েছে। এটাকে বলা হচ্ছে, -জাতীয় টেলিযোগাযোগ নীতিমালা-২০১৮। সম্প্রতি এ নীতিমালা জারি হয়েছে। নীতিমালায় স্বল্প, মধ্যম ও দীর্ঘ মেয়াদী পরিকল্পনা ঘোষনা করা হয়েছে। এখানে টেলিযোগাযোগ সেবার মানকে অভিষ্ট লক্ষ্যে নিয়ে যেতে ধাপে ধাপে বাস্তবায়নের অঙ্গীকার করা হয়েছে; যার লক্ষ্য নির্ধারণ হয়েছে আগামী ২০২৭ সাল পর্যন্ত। নীতিমালা পর্যালোচনা করে এতথ্য পাওয়া গেছে। নীতিমালায় সুদুর প্রসারী প্রত্যাশায় বলা হয়েছে, জাতীয় টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্র অর্জন এবং নতুন বৈশ্বিক জ্ঞানভিত্তিক অর্থনীতিতে বাংলাদেশকে সম্পৃক্তকরণে সাশ্রয়ী ও সার্বজনীন উন্নত টেলিযোগাযোগ সেবা প্রদান করা। আর লক্ষ্যে বলা হয়েছে, বাংলাদেশের সকল ব্যক্তি, বাসস্থান, সামাজিক প্রতিষ্ঠান, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এবং ব্যবসার জন্য সাশ্রয়ী ও সমন্বিত টেলিযোগাযোগ নেটওর্য়াক এবং সেবা নিশ্চিত করা। পাশাপাশি, সুসংগত নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠায় টেলিযোগাযোগ খাতের নিয়ন্ত্রনমূলক কার্যক্রমকে স্বচ্ছ এবং বৈষম্যহীন করা। সেখানে প্রণীত নীতিমালা নূন্যতম ১০বছর ব্যাপী প্রাসঙ্গিক থাকার অভিপ্রায়ে প্রণয়ন করা হয়েছে। নীতিমালার উদ্দেশ্যে বলা হয়েছে, সাশ্রয়ী টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি সেবার মাধ্যমে সার্বিক সামাজিক অন্তর্ভুক্তি ও সংহতির উন্নতি সাধনক্রমে ডিজিটাল বিভক্তি হ্রাস করা, সেবা প্রদানকারীদের মধ্যে কার্যকর ও বৈষম্যহীন আন্তঃসংযোগ নিশ্চিতকরণ, এই খাতের জন্য নিরাপদ ও উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন আন্তজার্তিক সংযোগ নিশ্চিত করা। সেবার মান ও গ্রাহক স্বার্থ সুরক্ষায় সামগ্রীক টেলিযোগাযোগ ব্যবস্থায় জাতীয় নিরাপত্তার স্বার্থকে সমুন্নত রাখা। নীতিমালায় বাজার সম্প্রসারণে বলা হয়েছে, ভবিষ্যতে প্রযুক্তি ও সুযোগের সদ্ব্যবহার সহজতর করার জন্য একটি স্তিতিশীল ও কার্যকর লাইসেন্সিং ব্যবস্থাপনা গড়ে তোলা ও অ্যানালগ থেকে ডিজিটাল সম্প্রচার অভিপ্রায়ের অনুকূল পরিবেশ সৃষ্টি এবং লাইসেন্সিং কাঠামোয় সুবিধাজনক মালিকানা হস্তান্তর প্রক্রিয়া প্রনয়ন করা। সাইবার অপরাধ ও হুমকি থেকে দেশের সার্বভৌমত্ব ও নিরাপত্তা, জননিরাপত্তা, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক মূল্যাবোধ রক্ষা এবং ডিজিটাল আক্রমণ থেকে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য অবকাঠামো সুরক্ষার পাশাপাশি নাগরিকের ব্যক্তিগত, প্রাতিষ্ঠানিক ও ব্যাংকিংসহ আর্থিক তথ্যের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা। একই সঙ্গে, সাইবার নিরাপত্তা বিঘিœত হলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম, ইন্টারনেট এর মাধ্যমে ঘৃণা, বিদ্বেষ, নারীর প্রতি অশ্লীলতা, ধর্মীয় উগ্রবাদ জঙ্গীবাদ, ধর্মবিদ্বেষী প্রচারণা বন্ধে কার্যকর প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা ও যথাযথ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ। পরিবেশ বান্ধব নেটওর্য়াক ও সামাজিক দায়বদ্ধতার তহবিল (এসওএফ) যথাযথ কাজে লাগানোর অঙ্গীকার করা হয়েছে এ নীতিমালায়। বলা হয়েছে, স্বাস্থ্য ও পরিবেশ বান্ধব টেলিযোগাযোগ খাত গড়ে তোলার লক্ষ্যে যথাযথ কাঠামো প্রণয়ণ, গ্রীণ টেলিযোগাযোগ খাতের উন্নয়নে নবায়নযোগ্য শক্তি ব্যবহারে উদ্ধুকরণ এবং গ্রিণ টেলিযোগাযোগ নিশ্চিতে নবায়নযোগ্য শক্তির ব্যবহারসহ শক্তির বিকল্প উৎসসমূহের ব্যবহার বৃদ্ধির উদ্যোগ গ্রহণ করা হবে। এছাড়া অনলাইনে ব্যক্তিগত তথ্যের গোপনীয়তা রক্ষার প্রয়োজনীয়তা এবং উপায়ের বিষয়ে প্রশিক্ষণ এবং সচেতনতা সৃষ্টির পদক্ষেপ নিশ্চিত করা করবে প্রণীত নীতিমালা। উল্লেখ্য, বঙ্গবন্ধুর সময়ে ১৯৭৩ সালে দেশ আন্তজার্তিক টেলিযোগাযোগ ইউনিয়ন (আইটিইউ) এর সদস্য পদ লাভ করে। জাতীয় টেলিযোগাযোগ নীতিমালা, ১৯৯৮ এর ভিত্তিতে সরকার বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ আইন, ২০০১ প্রণয়ন করে। টেলিযোগাযোগখাতের সম্ভাবনার কথা বিবেচনা করে সর্বশেষ জাতীয় টেলিযোগাযোগ নীতিমালা-২০১৮ প্রণয়ন করলো সরকার।

Share
[related_post themes="flat" id="285509"]

সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ॥ জিএম নুর ইসলাম, কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল, যশোর রোড, সাতক্ষীরা, ফোন ও ফ্যাক্স ॥ ০৪৭১-৬৩০৮০, ০৪৭১-৬৩১১৮
নিউজ ডেস্ক ॥ ০৪৭১-৬৪৩৯১, বিজ্ঞাপন ॥ ০১৫৫৮৫৫২৮৫০ ই-মেইল ॥ driste4391@yahoo.com