1. admin@dainikdrishtipat.com : admin :
  2. driste4391@yahoo.com : Dailik Drishtipat : Dailik Drishtipat
রবিবার, ০৯ অগাস্ট ২০২০, ০৫:৪৭ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
জলাবদ্ধতায় বিপর্যস্থ সাতক্ষীরা : শহরে সড়কে, গ্রামে সর্বত্রই পানি: উৎপাদন, জনজীবন এবং স্বাস্থ্য হুমকির মুখে সাতক্ষীরায় আরো ২০ জন করোনা আক্রান্ত ॥ মোট সনাক্ত ৭৯২ জন জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের উদ্যোগে বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের জন্ম বার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা ও দোয়া অনুষ্ঠান উপকূলে টেকসই বেড়িবাঁধ নির্মাণে আসছে মেগা প্রকল্প ৭২ ঘন্টায় বৃষ্টিপাত বৃদ্ধির পূর্বাভাস আশাশুনিতে বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের জন্মবার্ষিকীতে বৃক্ষরোপন শোভনালীর শালখালীতে ভেঙ্গে যাওয়া কালভার্ট নিয়ে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত সাতক্ষীরা জেলা কৃষকলীগের জাতীয় শোক দিবস পালনের প্রস্তুতি সভা বাংলাদেশের শিল্প ও বৈদেশিক বাণিজ্য ধুলিহর আ’লীগের উদ্যোগে ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের জন্মবার্ষিকী পালন

মুসলিম বিশ্বে ভাস্কর্য ॥ আধুনিক মালয়েশিয়া

দৃষ্টিপাত ডেস্ক :
  • Update Time : সোমবার, ১৩ জানুয়ারী, ২০২০

ভাস্কর্যশিল্প একটি দেশের সংস্কৃতির অবিচ্ছেদ্য অংশ। নানা সময়ে আবিষ্কৃত নানা ভাস্কর্য থেকে বোঝা যায়, সুদূর অতীতকাল থেকেই পৃথিবীতে ভাস্কর্যশিল্পের বিকাশ ঘটেছিল। প্রাগৈতিহাসিক যুগ থেকে মূর্তি ও ভাস্কর্য পৃথিবীর ইতিহাস ও সংস্কৃতির গৌরব বহন করে চলেছে। এ থেকে মুসলিম বিশ্বও পৃথক নয়। সৌদি আরব, ইন্দোনেশিয়া, ইরাকের মতো দেশগুলোতেও দৃষ্টিনন্দন ভাস্কর্যের দেখা মেলে। ভাস্কার্যের আজকের বিশেষ আয়োজনে- আধুনিক মালয়েশিয়া : মালয়েশিয়ার রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম। মুসলিম জনগোষ্ঠী অধ্যুষিত মালয়েশিয়ার অবস্থান মুসলিম বিশ্বে ১৩তম। দুই কোটি ৮০ লাখের অধিক জনসংখ্যার দেশটির ৬০.৪ শতাংশ মানুষ মুসলিম। এখানেও রয়েছে অনেক দৃষ্টিনন্দন ভাস্কর্য। মালয়েশিয়ার সবচেয়ে বিখ্যাত ভাস্কর্য হলো ওয়াশিংটন মনুমেন্টের আদলে গড়া ন্যাশনাল মনুমেন্ট। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে শহীদ হওয়া বীরদের স্মরণে ১৫ মিটারের এই ভাস্কর্যটি উন্মুক্ত করা হয় ১৬৬৩ সালে। প্রতীকীভাবে সাতজন বীরের প্রতিমূর্তির মাধ্যমে বিশ্বস্ততা, আত্মত্যাগ আর বন্ধুত্বের বিষয়টি এই ভাস্কর্যের মধ্য দিয়ে বোঝানো হয়েছে। মালয়েশিয়ার ভাস্কর্যশিল্প সনাতন ও আধুনিক ধারার এক স্বতন্ত্র মেলবন্ধন। মালয়েশিয়ার অন্যান্য উল্লেখযোগ্য ভাস্কর্যগুলো হলো বাতু কেভসের বিখ্যাত মুরুগান মূর্তি, কুচিং হলিডে ইন হোটেলের সামনে মার্জার মূর্তি এবং কনফুসিয়াসের মূর্তি। এখানে এসব ভাস্কর্য পরিদর্শনে পর্যটকরা নিয়মিত এসে থাকেন। ন্যাশনাল মনুমেন্টই সবচেয়ে বেশি বিখ্যাত।-সংগৃহীত

শেয়ার

আরও খবর
© All rights reserved © 2020 dainikdristipat.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbazardristip41