,
সংবাদ শিরোনাম :
» « আন্তর্জাতিক বিচার আদালতের রায় ॥ গণহত্যা বন্ধ ও রোহিঙ্গাদের সুরক্ষার নির্দেশ» « দূর্ণীতিবাজরা যত ক্ষমতাধর ব্যক্তি হোক পার পাবে না ॥ সাতক্ষীরায় মত বিনিময় সভায় দূর্ণীতি দমন চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ» « অপহরণের দুই দিন পর কলেজ ছাত্রের লাশ উদ্ধার» « সাতক্ষীরা প্রেসক্লাব দীর্ঘদিন পর সাংবাদিকদের জন্য উণ¥ুক্ত ॥ আনন্দের বন্যায় ফুল ও ভালবসায় সিক্ত নব-নির্বাচিত কমিটি» « সেনাবাহিনীর শীতকালীন প্রশিক্ষণ মহড়া প্রত্যক্ষ ॥ সন্ত্রাস ও দুর্নীতি মুক্ত দেশ গড়ার অঙ্গীকার পুনর্ব্যক্ত প্রধানমন্ত্রীর» « সাতক্ষীরা রাজস্ব বিভাগের কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের প্রশিক্ষন অনুষ্ঠিত» « খুলনায় বিদেশী পিস্তল সহ কমিউনিষ্ট পার্টির সদস্য আটক» « সীমান্তে বিএসএফ’র নির্যাতনে বাংলাদেশী গরু রাখালের মৃত্যু» « আশাশুনির শালখালী বাজার টু কালিবাড়ী সড়কের বেহাল দশা» « সুন্দরবনে অবৈধ কাঠসহ ১টি নৌকা আটক» « আইন শৃঙ্খলা, চোরাচালান, সন্ত্রাস ও নাশকতা প্রতিরোধ কমিটির সভা

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার প্রদান করলেন প্রধানমন্ত্রী

এফএনএস: ২০১৭ ও ২০১৮ সালের বিজয়ীদের হাতে চলচ্চিত্রের সবচেয়ে সম্মানজনক পদক জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার তুলে দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গতকাল রোববার বিকেলে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আয়োজিত অনুষ্ঠান থেকে এসব পুরস্কার তুলে দেন প্রধানমন্ত্রী। এর আগে গত ৭ নভেম্বর একসঙ্গে ঘোষণা করা হয় ২০১৭ ও ২০১৮ সালের সিনেমার জন্য চলচ্চিত্রের সবচেয়ে সম্মানজনক পদক জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার। এবার গত দুই বছরের ২৮টি শাখায় ৬৩ জন পুরস্কৃত হয়েছেন। ২০১৭ সালের জন্য আজীবন সম্মাননা পেয়েছেন বর্ষীয়ান অভিনয়শিল্পী এটিএম শামসুজ্জামান ও সালমা বেগম সুজাতা। আর ২০১৮ সালের জন্য এ সম্মাননা পেয়েছেন অভিনেতা প্রবীর মিত্র ও এমএ আলমগীর। ২০১৭ সালে ‘গহীন বালুচর’ সিনেমার জন্য সেরা পরিচালকের পুরস্কার পেয়েছেন বদরুল আনাম সৌদ এবং একই বছর সেরা চলচ্চিত্র হয়েছে ‘ঢাকা অ্যাটাক’। ২০১৮ সালে ‘জান্নাত’ সিনেমার জন্য সেরা পরিচালক হয়েছেন মোস্তাফিজুর রহমান মানিক এবং একই বছর সেরা চলচ্চিত্র হয়েছে ‘পুত্র’। জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠান উপস্থাপনা করছেন ফেরদৌস ও পূর্ণিমা। দেখে নিন কারা পেয়েছেন ২০১৭ ও ২০১৮ সালের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার। ২০১৭ সালের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারের তালিকা: আজীবন সম্মাননা: এটিএম শামসুজ্জামান ও সালমা বেগম সুজাতা। শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র: ঢাকা অ্যাটাক (কায়সার আহমেদ ও সানী সানোয়ার)। শ্রেষ্ঠ প্রামাণ্য চলচ্চিত্র: বিশ্ব আঙিনায় অমর একুশে (বাংলাদেশ টেলিভিশন)। শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র পরিচালক: বদরুল আনাম সৌদ (গহীন বালুচর)। শ্রেষ্ঠ অভিনেতা প্রধান চরিত্র: শাকিব খান (সত্তা) ও আরিফিন শুভ (ঢাকা অ্যাটাক)। শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী প্রধান চরিত্র: নুসরাত ইমরোজ তিশা (হালদা)। শ্রেষ্ঠ অভিনেতা পার্শ্ব চরিত্র: মো. শাহদাৎ হোসেন (গহীন বালুচর)। শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী পার্শ্ব চরিত্র: সুবর্ণা মুস্তাফা (গহীন বালুচর) ও রুনা খান (হালদা)। শ্রেষ্ঠ অভিনেতা খল চরিত্র: জাহিদ হাসান (হালদা)। শ্রেষ্ঠ অভিনেতা কৌতুক চরিত্র: এম ফজলুর রহমান বাবু (গহীন বালুচর)। শ্রেষ্ঠ শিশুশিল্পী: নাইমুর রহমান আপন (ছিটকিনি)। শিশুশিল্পী শাখায় বিশেষ পুরস্কার: অনন্য সামায়েল (আঁখি ও তার বন্ধুরা)। শ্রেষ্ঠ সংগীত পরিচালক: এম ফরিদ আহমেদ হাজরা (ফরিদ আহমেদ (তুমি রবে নীরবে)। শ্রেষ্ঠ নৃত্য পরিচালক: ইভান শাহরিয়ার সোহাগ, (ধ্যাততেরিকি)। শ্রেষ্ঠ গায়ক: মাহফুজ আনাম জেমস (তোর প্রেমেতে অন্ধ…, চলচ্চিত্র: সত্তা)। শ্রেষ্ঠ গায়িকা: মমতাজ বেগম (গান: না জানি কোন অপরাধে…, চলচ্চিত্র: সত্তা)। শ্রেষ্ঠ গীতিকার: সেজুল হোসেন (গান: না জানি কোন অপরাধে…, চলচ্চিত্র: সত্তা)। শ্রেষ্ঠ সুরকার: শুভাশীষ মজুমদার বাপ্পা (গান: না জানি কোন অপরাধে…, চলচ্চিত্র: সত্তা)। শ্রেষ্ঠ কাহিনিকার: আজাদ বুলবুল (হালদা)। শ্রেষ্ঠ চিত্রনাট্যকার: তৌকির আহমেদ (হালদা)। শ্রেষ্ঠ সংলাপ রচয়িতা: বদরুল আনাম সৌদ (গহীন বালুচর)। শ্রেষ্ঠ সম্পাদক: মো. কালাম (ঢাকা অ্যাটাক)। শ্রেষ্ঠ শিল্প নির্দেশক: উত্তম কুমার গুহ (গহীন বালুচর)। শ্রেষ্ঠ চিত্রগ্রাহক: কমল চন্দ্র দাস (গহীন বালুচর)। শ্রেষ্ঠ শব্দগ্রাহক: রিপন নাথ (ঢাকা অ্যাটাক)। শ্রেষ্ঠ পোশাক ও সাজসজ্জা: রিটা হোসেন (তুমি রবে নীরবে)। শ্রেষ্ঠ মেকআপম্যান: মো. জাভেদ মিয়া (ঢাকা অ্যাটাক)। ২০১৮ সালের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারের তালিকা: আজীবন সম্মাননা: অভিনেতা প্রবীর মিত্র ও এম এ আলমগীর। শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র: পুত্র (চলচ্চিত্র ও প্রকাশনা অধিদপ্তর)। শ্রেষ্ঠ স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র: গল্প সংক্ষেপ (বাংলাদেশ চলচ্চিত্র ও টেলিভিশন ইনস্টিটিউট)। শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র পরিচালক: মোস্তাফিজুর রহমান মানিক (জান্নাত)। শ্রেষ্ঠ অভিনেতা প্রধান চরিত্র: ফেরদৌস আহমেদ (পুত্র) ও সাদিক মো. সাইমন (জান্নাত)। শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী প্রধান চরিত্র: জয়া আহসান (দেবী)। শ্রেষ্ঠ অভিনেতা পার্শ্ব চরিত্র: আলী রাজ (জান্নাত)। শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী পার্শ্ব চরিত্র: সুচরিতা (মেঘকন্যা)। শ্রেষ্ঠ অভিনেতা খল চরিত্র: সাদেক বাচ্চু (একটি সিনেমার গল্প)। শ্রেষ্ঠ অভিনেতা কৌতুক চরিত্র: মোশাররফ করিম (কমলা রকেট) ও আফজাল শরিফ (পবিত্র ভালোবাসা)। শ্রেষ্ঠ শিশুশিল্পী: ফাহিম মুহতাসিম লাজিম (পুত্র)। শিশুশিল্পী শাখায় বিশেষ পুরস্কার: মাহমুদুর রহমান (মাটির প্রজার দেশে)। শ্রেষ্ঠ সংগীত পরিচালক: ইমন সাহা (জান্নাত)। শ্রেষ্ঠ নৃত্য পরিচালক: মাসুম বাবুল (একটি সিনেমার গল্প)। শ্রেষ্ঠ গায়ক: নাইমুল ইসলাম রাতুল (গান: যদি দুঃখ ছুঁয়ে…, চলচ্চিত্র: পুত্র)। শ্রেষ্ঠ গায়িকা: সাবিনা ইয়াসমিন (গান: ভুলে মান অভিমান, চলচ্চিত্র: পুত্র) ও আঁখি আলমগীর (গান: গল্প কথার ঐ…, চলচ্চিত্র: একটি সিনেমার গল্প)। শ্রেষ্ঠ গীতিকার: কবির বকুল (গান: যদি এভাবেই ভালোবাসা…, চলচ্চিত্র: নায়ক) ও জুলফিকার রাসেল (গান: যদি দুঃখ ছুঁয়ে দেখো…, চলচ্চিত্র: পুত্র)। শ্রেষ্ঠ সুরকার: রুনা লায়লা (গান: গল্প কথার ঐ…, চলচ্চিত্র: একটি সিনেমার গল্প)। শ্রেষ্ঠ কাহিনিকার: সুদীপ্ত সাঈদ খান (জান্নাত)। শ্রেষ্ঠ চিত্রনাট্যকার: সাইফুল ইসলাম মান্নু (পুত্র)। শ্রেষ্ঠ সংলাপ রচয়িতা: এস এম হারুন-অর-রশীদ (পুত্র)। শ্রেষ্ঠ সম্পাদক: তারিক হোসেন বিদ্যুৎ (পুত্র)। শ্রেষ্ঠ শিল্প নির্দেশক: উত্তম কুমার গুহ (একটি সিনেমার গল্প)। শ্রেষ্ঠ চিত্রগ্রাহক: জেড এইচ মিন্টু (পোস্ট মাস্টার ৭১)। শ্রেষ্ঠ শব্দগ্রাহক: আজম বাবু (পুত্র)। শ্রেষ্ঠ পোশাক ও সাজসজ্জা: সাদিয়া শবনম শানতু (পুত্র)। শ্রেষ্ঠ মেকআপম্যান: ফরহাদ রেজা মিলন (দেবী) ।

Share
[related_post themes="flat" id="303915"]

সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ॥ জিএম নুর ইসলাম, কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল, যশোর রোড, সাতক্ষীরা, ফোন ও ফ্যাক্স ॥ ০৪৭১-৬৩০৮০, ০৪৭১-৬৩১১৮
নিউজ ডেস্ক ॥ ০৪৭১-৬৪৩৯১, বিজ্ঞাপন ॥ ০১৫৫৮৫৫২৮৫০ ই-মেইল ॥ driste4391@yahoo.com