1. admin@dainikdrishtipat.com : admin :
  2. driste4391@yahoo.com : Dailik Drishtipat : Dailik Drishtipat
শুক্রবার, ২৯ মে ২০২০, ১১:৪৮ অপরাহ্ন

শ্যামনগর ঈদুল আযহাকে সামনে রেখে কর্মযজ্ঞে ব্যস্ত সময় পার করছেন কামার শিল্পীরা

দৈনিক দৃষ্টিপাত ডেস্ক ::
  • আপডেট টাইম :: বৃহস্পতিবার, ৮ আগস্ট, ২০১৯
  • ০ বার পড়া হয়েছে

এস এম জাকির হোসেন, শ্যামনগর থেকেঃ লোহা ও হাতুড়ির টুং-টাং শব্দে মুুখরিত হয়ে উঠেছে শ্যমানগর উপজেলার কামারশালাগুলো। আর মাত্র তিনদিন পরেই উদযাপিত হবে মুসলিম সমপ্রদায়ের অন্যতম ধর্মীয় উৎসব ঈদুল আযহা। আল্লাহর হুকুমে হযরত ইসমাইল (আঃ) এর আমল থেকে জিলহজ্ব মাসের ১০ তারিখে মুসলিম সম্প্রদায়ের আর্থিক সচ্ছল ব্যাক্তিরা পশু কুরবানির মাধ্যমে ঈদুল আযহা পালন করে থাকে। মহান রাব্বুল আলামিনকে সন্তুষ্টি করার জন্য মুসলিম সম্প্রদায় পশু কুরবানি দেওয়ার জন্য যেমন প্রস্তুতি নিচ্ছে। তেমনি ঈদকে সামনে রেখে ব্যাস্ত সময় পার করছেন বিভিন্ন পেশার শিল্পীরা।এদের মধ্য অন্যতম কর্মযজ্ঞ্যে ব্যস্ত কামার শিল্পীরা।দিন যতই ঘনিয়ে আসছে কামারপাড়া ততই সরগরম হয়ে উঠছে। কোরবানির পশু জবাই গোশ কাটার কাজ সহজতর করতে কোরবানি দাতা পুরাতন দা-বটি, ছুরি-ছোরা, চাপাতি ইত্যাদি সংষ্কার ও নতুন তৈরী করতে কামাদের দোকানে এক মাস আগে থেকেই অর্ডার দিয়ে রেখেছে বলে অনেক কামার শিল্পী রা জানিয়েছেন। অর্ডারকৃত দা-বটি, ছুরি-ছোরা ও চাপাতি গ্রাহকদের মাঝে সরবারহ করতে দিনরাত ভূলে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন কামার শ্রমিকরা। উপজেলার বিভিন্ন কামার শালায় খোজ নিয়ে জানা যায়, এক কেজি ওজনের একটি দা-বটি ৪০০-৬০০ টাকা, দুই কেজি ওজনের একটি চাপাতি ৭০০-৮০০ টাকা এবং ছুরি-ছোরা ৫০-৫০০ টাকা প্রর্যন্ত বিক্রি হচ্ছে। উপজেলার নূরনগরের প্রবীন কামার অর্জুন কর্মকার জানান, অন্যবারের তুলনায় এবার বেশি অর্ডার পেয়েছি। আর তাছাড়া রেডিমেট তৈরি মালামাল বেশি বিক্রয় হচ্ছে। এমন কাজ যদি সব সময় যদি থাকত তবে আমরা আর্থিক ভাবে স্বচ্ছল হতাম এমন আবেগঘণ কথা জানালেন কামার শিল্পীরা।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2020 dainikdristipat.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbazardristip41