,
সংবাদ শিরোনাম :
» « বৃটেনে কনজারভেটিভ পার্টির বিরাট জয়» « সাতক্ষীরায় নানা আয়োজনে পঞ্চদশ কবিতা উৎসব পালিত» « বিশিষ্ট ব্যবসায়ী বশির আহমেদ আর নেই» « সাতক্ষীরা পলাশপোল আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ে ১৯৯৪ সালের ব্যাচের শিক্ষার্থীদের পূর্ণমিলনী অনুষ্ঠিত» « আজ শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস» « ট্রাক-পিকআপ দুর্ঘটনায় মাছ ব্যবসায়ী নিহত : আহত ২» « পাটকল শ্রমিকের জানাজা সম্পন্ন, উত্তপ্ত খুলনার শিল্পাঞ্চল» « কোটাবাড়ির একটি ব্রিজের অভাবে হাজার হাজার মানুষের দুর্ভোগ» « মজুরি কমিশন বাস্তবায়নে আগামী ১৫ ডিসেম্বর আন্তঃমন্ত্রণালয় সভা -শ্রম প্রতিমন্ত্রী» « রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠী হত্যার আন্তর্জাতিক আদালতের কাঠগড়ায় মিয়ানমার» « নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল প্রত্যাখ্যান ভারতের ৫ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর

থানার ওসির হস্তক্ষেপে বন্ধ হলো সিরিয়ালের নামে চাঁদা আদায়

কেশবপুর (যশোর) প্রতিনিধি ॥ কেশবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ আবু সাঈদের হস্তক্ষেপে সন্ন্যাসগাছা-শাহপুর সড়কে বিভিন্ন যানবাহনের চালকদের কাছ থেকে প্রায় ৩ বছর ধরে চলতে থাকা সিরিয়ালের নামে টাকা নেওয়া বন্ধ হয়েছে। জানা যায়, খুলনা-সাতক্ষীরা সড়কের শাহ্পুর থেকে সন্ন্যাসগাছা পর্যন্ত রাস্তার দৈর্ঘ্য প্রায় ১৩ কিলোমিটার। এর মধ্যে ৫ কিলোমিটার খুলনার ডুমুরিয়া উপজেলার মধ্যে। বাকি ৮ কিলোমিটার যশোরের কেশবপুর উপজেলার গৌরীঘোনা ইউনিয়নের সন্ন্যাসগাছা সেতু পর্যন্ত। চালকরা অভিযোগ করে বলেন, এ সড়কে প্রতিদিন ৩০টি মাহেন্দ্র, ৩০টি ইজিবাইক ও ১০টি লেগুনা চলাচল করে। এসব যানবাহন শাহপুর থেকে চুকনগর বাজার হয়ে সন্ন্যাসগাছা সেতুর সামনে গিয়ে আবার ঘুরে আসে। সেতুসংলগ্ন সড়কের পাশে চালকরা একটি অস্থায়ী গাড়িস্ট্যান্ড তৈরি করেছেন। ওই সড়কে গাড়ি চালাতে হলে প্রতিদিন প্রতিটি মাহেন্দ্রর জন্য ৪০ টাকা, ইজিবাইক প্রতি ৩০ টাকা ও প্রতিটি লেগুনার জন্য ৬০ টাকা দিতে হতো। তারা আরও জানান, স্ট্যান্ডে দাঁড়ালে বা সেখান থেকে যাত্রী ওঠালেই তাদের সিরিয়ালের নামে টাকা দিতে হতো। কেন এই টাকা নেওয়া হচ্ছে- তা চালকরা জানতে চাইলে তাদের বিভিন্নভাবে হুমকি দিত সিরিয়ালের নামে টাকা নেওয়া ব্যক্তিবর্গ। খবর পেয়ে দীর্ঘদিন ধরে সিরিয়ালের নামে টাকা নেওয়া অবশেষে বন্ধ করলেন কেশবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ আবু সাঈদ। এব্যাপারে কেশবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ আবু সাঈদ জানান, রোববার সিরিয়ালের নামে চাঁদা আদায়ের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে সেটা বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। এরপরও যদি কেউ চালকদের জিম্মি করে চাঁদা আদায় করার অভিযোগ পেলে তার বা তাদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

Share
[related_post themes="flat" id="303696"]

সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ॥ জিএম নুর ইসলাম, কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল, যশোর রোড, সাতক্ষীরা, ফোন ও ফ্যাক্স ॥ ০৪৭১-৬৩০৮০, ০৪৭১-৬৩১১৮
নিউজ ডেস্ক ॥ ০৪৭১-৬৪৩৯১, বিজ্ঞাপন ॥ ০১৫৫৮৫৫২৮৫০ ই-মেইল ॥ driste4391@yahoo.com