,
সংবাদ শিরোনাম :
» « রেকর্ড গড়া জয় টাইগারদের» « ‘অবিশ্বাস্য’ মাহমুদউল্লাহকেও ছাড়িয়ে, রথী-মহারথীদের পাশে সাকিব» « বর্তমান প্রেক্ষাপটের উপর নির্মিত এ কেমন ডাক্তার নাটকের মোড়ক উন্মোচন» « মুন্সিগঞ্জ বাজার সংলগ্ন জেলেপাড়া পুকুর পাড়ের রাস্তার বেহাল দশা» « শ্যামনগরে দুই দিন ব্যাপী জলবায়ু মেলার উদ্বোধন» « ব্যাংকে টাকা নেই, এটা ঠিক নয় -প্রধানমন্ত্রী» « ওসি মোয়াজ্জেম কারাগারে, অভিযোগ গঠন ৩০ জুন» « বাংলাদেশের অর্থনীতিতে শিল্প ও বৈদেশিক বাণিজ্য» « ভোটার তালিকা হালনাগাদ বিষয়ে বিভাগীয় সমন্বয় কমিটির সভা অনুষ্ঠিত» « শ্যামনগর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কমিটির সভায় অনুষ্ঠিত» « ইংল্যান্ডের চোখ সেমিতে, আফগানিস্তানের টিকে থাকা

কলারোয়ায় ছাত্রলীগ নেতার আঙুল কেটে নেওয়ায় ঘটনায় থানায় মামলা ॥ উপজেলা ছাত্রলীগের কমিটি বিলুপ্ত

08 Kalaroa Satrolig

কলারোয়া (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি ॥ সাতক্ষীরার কলারোয়া উপজেলায় সাবেক ছাত্রলীগ নেতা জি এম তুষারের চারটি আঙুল কেটে নেওয়ার ঘটনায় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান নাইসসহ ৭ ছাত্রলীগ কর্মীর নামে মামলা হয়েছে। শনিবার (১৮ মে) রাতে কলারোয়া পৌর সদরের গদখালী গ্রামের মৃত রমজার আলী গাজির ছেলে আহত তুষারের চাচা আবু সিদ্দিক বাদী হয়ে এ মামলা দায়ের করেন। তবে এ মামলায় আরো ৩/৪ জনকে অজ্ঞাত আসামী করা হয়েছে । আসামীরা হলেন- উপজেলার দিগং গ্রামের মৃত আফিল উদ্দীন ঢালীর ছেলে রেজাউল ইসলাম (৪৫), লোহাকুড়া গ্রামের সেলিম হোসেনের ছেলে বাবু(২৭) হামিদপুর পরানপুর গ্রামের মোশারফ শেখের ছেলে নাইস শেখ (২৮), দিগং গ্রামের আলাল ঢালীর ছেলে মন্টু ঢালী(৩২), আলাইপুর গ্রামের আবুল ফজর মেম্বরের ছেলে সাগর হোসেন (২২) একই গ্রামের মৃত শেখ শাহীনের ছেলে পলাশ (২৭) এবং রিজু (২৮) পিতা অজ্ঞাত। উল্লেখ্য, জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক মেহেদি হাসান নাইসের নেতৃত্বে ওই আসামীরা শনিবার (১৮ মে) দুপুরে কলারোয়া হাসপাতালের মধ্যে ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম সম্পাদক জিএম তুষারের ওপর হামলা করে ধারালো দায়ের কোপে তাঁর চারটি আঙুল কেটে নেয় তারা। কলারোয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মনিরুজ্জামান মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এদিকে ওই সাবেক ছাত্রলীগ নেতার চার আঙুল কাটার অভিযোগে উপজেলা ছাত্রলীগের কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করা হয়েছে। একই সঙ্গে তিন ছাত্রলীগ কর্মীকে সংগঠন থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। শনিবার (১৮মে) রাতে জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রেজাউল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ সাদিকুর রহমান স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে একথা জানানো হয়। এতে বলা হয়, কলারোয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম সম্পাদক জিএম তুষারের ওপর হামলা করে ধারালো দায়ের কোপে তাঁর চারটি আঙুল কেটে ফেলার ঘৃণিত অপরাধ প্রমাণিত হওয়ায় সভাপতি শেখ সাগর হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক মেহেদি হাসান নাইস নেতৃত্বাধীন তিন সদস্যের আংশিক কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করা হয়েছে। একই সঙ্গে বাবু, মন্টু ও ইমাম নামের ছাত্রলীগের তিন কর্মীকে বহিষ্কার করা হয়েছে। দুই মাস আগে শেখ সাগর হোসেনকে সভাপতি, মেহেদি হাসান নাইসকে সাধারণ সম্পাদক ও শামীমুজ্জামান টিপুকে সাংগঠনিক সম্পাদক করে তিন সদস্যের কলারোয়া উপজেলা ছাত্রলীগের আংশিক কমিটি গঠন করা হয়। তাদের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় এই কমিটি বিলুপ্ত করা হলো বলে জানান জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রেজাউল ইসলাম।

Share
[related_post themes="flat" id="291703"]

সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ॥ জিএম নুর ইসলাম, কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল, যশোর রোড, সাতক্ষীরা, ফোন ও ফ্যাক্স ॥ ০৪৭১-৬৩০৮০, ০৪৭১-৬৩১১৮
নিউজ ডেস্ক ॥ ০৪৭১-৬৪৩৯১, বিজ্ঞাপন ॥ ০১৫৫৮৫৫২৮৫০ ই-মেইল ॥ driste4391@yahoo.com