,
সংবাদ শিরোনাম :
» « প্রত্যাবাসনে সব প্রস্তুতি সম্পন্ন, তবে…» « ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রনে সমাজের সকল সমাজের সকল পেশার মানুষকে একযোগে কাজ করতে হবে ॥ বিভাগীয় কমিশনার লোকমান হোসেন মিয়া» « সাতক্ষীরায় সপ্তাহ ব্যাপী বৃক্ষমেলা উদ্বোধন করলেন জেলা প্রশাসক এসএম মোস্তফা কামাল» « ২১ আগষ্ট গ্রেনেড হামলায় নিহতদের স্বরণে ॥ সাতক্ষীরা পৌর আওয়ামীলীগের আলোচনা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত» « ২১ আগষ্ট গ্রেনেড হামলায় নিহতদের স্বরনে ॥ শেখ রাসেল জাতীয় শিশু কিশোর পরিষদের আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল» « সখিপুর পাঁচপোতা, টাউনশ্রীপুর সড়কের বিভিন্ন অংশে ফাটল» « সন্ত্রাসী কার্যকলাপ করলে কাউকে ছাড় দেয়া হবে না -এসপি মোস্তাফিজুর রহমান» « বিলাসবহুল প্রমোদতরী ॥ ইন্ডিপেনডেন্স» « সুন্দরবনে মৃত বাঘ উদ্ধার» « সুন্দরবনকে সুন্দর রাখতে হবে» « শ্যামনগরে প্রশাসনকে ম্যানেজ করে অবৈধ বালি উত্তোলন ॥ টাকা দিয়ে প্রতিবেদন বন্ধ করার চেষ্টা

হকারি করে সংসারের ভাগ্যের চাকা ঘুরিয়েছেন কলারোয়ার রফিকুল

04 Karagaci Fariwala

কেঁড়াগাছি (কলারোয়া) প্রতিনিধি ॥ “ইঁদুর খায় আর মরে, তেলাপোকা মরে মাছি মরে, লাগবে চাবির রিং চিরুনি” এমনি ভাবে আরও কত কিছু নিয়ে হাঁকিয়ে বাজারের এ মাথা ও মাথা ট্রলিতে করে মাল নিয়ে ঠেলে চলেছেন। বেচাকেনার এক ফাঁকে কেঁড়াগাছি বাজারে কথা হয় এই প্রতিবেদকের সঙ্গে। বেরিয়ে আসে তাঁর জীবনের সুখ দুঃখের সব স্মৃতি, আরও জানান তাঁর জীবনের দিন বদলের গল্প। তাঁর বাড়ি কলারোয়া উপজেলার লাঙ্গলঝাড়া ইউনিয়নের রুদ্রপুর গ্রামে, নাম মোঃ রফিকুল ইসলাম (৬৫)। স্ত্রী দুই কন্যা নিয়ে তাঁর সংসার। সরকারি এক টুকরা খাস জমিতে বসবাস করতেন রফিকুল ইসলাম, অভাব অনাটনের সংসারে নুন আনতে পান্তা ফুরায় এমনি অবস্থায় কি করবেন কিছুই বুঝতে পারছিলেন না। তারপর অল্প পুঁজি নিয়ে সল্প পরিসরে শুরু করেন হকারের ব্যাবসা, সেই থেকে আর পিছনে ফিরে তাকাতে হয়নি রফিকুলের। ৪৫ বছর যাবৎ তিনি উপজেলার বিভিন্ন হাট বাজারে বিভিন্ন প্রকারের মাল নিয়ে যেমন- ইঁদুর, তেলাপোকা, মাছি মারার ঔষধ সহ প্রয়োজনীয় টুকিটাকি জিনিস নিয়ে ফেরি করে বেড়ান। রফিকুল আরও জানায় এই ব্যাবসা করে সে নিজস্ব ভিটে বাড়ি কিনে দুই কামরা বিশিষ্ট ছাদের বাড়ি সহ গোয়ালঘর, রান্না ঘর সহ প্রয়োজনীয় সব কিছু তৈরি করেছেন, মেয়ে দুটিকে ভাল ঘরে বিয়ে দিয়েছেন, তাঁরা সুখে আছেন। রফিকুল আরও জানান সৎ পথে রোজগার করে অনেক কিছু করেছেন, সৎ পথে উপার্জন করার মতো আনান্দ আর কিছুতে নেই। রফিকুল বলেন, আমি আগে যে খাস জমিতে বসবাস করতাম সেটি বিনামূল্যে আরেকজন ভুমিহীন কে দিয়েছি তাঁরা সেখানে বসবাস করছে। বর্তমানে ভূমিদস্যুরা যেভাবে ভূমি দখল করার জন্য মরিয়া, ঠিক সেই সময় এক গরিব হকারী বিনামূল্যে আরেকজন গরিব ভুমিহীনকে তাঁর জমি দিয়ে দিল। রফিকুল জানান, আল্লাহ্ আমাকে অনেক সুখী রেখেছেন, আপনারা আমার জন্য দোয়া করবেন বলে আবারও তাঁর বেচাকেনা শুরু করল “লাগবে জম ইঁদুর খায় আর মরে তেলাপোকা মাছি মরে”।

Share
[related_post themes="flat" id="296652"]

সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ॥ জিএম নুর ইসলাম, কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল, যশোর রোড, সাতক্ষীরা, ফোন ও ফ্যাক্স ॥ ০৪৭১-৬৩০৮০, ০৪৭১-৬৩১১৮
নিউজ ডেস্ক ॥ ০৪৭১-৬৪৩৯১, বিজ্ঞাপন ॥ ০১৫৫৮৫৫২৮৫০ ই-মেইল ॥ driste4391@yahoo.com