,
সংবাদ শিরোনাম :
» « দিলি−তে হিংসার আগুনে নিহত ২৭» « প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের আর্থিক সহায়তা পেলেন সাতক্ষীরার ৩৫ জন» « কালিগঞ্জে সামাজিক সুরক্ষা এবং ন্যায্যতা নিশ্চিতকরণ সমন্বয় সভা» « মুজিব বর্ষে সাতক্ষীরা সদর উপজেলা ভিক্ষুক মুক্ত হবে ॥ পুনর্বাসনের উদ্যোগ» « তথ্য মেলায় সাতক্ষীরা বিআরটিএ’র ১ম পুরস্কার অর্জন» « মাধ্যমিকে বিজ্ঞান-মানবিক-বাণিজ্য শাখা না রাখার পক্ষে প্রধানমন্ত্রী» « ভয়ঙ্কর যত রেল দুর্ঘটনা ॥ ভালভানো [ইতালি], মৃতের সংখ্যা : ৫০০» « নব নির্মিত ভবনের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন» « কালিগঞ্জ উপজেলা কেন্দ্রীয় সমবায় সমিতির বার্ষিক সাধারণ সভা» « প্রবাসীদের পাঠানো বৈদেশিক মুদ্রা ও বাস্তবতা» « শহীদ মুক্তিযোদ্ধা স্ত্রী আমেনা বিবি প্রধানমন্ত্রীর স্বাক্ষাত এবং স্বীকৃতি চান

স্পিকারের সঙ্গে রাষ্ট্রদূতের বৈঠক ॥ রোহিঙ্গা প্রর্ত্যাবাসনে ভিয়েতনাম বাংলাদেশের পাশে থাকবে

ঢাকা ব্যুরো ॥ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বিভিন্ন ক্ষেত্রে বাংলাদেশের উন্নয়নের প্রশংসা করে বাংলাদেশে নিযুক্ত ভিয়েতনামের রাষ্ট্রদূত ফাম ভিয়েত চিয়েন বলেছেন, সামাজিক ও অর্থনৈতিক উন্নয়নে বাংলাদেশের অগ্রগতি এখন দৃশ্যমান। রোহিঙ্গাদের শান্তিপূর্ণ প্রর্ত্যাবাসনে ভিয়েতনাম বাংলাদেশের পাশে থাকবে। গতকাল বৃহস্পতিবার স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী সঙ্গে বৈঠককালে একথা বলেন তিনি। স্পিকারের সংসদ ভবনস্থ কার্যালয়ে ওই বৈঠকে বাংলাদেশ ও ভিয়েতনামের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক, সংসদীয় মৈত্রী গ্র“প, ব্যবসা-বাণিজ্য, রোহিঙ্গা ইস্যু, নারী উন্নয়ন এবং বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন নিয়ে আলোচনা হয়। এ সময় স্পিকার বাংলাদেশ ও ভিয়েতনামের মধ্যকার বর্তমান সম্পর্ককে অত্যন্ত চমৎকার উল্লেখ করে বলেন, এই সম্পর্ক আগামী দিনগুলোতে আরো গভীর হবে। বাংলাদেশ ও ভিয়েতনামের মধ্যকার বিশেষ করে আবহাওয়া, পরিবেশ, জনসংখ্যা এবং ভৌগোলিক অবস্থাসহ বিভিন্ন বিষয় মিল রয়েছে। দু’টি দেশই যুদ্ধ সংগ্রামের মাধ্যমে স্বাধীনতা অর্জন করেছে বলে তিনি উল্লেখ করেন। দুই দেশের সংসদীয় প্রতিনিধিদলের সফরের মাধ্যমে বর্তমান সম্পর্ক আরও জোরদার করা সম্ভব উল্লেখ করে স্পিকার বলেন, ব্যবসা-বাণিজ্যের প্রসারেও দুই দেশের সম্পর্ক শক্তিশালী হতে পারে। স্পিকার শিরীন শারমিন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী “মুজিববর্ষ-২০২০” উদযাপন উপলক্ষে ভিয়েতনামের স্পিকারকে বাংলাদেশে আমন্ত্রণ জানাবেন বলে উল্লেখ করেন। রাষ্ট্রদূত ফাম ভিয়েত চিয়েন বাংলাদেশের প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের প্রশংসা করে বলেন, অর্থনৈতিক উন্নয়নে বাংলাদেশ অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত। এসময় তিনি বাংলাদেশের ধারাবাহিক জিডিপি ৮ শতাংশ অর্জনের প্রশংসা করেন। তিনি ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ উন্নত দেশে পরিণত হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন। অর্থনৈতিক উন্নয়নেও বাংলাদেশ ও ভিয়েতনামের মিল রয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ২০৪৫ সালের মধ্যে ভিয়েতনামও উন্নত সমৃদ্ধ দেশে পরিণত হবে।

Share
[related_post themes="flat" id="308960"]

সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ॥ জিএম নুর ইসলাম, কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল, যশোর রোড, সাতক্ষীরা, ফোন ও ফ্যাক্স ॥ ০৪৭১-৬৩০৮০, ০৪৭১-৬৩১১৮
নিউজ ডেস্ক ॥ ০৪৭১-৬৪৩৯১, বিজ্ঞাপন ॥ ০১৫৫৮৫৫২৮৫০ ই-মেইল ॥ driste4391@yahoo.com