,
সংবাদ শিরোনাম :
» « নতুন যুগে প্রবেশ করলো সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ॥ কাটা-ছেড়া ছাড়াই অপারেশন সেন্টার উদ্বোধন» « দৈনিক দৃষ্টিপাত’র সাংবাদিক আবু বক্করকে দেখতে সদর হাসপাতালে এমপি রবি» « নতুন যোগদানকৃত শিক্ষকগণের দু’দিন ব্যাপি ওরিয়েন্টেশন» « অসুস্থ সদর উপজেলা আ’লীগ সভাপতিকে দেখতে মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এমপি রবি» « সদর হাসপাতালে স্বাস্থ্য সেবার মানোন্নয়নে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে -এমপি রবি» « মাসিক উন্নয়ন সমন্বয়, আইন শৃংখলা, সন্ত্রাস ও নাশকতা প্রতিরোধ কমিটির পৃথক পৃথক সভা অনুষ্ঠিত» « শ্যামনগরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ম্যুরাল এর ভিত্তি প্রস্তর উদ্বোধন» « আখেরী মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হলো ॥ গুনাকরকাটি খানকাহ্ শরীফের ৯৭তম বার্ষিক ওরস ও ফাতেহা শরীফ» « প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের রচনা ও চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা» « সাংবাদিক রফিকুল ইসলাম রানার পিতার জানাযা অনুষ্ঠিত ॥ প্রেসক্লাবের শোক» « দেশে দেশে গোয়েন্দা ॥ তারকা গোয়েন্দা ফ্রেডরিক জোবার্ট

বিশ্ব ইজতেমায় আত্মশুদ্ধি কামনা, আখেরি মোনাজাতে লাখো মানুষ

এফএনএস: ‘আল্লাহ আমাদের হেদায়েত করুন। আমাদের দোয়া কবুল করে নিন। আমাদের গুনাহ মাফ করে দিন।’ টঙ্গীর তুরাগতীরে বিপুলসংখ্যক মুসল্লি দুই হাত তুলে অংশ নিয়েছেন মোনাজাতে। একই সঙ্গে দেশ-বিদেশের বিভিন্ন এলাকার লাখো মুসল্লি অংশ নেন ওই মোনাজাতে। সারা বিশ্বে শান্তি ও মানুষের মঙ্গল কামনায় লাখো মুসল্লি অংশ নেন বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বের আখেরি মোনাজাতে। হেদায়েতি বয়ান শেষে আখেরি মোনাজাত পরিচালনা করেন ভারতের নিজামুদ্দিন মারকাজের মাওলানা জামশেদ। ইসলামের দাওয়াত ঘরে ঘরে পৌঁছে দেওয়ার প্রত্যয় এবং বিশ্ব শান্তি, সংহতি ও মুসলিম উম্মাহর কল্যাণ আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হলো এবারের বিশ্ব ইজতেমা। দুপুর পৌনে ১২টায় শুরু হয় মোনাজাত। ঠিক দুপুর ১২টা সাত মিনিট পর্যন্ত মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়। দেশ ও জাতির কল্যাণে দোয়া করা হয়। সবার ব্যক্তিজীবনের শান্তি ও মঙ্গলের জন্যও দোয়া করা হয়। মহান রাব্বুল আলামিনের কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করেছেন মুসল্লিরা। আখেরি মোনাজাতে অংশ নিতে গতকাল ভোর থেকেই লাখো মুসল্লি হেঁটে, বিভিন্ন যানবাহন ও ট্রেনে করে টঙ্গীর ইজতেমা ময়দানে এসে সমবেত হন। আখেরি মোনাজাত উপলক্ষে গতকাল ভোর থেকে মোনাজাত শেষ না হওয়া পর্যন্ত ইজতেমা ময়দানের পাশের সড়কে গণপরিবহন চলাচল বন্ধ রাখা হয়। বিশ্ব ইজতেমায় আগত মুসল্লিদের নিরাপত্তায় ও যেকোনো ধরনের অপতৎপরতা ঠেকাতে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার রয়েছে। প্রায় সাড়ে আট হাজার পুলিশ সদস্যের পাশাপাশি র্যাব সদস্যরা নিরাপত্তার দায়িত্বে কাজ করছেন। গড়ে তোলা হয়েছে পাঁচ স্তরের নিরাপত্তাবলয়। ওয়াচ টাওয়ার ও সিসি ক্যামেরার মাধ্যমে পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে ময়দানের চারপাশে থেকে। একই সঙ্গে ময়দানের ভেতরে খিত্তায় খিত্তায় অবস্থান নিয়ে গোয়েন্দা কর্মীরা নজরদারি করছেন। এদিকে শনিবার ছিল বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বের দ্বিতীয় দিন। দ্বিতীয় দিনে বাদ ফজর বয়ান করেন ভারতের মাওলানা মোহাম্মদ মুরসালীন। আর এর বাংলা তরজমা করেন মুফতি আজিমউদ্দিন। শুক্রবার রাত পর্যন্ত প্রায় ৩১ দেশের এক হাজার ৪৪১ জন বিদেশি মেহমান এ পর্বে অংশ নেন। ইবাদত-বন্দেগি, খিত্তাভিত্তিক তাশকিলে তালিম, ইস্তেকবাল জামাত, নূরেওয়ালি জামাত গঠন এবং চিল্লাবন্দি হয়ে দেশ-বিদেশে দ্বীনের দাওয়াত ছড়িয়ে দেওয়াসহ তাবলিগের বিভিন্ন বিষয়ের ওপর বয়ান শোনার মধ্য দিয়ে বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব চলছে। শনিবার দ্বিতীয় দিনে শুধু তাবলিগ কর্মকান্ডের ওপর আলোচনা ও জোটবন্দি হয়ে তাবলিগের ওপর গুরুত্ব দেওয়া হয়। ইজতেমা থেকে শিক্ষা নিয়ে দ্বীনের কাজে লাগাবেন বলে জানিয়েছেন মুসল্লিরা। মুসল্লিদের যাতায়াতের জন্য বিশেষ ট্রেনের ব্যবস্থা করা হয়েছে। প্রতিটি ট্রেন টঙ্গী জংশনে যাত্রাবিরতি করবে। এর আগে গত শুক্রবার ভোরে টঙ্গীর তুরাগতীরে ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব শুরু হয়। ফজরের নামাজের পর ভারতের মাওলানা মুহাম্মদ ওসমানের আমবয়ানের মধ্য দিয়ে ৫৫তম ইজতেমার আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়। দুই ভাগে বিভক্ত হয়ে পড়া তাবলিগ জামাতের মাওলানা সাদ কান্ধলভির অনুসারী তাবলিগের সদস্যরা এ পর্বে অংশ নেন। বিশ্ব ইজতেমার এবারের পর্বে ভারতের নিজামুদ্দিন মারকাজের শীর্ষ মুরুব্বি মাওলানা সাদ কান্ধলভি যোগদান না করলেও তাঁর পক্ষে তাবলিগের শীর্ষ মুরুব্বি ও আলেমসহ ৩২ সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল অংশ নিয়েছে। ইজতেমায় দ্বিতীয় পর্বে দুইজনের মৃত্যু : টঙ্গীর টঙ্গীর তুরাগ তীরে ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বে যোগ দিতে আসা আরও দুইজনের মৃত্যু হয়েছে। গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের কন্ট্রোল রুমের মিডিয়ার দায়িত্বপ্রাপ্ত মহানগর পুলিশের উপকমিশনার মো. মনজুর রহমান জানান, শনিবার রাত থেকে গতকাল রোববার ভোর পর্যন্ত এ দুইজনের মৃত্যু হয়। এরা হলেন- গাইবান্ধার গবিন্দগঞ্জ থানার চাদপাড়া দুর্গাদাহ এলাকার শাহ আলম (৬৫) ও গাইবান্ধার সাঘাটা থানার কামালের হাট এলাকার আবুল কাসেমের ছেলে মো. সোবাহান (৭০)। মনজুর বলেন, বার্ধক্যজনিত রোগে ভোরে শাহ আলম এবং আগের রাতে সোবাহানের মৃত্যু হয়।

Share
[related_post themes="flat" id="306258"]

সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ॥ জিএম নুর ইসলাম, কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল, যশোর রোড, সাতক্ষীরা, ফোন ও ফ্যাক্স ॥ ০৪৭১-৬৩০৮০, ০৪৭১-৬৩১১৮
নিউজ ডেস্ক ॥ ০৪৭১-৬৪৩৯১, বিজ্ঞাপন ॥ ০১৫৫৮৫৫২৮৫০ ই-মেইল ॥ driste4391@yahoo.com