,
সংবাদ শিরোনাম :
» « পদ হারালেন ওমর ফারুক» « সাতক্ষীরা জেলা নাগরিক কমিটির জরুরী সভা অনুষ্ঠিত» « আবারও জেলার শ্রেষ্ঠ সদর ওসি মোস্তাফিজুর রহমান» « সাতক্ষীরায় সড়কের দুই ধারে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ শুরু» « প্রতাপনগরে বর্নীল আয়োজনে ॥ দৈনিক দৃষ্টিপাতের ১৮ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন» « বিজিবির অভিযানে ফেন্সিডিল সহ আটক এক» « চার দলীয় নক আউট ফুটবল টুর্নামেন্ট উদ্বোধন করলেন এমপি জগলুল হায়দার» « তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তিতে বিশ্বে নেতৃত্ব দেবে বাংলাদেশ -জয়» « মৎস্য ঘেরে মাছ চাষের পাশাপাশি ভেঁড়িবাঁধে সবজি চাষ করে স্বাবলম্বী মেম্বার ফেদাউজ মোড়ল» « দোতারাবাদনে সাধনা পূর্ণ্য হলেও ভাগ্য বদল হয়নি বিষ্ণুপদের» « ভিয়েতনামের সঙ্গে বাণিজ্য বাড়ানোর আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

অবশেষে শেষ শ্রাবনের কাঙ্খিত বৃষ্টির দেখা জনমনে স্বস্তি ঃ উৎপাদনে মৎস্য চাষে প্রাণ সঞ্চার

Sp

দৃষ্টিপাত রিপোর্ট ॥ অবশেষে শেষ শ্রাবনে বৃষ্টির দেখা, কাঙ্খিত বৃষ্টির আনাগোনা গতকাল আকাশকে সত্যিকার অর্থে শ্রাবণের আকাশ মনে হয়েছে। দিন ব্যাপী কখনও কখনও অঝোর ধারায় আবার কখনও কখনও থেমে নেই বৃষ্টি তপ্তভূমিকে ভিজিয়ে দিয়েছে। প্রকৃতিগত ভাবে ধান চাষ সহ অপরাপর চাষের এক মাত্র উৎস্য বৃষ্টির পানি। বাংলাদেশ আবহমানকাল যাবৎ কৃষি প্রধান দেশ, আর আমাদের কৃষি প্রধান দেশের একমাত্র মাধ্যম হলো খাদ্য শস্য উৎপাদন এবং খাদ্য শষ্য উপাদনের সাথে পানির বিশেষ সম্পর্ক বিদ্যমান। ঋতু বৈচিত্রের ধারাবাহিকতায় আষাঢ় এবং শ্রাবণ মাস বর্ষাকাল, কিন্তু সাম্প্রতিক বছর গুলোতে ঋতুর ছন্দপতন ঘটায়, আষাঢ় শ্রাবণ মাসে কাঙ্খিত বর্ষার দেখা মেলে না, যেমন টি বর্তমান মৌসুমেও দৃশ্যমান, আষাঢ় মাসে কখনও কখনও গুড়ি গুড়ি বৃষ্টির দেখা মিলেছে শ্রাবণেও সেই অবস্থা গতকাল শেষ শ্রাবনের চব্বিশ শ্রাবন আকাশ হতে চাষাবাদের উপযোগী বৃষ্টির দেখা। বৃষ্টি কেবল চাষাবাদের জন্য সর্বেসধা তা নয়, বৃষ্টি জনমনে স্বস্তি আর সুখের কল্লোল বয়ে আনে। সময়ের বিষয়টি সময়েই সম্পন্ন করতে হয় আর এ ক্ষেত্রে আষাঢ় শ্রাবনই বর্ষার যথাযথ সময় কিন্তু মোখ্যম সময়ে বৃষ্টিপাত না হওয়ায় জনপদ যেমন শুষ্কতায় পরিনত হয় অনুরুপ ভাবে প্রকৃতিতে এক ধরনের বিরুপ পরিস্থিতির অবতরনা ঘটে। বৃষ্টিপাত বাঙ্গালী জনমানবের জীবন ধারার সাথে যেমন একাকিত্ব প্রকাশ করেছে অনুরুপ ভাবে আমাদের সাহিত্য সংস্কৃতির বিশাল অংশ বৃষ্টিপাত কেন্দ্রীক চাষাবাদ, জনমানুষ এর পাশাপাশি বৃষ্টিপাত মৎস্যচাষকে এগিয়ে নিতে বিশেষ ভাবে সহায়তা করে থাকে। বৃষ্টির কারনে প্রাণ চাঞ্চল্য ফিরেছে অবশ্য গতকালের দিনব্যাপী বৃষ্টিপাত জনজীবনে কিছুটা দুর্ভোগও সৃষ্টি করেছে। তবে দূর্ভোগ অপেক্ষা স্বস্তি ছিল সর্বাধিক। সাতক্ষীরার বাস্তবতায় জেলার সর্বত্র বৃষ্টিপাতের খবর পাওয়া গেছে। জেলার কয়েক হাজার চিংড়ী ঘেরের অস্তিত্ব বিদ্যমান। লবণাক্ত পানিতে চিংড়ী চাষ সহ চিংড়ী উৎপাদন হলেও বিগত কয়েক বছর চিংড়ী ঘেরে বিভিন্ন প্রজাতির মিঠা পানির মাছের চাষ হচ্ছে। রুই, কাতলা, মৃগেল, চিতল, প্রভৃতি আর এ সকল মিঠা পানির মাছ চাষের জন্য বৃষ্টির পানির বিকল্প নেই। শ্রাবনের বৃষ্টিতাই মাছ চাষে নতুন সম্ভাবনার সৃষ্টি করেছে। ঈদ প্রস্তুতিতে বৃষ্টিপাত কিছুটা বিঘœসৃষ্টি করেছে বিশেষ করে কুরবানীর গরু ব্যবস্থাপনায় অগোছালো বিষয়টি সামনে এসেছে। আবহাওয়া দপ্তর জানিয়েছে চলমান বৃষ্টিপাত আরও কয়েকদিন থাকতে পারে বরাবরের ন্যায় বৃষ্টির সময়ে ছাতা ক্রয় বিক্রয়ের হিড়িক পড়ে গতকালও বৃষ্টি জনমনে বিশেষ স্বস্তি দিয়েছে। অতি বৃষ্টিপাত জনদূর্ভোগ সৃষ্টি করে আর তাই আকাশের গোমট এবং আলো আধারী ভাব ধারাবাহিক বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনার কথাই বলছে। অতিবৃষ্টিপাত যেন সম্ভাবনার চাষাবাদ, উৎপাদন এবং জনজীবনে যেন ছন্দপতন না ঘটায়।

Share
[related_post themes="flat" id="296700"]

সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ॥ জিএম নুর ইসলাম, কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল, যশোর রোড, সাতক্ষীরা, ফোন ও ফ্যাক্স ॥ ০৪৭১-৬৩০৮০, ০৪৭১-৬৩১১৮
নিউজ ডেস্ক ॥ ০৪৭১-৬৪৩৯১, বিজ্ঞাপন ॥ ০১৫৫৮৫৫২৮৫০ ই-মেইল ॥ driste4391@yahoo.com