,
সংবাদ শিরোনাম :
» « এবার লবণ নিয়ে গুজব ॥ পর্যাপ্ত লবণ আছে, অতিরিক্ত দরে বিক্রি করলে জেল জরিমানা- প্রেস কনফারেন্সে জেলা প্রশাসক মোস্তফা কামাল» « নতুন পরিবহন আইন সংশোধনের দাবিতে সাতক্ষীরা সবরুটে বাস চলাচল বন্ধ ॥ যাত্রী সাধারনের দূর্ভোগ চরমে» « বাইপাস সড়কে দূর্ঘটনায় ভ্যান চালকের মৃত্যু» « সাতক্ষীরায় বিজিবির অভিযানে ইলিশ মাছ সহ আটক এক» « সদরে দূর্ণীতি প্রতিরোধে কর্মক্ষেত্রে শ্রদ্ধাচার চর্চা বিষয়ক মত বিনিময় সভা» « কালিগঞ্জ জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জেরে যুবক কে এসিড নিক্ষেপ» « শ্যামনগরে পাকহানাদার মুক্ত দিবস উপলক্ষে র‌্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত» « দুইদিন ব্যাপী আয়কর মেলায় শুভ উদ্বোধন করলেন এমপি জগলুল হায়দার» « দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী» « সুন্দরবনে অবৈধ ফাইবার জাল ১টি ডিঙ্গি নৌকা সহ ৪ জন আটক» « লবণ বিষয়ে গুজব ॥ রাতে বাজার পরিদর্শন করলেন দেবহাটা নির্বাহী অফিসার

শ্যামনগরে বিদ্যুৎ সংযোগের নামে নাঈমের বিরুদ্ধে মোটা অংকের টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

19 Samnagor Taka Atosat

বিশেষ প্রতিনিধি ॥ শ্যামনগরে পল্লী বিদ্যুৎ সংযোগ দেওয়ার নাম করে হলুদ সাংবাদিক হাফিজুর রহমান নাঈম কারিকার ওরফে নাঈম চৌধুরী বিরুদ্ধে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ করেছেন এলাকাবাসী। অভিযোগ সূত্রে সরজমিন গিয়ে জানা যায়, উপজেলার নুরনগরের কাটাখালী ও দুরমুজখালী গ্রামের শত শত পরিবারের কাছ থেকে বিদ্যুৎ সংযোগ দেওয়ার নাম করে হলুদ সাংবাদিক নাঈম মোটা অংকের টাকা উত্তোলন করেন। এলাকাবাসী অভিযোগ করে বলেন, চৌধুরী নাঈম আমাদের এলাকায় বিদ্যুৎ সংযোগ এনে দেবেন বলে আমাদের কাছ থেকে নগদে এক হাজার টাকা ও পরে আরও পনেরশ টাকা দিতে হবে, না দিলে বিদ্যুৎ সংযোগ দেওয়া হবেনা বলে জানিয়েছেন। খবরে জানা যায়, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে প্রতিটি বাড়িতে বিদ্যুৎ সংযোগ দেওয়া হবে। কতিপয় দালাল এই সুযোগ কাজে লাগিয়ে মোটা অংকের টাকা চাঁদাবাজি করছে। আর একারনে শেখ হাসিনা সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুণœ হচ্ছে বলে মনে করেন সচেতন মহল। বিষয়টি তদন্ত পূর্বক আইনগত ব্যবস্থাগ্রহণ করতে প্রশাসনের প্রতি জোর দাবি জানিয়েছে এলাকাবাসী। এবিষয়ে নাইম চৌধুরীর সাথে মুঠো ফোনে কথা হলে তিনি বলেন, এই কাজটা এলাকার লোক আমাকে দিয়ে করিয়েছে। আমি কাজটা করতে চাইনি। আমি আমার বাড়ির বিদ্যুৎ এর জন্য চেষ্টা করছি। ওরা বলছে যত টাকা লাগে আমরা দেব। আমিও নিজে টাকা দিয়েছি। যতবার বিদ্যুৎ অফিস থেকে লোকজন এসেছেন ততবারই এক থেকে দেড় হাজার টাকা বকশিশ দিতে হয়েছে। আজ পর্যন্ত যারা বড় বড় কথা বলে গেছে তাদেরকেও টাকা দিতে হয়েছে। আর তারা তো নিজে হাতে বকশিশ দিয়েছে। এক প্রশ্নের জবাবে বলেন, ভাই বিদ্যুতের কাজ টাকা ছাড়া হয় না। যে ভালো কাজ করবে তার বদনাম হবে। আমি আবেদন করলে বিদ্যুৎ অফিসারকে টাকা দিতে হয়েছে সরজমিনে আসার জন্য। তিনি আরোও বলেন, আমার বিরুদ্ধে পত্রিকায় লিখে কোন লাভ হবে না। আপনারা লিখে যদি কিছু করতে পারেন তাহলে লিখেন।

Share
[related_post themes="flat" id="301649"]

সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ॥ জিএম নুর ইসলাম, কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল, যশোর রোড, সাতক্ষীরা, ফোন ও ফ্যাক্স ॥ ০৪৭১-৬৩০৮০, ০৪৭১-৬৩১১৮
নিউজ ডেস্ক ॥ ০৪৭১-৬৪৩৯১, বিজ্ঞাপন ॥ ০১৫৫৮৫৫২৮৫০ ই-মেইল ॥ driste4391@yahoo.com