1. admin@dainikdrishtipat.com : admin :
  2. driste4391@yahoo.com : Dailik Drishtipat : Dailik Drishtipat
বুধবার, ০৫ অগাস্ট ২০২০, ০৭:২৯ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
লেবাননে ভয়াবহ বিস্ফোরণ, নিহত অন্তত ২৭ মহা প্রলয়ঙ্কারী জ্বলোচ্ছাস ঘুর্নিঝড় আম্ফানে বিধ্বস্ত প্লাবিত হওয়ার ৭৭ দিন ॥ অথৈ লবণাক্ত পানিতে ভাসছে প্রতাপনগর কৃষ্ণনগরে খাল থেকে ড্রেজার মেশিনের মাধ্যমে বালু উঠানো গর্তে ডুবে এক শিশুর করুণ মৃত্যু কেশবপুরে মাদক ব্যাবসায়ীসহ ২ জনের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ শোভনালীর ভাঙ্গন কবলিত কালভার্ট পরিদর্শন করলেন উপজেলা চেয়ারম্যান মোস্তাকিম করোনা উপসর্গে সাতক্ষীরায় আরো ২ জনের মৃত্যু সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজে হাই ফ্লো অক্সিজেন ক্যানুলা প্রদান মহান মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক প্রবীণ চিকিৎসক হযরত আলীর ইন্তেকাল অন্য বছরের ন্যায় এমপি রবির পক্ষ থেকে কোরবানীর গোসতো বিতরণ ঈদগাহ’র উন্নয়নের ১ লক্ষ টাকা অনুদান

থানার ওসির হস্তক্ষেপে বন্ধ হলো সিরিয়ালের নামে চাঁদা আদায়

দৃষ্টিপাত ডেস্ক :
  • Update Time : সোমবার, ২ ডিসেম্বর, ২০১৯

কেশবপুর (যশোর) প্রতিনিধি ॥ কেশবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ আবু সাঈদের হস্তক্ষেপে সন্ন্যাসগাছা-শাহপুর সড়কে বিভিন্ন যানবাহনের চালকদের কাছ থেকে প্রায় ৩ বছর ধরে চলতে থাকা সিরিয়ালের নামে টাকা নেওয়া বন্ধ হয়েছে। জানা যায়, খুলনা-সাতক্ষীরা সড়কের শাহ্পুর থেকে সন্ন্যাসগাছা পর্যন্ত রাস্তার দৈর্ঘ্য প্রায় ১৩ কিলোমিটার। এর মধ্যে ৫ কিলোমিটার খুলনার ডুমুরিয়া উপজেলার মধ্যে। বাকি ৮ কিলোমিটার যশোরের কেশবপুর উপজেলার গৌরীঘোনা ইউনিয়নের সন্ন্যাসগাছা সেতু পর্যন্ত। চালকরা অভিযোগ করে বলেন, এ সড়কে প্রতিদিন ৩০টি মাহেন্দ্র, ৩০টি ইজিবাইক ও ১০টি লেগুনা চলাচল করে। এসব যানবাহন শাহপুর থেকে চুকনগর বাজার হয়ে সন্ন্যাসগাছা সেতুর সামনে গিয়ে আবার ঘুরে আসে। সেতুসংলগ্ন সড়কের পাশে চালকরা একটি অস্থায়ী গাড়িস্ট্যান্ড তৈরি করেছেন। ওই সড়কে গাড়ি চালাতে হলে প্রতিদিন প্রতিটি মাহেন্দ্রর জন্য ৪০ টাকা, ইজিবাইক প্রতি ৩০ টাকা ও প্রতিটি লেগুনার জন্য ৬০ টাকা দিতে হতো। তারা আরও জানান, স্ট্যান্ডে দাঁড়ালে বা সেখান থেকে যাত্রী ওঠালেই তাদের সিরিয়ালের নামে টাকা দিতে হতো। কেন এই টাকা নেওয়া হচ্ছে- তা চালকরা জানতে চাইলে তাদের বিভিন্নভাবে হুমকি দিত সিরিয়ালের নামে টাকা নেওয়া ব্যক্তিবর্গ। খবর পেয়ে দীর্ঘদিন ধরে সিরিয়ালের নামে টাকা নেওয়া অবশেষে বন্ধ করলেন কেশবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ আবু সাঈদ। এব্যাপারে কেশবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ আবু সাঈদ জানান, রোববার সিরিয়ালের নামে চাঁদা আদায়ের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে সেটা বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। এরপরও যদি কেউ চালকদের জিম্মি করে চাঁদা আদায় করার অভিযোগ পেলে তার বা তাদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

শেয়ার

আরও খবর
© All rights reserved © 2020 dainikdristipat.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbazardristip41