,
সংবাদ শিরোনাম :
» « সড়ক পরিবহন আইন হলেও ॥ বাস্তবায়নে বিধিমালা হচ্ছে না» « সাকিবের দুর্দান্ত ইনিংসে কাটল আফগান গেরো» « সাতক্ষীরায় চিকিৎসক সংকটে সেবা ভেঙ্গে পড়ার উপক্রম ॥ একশত রোগীর বেডে এখন তিন শত ॥ শিশুদের জন্য ১০ বেডের বিপরীতে ৯৯ জন» « জেলা প্রশাসকের নেতৃত্বে ক্লিন সাতক্ষীরা গ্রীন সাতক্ষীরা গড়ার লক্ষ্যে পরিচ্ছন্নতা অভিযান» « সাতক্ষীরায় বিদ্যুৎ স্পৃষ্টে এক শিশুর করুণ মৃত্যু» « কোস্ট গার্ডের অভিযানে একটি বন্দুক উদ্ধার» « বিপুল পরিমান অস্ত্রগুলিসহ একাধিক মামলার আসামী কানা মান্নান গ্রেফতার» « আন্তঃ স্কুল, মাদ্রাসা ফুটবল প্রতিযোগিতায় ॥ সাতক্ষীরা জেলার প্রতিনিধিত্বকারী বুধহাটা স্কুল দল খুলনা বিভাগীয় চ্যাম্পিয়ন» « সাতক্ষীরা জেলা জাসদের প্রতিনিধি সভা অনুষ্ঠিত» « আশাশুনির খাজরায় সড়ক নির্মাণে ব্যাপক অনিয়মের বিরুদ্ধে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত» « উপজেলা চেয়ারম্যানের নানা জেহের আলী আর নেই

কোলকাতায় সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত ২ জনের লাশ হস্তান্তর

02 Banapol Lash Farot

বেনাপোল প্রতিনিধি ॥ কোলকাতায় সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত গ্রামীন ফোন কোম্পানীর কর্মকর্তা মইনুল আলম ও তার চাচাতো বোন ব্যাংক কর্মকর্তা ফারহানা ইসলাম তানিয়ার লাশ রোববার সকাল ৯ টার দিকে বেনাপোল চেকপোষ্ট দিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে। এসময় তাদের সাথে ছিলেন আহত ফুপাতো ভাই কাজী শফিউর রহমান চৌধুরী জিয়াদ। ভারতীয় পুলিশ ও বিএসএফ তাদেরকে হস্তান্তর করেন। আহত কাজী শফিউর রহমান চৌধুরী জিয়াদ জানান,১৪তারিখে ডাক্তার দেখাতে তারা ভারতে যায়।“কলকাতার বাইপাসের ধারে একটি বেসরকারি হাসপাতালে চোখ দেখিয়ে ১৬ আগষ্ট রাতের খাবার খাওয়ার জন্য সেক্সপিয়ার স্বরনীর চৌরাস্তার মোড়ে পুলিশ বক্সের পাশে দাড়িয়ে ছিলেন। এ সময় দ্রুত গতিতে বিপরীত মুখি থেকে আসা জাগুয়ার কোম্পানীর একটি গাড়ী মইনুল আলম ও ফারহানা ইসলাম তানিয়াকে ধাক্কা দিলে ঘটনাস্থলেই তারা মারা যায়। এসময় তিনি একটু দুরে থাকায় প্রানে বেচে গেছেন। ভারতের সকল আনুণ্ঠানিকতা শেষে আজ সকালে লাশ বেনাপোল চেকপোষ্ট দিয়ে বাংলাদেশে পৌচেছে।এসময় কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন তাদের বাড়ী থেকে লাশ নিতে আসা আত্বীয় স্বজনরা। চোখের সমস্যা নিয়ে কলকাতায় চিকিৎসা করাতে গত ১৪ আগষ্ট বেনাপোল চেকপোষ্ট দিয়ে ভারতে যায় মইনুল আলম। সঙ্গে ছিলেন তাঁর চাচাতো বোন ফারহানা ইসলাম তানিয়া এবং ফুপাতো ভাই কাজী শফিউর রহমান চৌধুরী জিয়াদ। নিহত মইনুল আলম মাঝে মাঝে ভারতে যেতেন চিকিৎসার জন্য। কিন্তু, এ বার আর দেশে ফেরা হল না। দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয়েছে দুই জনের মইনুল ও তানিয়ার। অল্পের জন্যে প্রাণে বেঁচেছেন ফুপাতো ভাই কাজী শফিউর রহমান চৌধুরী জিয়াদ। দেশের প্রচলিত আইনানুযায়ী লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে বলে জানান পোর্ট থানার ওসি আলমঙ্গীর হোসেন। উল্লেখ্য,নিহত মইনুল আলম যশোহরের ঝিনাইদহের বাসিন্দা ও গ্রামীন ফোন কোম্পানীর কর্মকর্তা। গ্রামীণ ফোনে কাজ করার সূত্রে তিনি ঢাকায় বসবাস করতেন। তানিয়া ঢাকায় সিটি ব্যাঙ্কের ধানমন্ডি শাখার ম্যানেজার ছিলেন বলে ব্যাংক সূত্রে জানা গেছে।

Share
[related_post themes="flat" id="296979"]

সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ॥ জিএম নুর ইসলাম, কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল, যশোর রোড, সাতক্ষীরা, ফোন ও ফ্যাক্স ॥ ০৪৭১-৬৩০৮০, ০৪৭১-৬৩১১৮
নিউজ ডেস্ক ॥ ০৪৭১-৬৪৩৯১, বিজ্ঞাপন ॥ ০১৫৫৮৫৫২৮৫০ ই-মেইল ॥ driste4391@yahoo.com