,
সংবাদ শিরোনাম :
» « দুর্গম এলাকাকে অগ্রাধিকার দিয়ে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত করার উদ্যোগ» « সাতক্ষীরা ডিজিটাল ডায়াগনষ্টিক সেন্টারের স্বাস্থ্য সেবায় এগিয়ে চলা এবং অত্যাধুনিক মেশিনের উপস্থিতি (এক)» « সাতক্ষীরার ফিংড়ী কুঁচে চাষ প্রকল্প উদ্বোধন করলেন এমপি রবি» « জোড়া সেঞ্চুরিতে সেমির আগে ভারতের বড় জয়» « তেলবাহী ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয়ে কলেজ প্রভাষিকা নিহত: আহত-১, গ্রেফতার-২» « শেখ রাসেল শিশু কিশোর পরিষদের পৌর আট নং ওয়ার্ড কমিটি গঠন» « কাকবাসিয়ায় খেয়াঘাট না থাকায় পারাপারে ভোগান্তি» « চীন সফর শেষে দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী» « যশোর র‌্যাবের পৃথক অভিযানে ২২৮ পিচ ইয়াবা সহ দুই মাদক ব্যবসায়ী আটক» « সাতক্ষীরা সরকারি মহিলা কলেজ আইডিজি এর জন্য মনোনীত» « বাজার ব্যবস্থা অস্থিতিশীল এবং মসলা বাজারে আগুন

ইংল্যান্ডকে হারিয়ে সবার আগে সেমিতে অস্ট্রেলিয়া

aus

স্পোর্টস ডেস্ক ॥ দারুণ সেঞ্চুরিতে অস্ট্রেলিয়াকে লড়াই করার মতো সংগ্রহ এনে দিলেন অ্যারন ফিঞ্চ। বোলিংয়ে নিজেদের মেলে ধরলেন জেসন বেহরেনডর্ফ ও মিচেল স্টার্ক। ইংল্যান্ডকে সহজেই হারিয়ে প্রথম দল হিসেবে সেমি-ফাইনালে পৌঁছাল বর্তমান বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা। লন্ডনের লর্ডসে মঙ্গলবার দুই চির প্রতিদ্বন্দ্বীর লড়াই জমেনি। রান তাড়ায় সেভাবে অস্ট্রেলিয়াকে চ্যালেঞ্জ জানাতে না পারা ইংল্যান্ড গুটিয়ে যায় ৬৪ রান আগে। ষষ্ঠ জয় পায় পাঁচবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা। ১২ পয়েন্ট নিয়ে উঠে যায় পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে। এক সময়ে অনেক বড় সংগ্রহের আশা জাগালেও অধিনায়ক ফিঞ্চের সেঞ্চুরিতে ৭ উইকেটে ২৮৫ পর্যন্ত যায় অস্ট্রেলিয়া। রেহরেনডর্ফের পাঁচ উইকেট ও স্টার্কের তিন উইকেটে ৩২ বল বাকি থাকতে ২২১ রনে গুটিয়ে যায় ইংল্যান্ড। স্বাগতিকদের ফিল্ডিং ছিল বাজে। গ্রাউন্ড ফিল্ডিংয়ে দিয়েছে বেশ কিছু বাড়তি রান। হাত থেকে ছুটেছে ক্যাচ, স্টাম্পিংয়ের সুযোগ। অস্ট্রেলিয়ার মিডল অর্ডার নিতে পারেনি তার সুবিধা। রানের গতিতে দম দেওয়ার কাজটা করতে পারেননি কেউ। টস হেরে ব্যাট করতে নেমে এবারের আসরে নিজেদের তৃতীয় শতরানের জুটিতে অস্ট্রেলিয়াকে ভালো শুরু এনে দেন অ্যারন ফিঞ্চ ও ডেভিড ওয়ার্নার। সাবধানী শুরু করা দুই ওপেনার ধীরে ধীরে বাড়ান রানের গতি। ২৩তম ওভারে ওয়ার্নারকে ফিরিয়ে ১২৩ রানের জুটি ভাঙেন মইন আলি। বাঁহাতি ওপেনার ৬১ বলে ৬ চারে ফিরেন ৫৩ রান করে। জস বাটলারের ব্যর্থতায় শুরুতেই স্টাম্পড হওয়ার হাত থেকে বেঁচে যান উসমান খাওয়াজা। বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যান ফিরেন অধিনায়কের সঙ্গে ৫০ রানের জুটি গড়ে। ৬১ বলে পঞ্চাশ ছোঁয়া ফিঞ্চ আসরে নিজের দ্বিতীয় ও ওয়ানডে ক্যারিয়ারে পঞ্চদশ সেঞ্চুরি তুলে নেন ১১৫ বলে। পরের বলেই জফরা আর্চারের শর্ট বলে হুক করার চেষ্টায় ধরা পড়েন ফাইন লেগে। অস্ট্রেলিয়া অধিনায়কের ১১৬ বলের ইনিংস গড়া ১১ চার ও দুই ছক্কায়। ভালো শুরুটা কাজে লাগাতে পারেননি অস্ট্রেলিয়ার পরের ব্যাটসম্যানরা। একটি করে ছক্কা-চার হাঁকিয়ে কট বিহাইন্ড হয়ে যান গ্লেন ম্যাক্সওয়েল। রান আউট হয়ে ফিরেন মার্কাস স্টয়নিস। দ্রুত উইকেট হারানো বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের টানতে পারেননি স্টিভেন স্মিথ। পাঁচ চারে ৩৮ রান করে ফিরে যান যান সাবেক অধিনায়ক। শেষের দিকে আক্রমণাত্মক ব্যাটিংয়ে ২৭ বলে অপরাজিত ৩৮ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলে দলকে ২৮৫ পর্যন্ত নিয়ে যান অ্যালেক্স কেয়ারি। সংক্ষিপ্ত স্কোর: অস্ট্রেলিয়া: ৫০ ওভারে ২৮৫/৭ (ফিঞ্চ ১০০, ওয়ার্নার ৫৩, খাওয়াজা ২৩, স্মিথ ৩৮, ম্যাক্সওয়েল ১২, স্টয়নিস ৮, কেয়ারি ৩৮*, কামিন্স ১, স্টার্ক ৪*; ওকস ১০-০-৪৬-২, আর্চার ৯-০-৫৬-১, উড ৯-০-৫৯-১, স্টোকস ৬-০-২৯-১, মইন ৬-০-৪২-১, রশিদ ১০-০-৪৯-০)। ইংল্যান্ড: ৪৪.৪ ওভারে ২২১ (ভিন্স ০, বেয়ারস্টো ২৭, রুট ৮, মর্গ্যান ৪, স্টোকস ৮৯, বাটলার ২৫, ওকস ২৬, মইন ৬, রশিদ ২৫, আর্চার ১, উড ১*; বেহরেনডর্ফ ১০-০-৪৪-৫, স্টার্ক ৮.৪-১-৪৩-৪, কামিন্স ৮-১-৪১-০, লায়ন ৯-০-৪৩-০, স্টয়নিস ৭-০-২৯-১, ম্যাক্সওয়েল ২-০১৫-০)। ফল: অস্ট্রেলিয়া ৬৪ রানে জয়ী। ম্যান অব দা ম্যাচ: অ্যারন ফিঞ্চ।

Share
[related_post themes="flat" id="294883"]

সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ॥ জিএম নুর ইসলাম, কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল, যশোর রোড, সাতক্ষীরা, ফোন ও ফ্যাক্স ॥ ০৪৭১-৬৩০৮০, ০৪৭১-৬৩১১৮
নিউজ ডেস্ক ॥ ০৪৭১-৬৪৩৯১, বিজ্ঞাপন ॥ ০১৫৫৮৫৫২৮৫০ ই-মেইল ॥ driste4391@yahoo.com