,
সংবাদ শিরোনাম :
» « বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকী উদযাপনে সাতক্ষীরায় সম্প্রীতি সংলাপ ॥ সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি মানুষের ঘরে ঘরে» « সাতক্ষীরা পুলিশের বিভিন্ন শাখা পরিদর্শন ও কল্যান সভায় ডিআইজি ডঃ মহিদ উদ্দীন» « সাতক্ষীরা সরকারী কলেজকে বিশ্ববিদ্যালয় ও সিটি কলেজ জাতীয়করন করা হবে ইনশাল্লাহ-এমপি রবি» « সাতক্ষীরায় শিল্পকলা একাডেমির প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী ও বসন্ত উৎসব পালন» « যশোরে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় দু’জন নিহত ॥ আহত ২০ শিক্ষার্থী» « খুলনায় জনবান্ধব ভূমিসেবা ব্যবস্থাপনা বিষয়ে সেমিনার» « প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে নেপালের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সাক্ষাৎ» « কাদাকাটি টু কাটাখালী সড়কের দুরাবস্থা ॥ দূর করার আকুতি এলাকাবাসীর» « পানিতে ঢাকা পর্যটন শহর ॥ ডুবে আছে রূপের নগরী ভেনিস» « স্ত্রীকে অপহরনে বাধা দেওয়ায় স্বামীকে কুপিয়ে জখম» « প্রতাপনগরের কুটির শিল্প ঐতিহ্য ॥ হরিনের সিং তৈরি মুর্তি মাথা ও মহিষের সিং’র ছড়ি লাঠি বিলুপ্তির পথে

আসামে বন্ধ হচ্ছে সরকারি মাদ্রাসা

এফএনএস বিদেশ : আসামে রাষ্ট্রীয় সব মাদ্রাসা ও সংস্কৃত টোল বন্ধ করে দিয়ে ছয় মাসের মধ্যে সেগুলোকে সাধারণ স্কুলে পরিণত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য সরকার। এই সিদ্ধান্তের ব্যাখ্যায় আসামের শিক্ষামন্ত্রী হিমন্ত বিশ্ব শর্মা বলেছেন, “শিশুদের ধর্ম, ধর্মগ্রন্থ ও ভাষা, যেমন আরবি, শিক্ষা দেওয়া ধর্মনিরপেক্ষ সরকারের কাজ না।” এনডিটিভি জানিয়েছে, আসামের বিজেপি নেতৃত্বাধীন সরকার ২০১৭ সালে মাদ্রাসা ও সংস্কৃত টোল বোর্ড তুলে দিয়ে বোর্ডের অধীন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোকে মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের অধিভুক্ত করেছিল; এখন তারা সেগুলোকে পুরেপুরি বন্ধ করে দেওয়ার পরিকল্পনা নিয়েছে। এ বিষয়ে শিক্ষামন্ত্রী শর্মা এনডিটিভিকে বলেন, “আসামে প্রায় ১২০০ মাদ্রাসা ও ২০০ সংস্কৃত টোল আছে, কিন্তু এগুলো পরিচালনা করার মতো স্বতন্ত্র কোনো বোর্ড নেই। এই প্রতিষ্ঠানগুলোর লোকজন ম্যাট্রিকুলেশন বা উচ্চমাধ্যমিকস্কুলের সমমানের সার্টিফিকেট পাওয়ায় অনেক সমস্যা তৈরি হচ্ছে। এ কারণেই রাজ্য সরকার সব মাদ্রাসা ও সংস্কৃত টোলকে নিয়মিত স্কুলে পরিণত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।” এর পাশাপাশি রাজ্যটিতে বিদ্যমান প্রায় দুই হাজার বেসরকারি মাদ্রাসাকে নিয়ন্ত্রণে আনতে কঠোর বিধিবিধান করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। “রাজ্য সরকার ধর্মনিরপেক্ষ সত্তা হওয়ায় এটি ধর্মীয় শিক্ষায় নিয়োজিত সংস্থাকে অর্থায়ন করতে পারে না। তবে বেসরকারি মাদ্রাসা ও সংস্কৃত টোলগুলো কার্যক্রম অব্যাহত রাখতে পারবে, কিন্তু তারা যেন একটি নিয়ন্ত্রক কাঠামো অনুযায়ী চলে তা নিশ্চিত করতে আমরা শিগগিরই নতুন একটি আইন করবো,” বলেন শিক্ষামন্ত্রী। অভিভাবকের নেওয়া সিদ্ধান্তের কারণে শিশু যেন উপযুক্ত শিক্ষা থেকে বঞ্চিত না হয়, তা নিশ্চিত করতেই এ পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে বলে জানান তিনি। তিনি আরও জানান, ধর্মীয় শিক্ষার পাশাপাশি বাধ্যতামূলক সাধারণ শিক্ষা মাদ্রাসাগুলোতে নিশ্চিত করতেও পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে।

Share
[related_post themes="flat" id="308904"]

সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ॥ জিএম নুর ইসলাম, কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল, যশোর রোড, সাতক্ষীরা, ফোন ও ফ্যাক্স ॥ ০৪৭১-৬৩০৮০, ০৪৭১-৬৩১১৮
নিউজ ডেস্ক ॥ ০৪৭১-৬৪৩৯১, বিজ্ঞাপন ॥ ০১৫৫৮৫৫২৮৫০ ই-মেইল ॥ driste4391@yahoo.com