,
সংবাদ শিরোনাম :

চাম্পাফুল খাবার পানির তীব্র সংকট

মনিরুজ্জামান (চাম্পাফুল) কালিগঞ্জ থেকে ॥ কালিগঞ্জ উপজেলার চাম্পাফুল ও তার আশে পাশের গ্রামগুলোতে খাবার পানির তীব্র সংকটে জনজীবনে অস্থিরতা ব্যাপক হারে বৃদ্ধি পেয়েছে। চাম্পাফুল ইউনিয়ন সহ তার আশে পাশের গ্রামগুলোতে ও এমন সংকটে ভুগছে। এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, সাতক্ষীরা জেলার উপকূলীয় অঞ্চলের মধ্যে কালিগঞ্জ উপজেলা অন্যতম, কালিগঞ্জ উপজেলার চাম্পাফুল ইউনিয়ন সহ কয়েকটি ইউনিয়নে চলছে খাওয়ার পানির জন্য হাহাকার। বিভিন্ন দাতা সংস্থা দেশ গুলোর দেওয়া ফিল্টার পরিচালনা ও পরিচর্চার অভাবে অকেজ হয়ে পড়ায় বিষিদ্ধ খাওযার পানির ব্যাপক ভাবে সংকট দেখা দিয়েছে। অন্য দিকে চাম্পাফুল ইউনিয়নে কোন গভীর নলকূপ না থাকায় এলাকার মানুষ লবণাক্ত পানি পান করছে জীবন বাঁচানের তাগিদে, সে কারনে লবণ পানির প্রভাবে চর্মরোগ, কলেরা, ডায়ারিযা, আমাশায়সহ বিভিন্ন প্রকার পানিবাহিত রোগ ভুগছে । শুধু তাই নয় বর্ষা মৌসূম হওয়া সত্ত্বে ও প্রচন্ড গরমে এলাকার পানি ও মাটিতে লবণাক্ত এর প্রভাবে নষ্ট হচ্ছে কৃষি জমির ফসল ও ফলজ বৃক্ষ। বিশেষ করে ইউনিয়নের জগদিসকাটি, কুমারখালির জন সাধারনের চলাচলের জন্য প্রধান ব্যাবস্থা একটি ঝুকিপূর্ন বাশের শ্যাকো হওয়ায় অনেক কষ্ঠ সহ্য করে জীবনের ঝুকি নিয়ে খাবার পানি সংগ্রহ করতে অনেক দুর পথ পাড়ি দিতে হয়। শুধু তাই না ইউনিয়নের খাজরা পোদালী, বারদহা ডেবুখালী, নবীন নগর মশরকাটি এলাকার মানুষের অনেক দুর-দুরান্ত থেকে খাবার পানি সংগ্রহ করতে হয়। পাানির সংকট বিষয় নিয়ে সংশ্লিষ্টদের সাথে কথা বললে প্রতিনিধিকে জানায়, সূপেয় পানির সংকটে নিরসনে বেশ কিছু উদ্দ্যেগ নেওয়া হয়েছে। যেমন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সুপেয় পানির জন্য গভীর নলকুপ ও পানির বড় ট্যাংকের ব্যাবস্থা করা। প্রতিটি মহল্লায় ১টি করে বৃষ্টির পানি সংরক্ষের ব্যাবস্থা করা। বিষয়টি নিয়ে এলাকার জন সাধারন উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের আশু হস্থক্ষে কামনা কামনা করেছে।

Share
[related_post themes="flat" id="287950"]

সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ॥ জিএম নুর ইসলাম, কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল, যশোর রোড, সাতক্ষীরা, ফোন ও ফ্যাক্স ॥ ০৪৭১-৬৩০৮০, ০৪৭১-৬৩১১৮
নিউজ ডেস্ক ॥ ০৪৭১-৬৪৩৯১, বিজ্ঞাপন ॥ ০১৫৫৮৫৫২৮৫০ ই-মেইল ॥ driste4391@yahoo.com