1. admin@dainikdrishtipat.com : admin :
  2. driste4391@yahoo.com : Dailik Drishtipat : Dailik Drishtipat
বুধবার, ০৫ অগাস্ট ২০২০, ০৬:২৫ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
লেবাননে ভয়াবহ বিস্ফোরণ, নিহত অন্তত ২৭ মহা প্রলয়ঙ্কারী জ্বলোচ্ছাস ঘুর্নিঝড় আম্ফানে বিধ্বস্ত প্লাবিত হওয়ার ৭৭ দিন ॥ অথৈ লবণাক্ত পানিতে ভাসছে প্রতাপনগর কৃষ্ণনগরে খাল থেকে ড্রেজার মেশিনের মাধ্যমে বালু উঠানো গর্তে ডুবে এক শিশুর করুণ মৃত্যু কেশবপুরে মাদক ব্যাবসায়ীসহ ২ জনের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ শোভনালীর ভাঙ্গন কবলিত কালভার্ট পরিদর্শন করলেন উপজেলা চেয়ারম্যান মোস্তাকিম করোনা উপসর্গে সাতক্ষীরায় আরো ২ জনের মৃত্যু সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজে হাই ফ্লো অক্সিজেন ক্যানুলা প্রদান মহান মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক প্রবীণ চিকিৎসক হযরত আলীর ইন্তেকাল অন্য বছরের ন্যায় এমপি রবির পক্ষ থেকে কোরবানীর গোসতো বিতরণ ঈদগাহ’র উন্নয়নের ১ লক্ষ টাকা অনুদান

কুল্যার বিভিন্ন ওয়ার্ডে কর্মসৃজন কর্মসূচির কাজে চলছে ব্যাপক অনিয়ম ও দুর্নীতি

দৃষ্টিপাত ডেস্ক :
  • Update Time : বুধবার, ১২ ফেব্রুয়ারী, ২০২০

এম এম নুর আলম ॥ আশাশুনি উপজেলার কুল্যা ইউনিয়নের বিভিন্ন ওয়ার্ডে কর্মসৃজন কর্মসূচির কাজে ব্যাপক অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ পাওয়া গেছে। বুধবার বেলা ১১টায় ইউনিয়নের ৭ নম্বর ওয়ার্ডের আগরদাড়ী গিয়ে দেখা গেছে, উক্ত ওয়ার্ডে কর্মসৃজন কর্মসূচির নির্ধারিত তালিকায় ৩৭জনের নাম উল্লেখ থাকলেও সেখানে ইউপি সদস্যে আলমগীর হোসেন আঙ্গুরের একান্ত সহযোগী মৃত আজগার সরদারের ছেলে নূর মোহাম্মদ সরদার, হাবিবুর সরদারের ছেলে পলাশ সরদার, ওবায়দুল্লাহ এর স্ত্রীর রীমা খাতুন, রেজাউল করিমের ছেলে শাকিল আহমেদ, গ্রাম পুলিশ মফিজুল ইসলামের স্ত্রী জোসনা খাতুন, ইউনুস আলীর ছেলে রুবেল হোসেন ও কেরামত আলীর ছেলে আবু বক্কর সিদ্দিক অনুপস্থিত। এছাড়াও তালিকায় যাদের নাম উল্লেখ করা আছে তাদের অনেকেই কাজে নেই। ষষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্রকে লাগানো হয়েছে কর্মসূচির কাজে কিন্তু নামের তালিকায় কোথাও তার নাম পাওয়া যায়নি। পরে জানা গেছে সে তার ঠাম্মার পরিবর্তে কাজে এসেছে। কর্মসৃজন কর্মসূচির কাজের জন্য নির্দিষ্ট প্রকল্প দেওয়া থাকলে সরোজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, নিয়ম না মেনে আগরদাড়ী উত্তরপাড়া জামে মসজিদের পাশে এবং ইউপি সদস্য আলমগীর হোসেন আঙ্গুরের পারিবারিক গোরস্থান ভরাটে কাজ করছেন শ্রমিকরা। গোরস্থান ভরাটে ২৯ জন শ্রমিকের কাজ করার কথা থাকলেও সেখানে উপস্থিত ছিল ২৪ জন এবং আগরদাড়ি পশ্চিমপাড়া জামে মসজিদের পাশে ৮ জন শ্রমিক উপস্থিত থাকার কথা থাকলেও সেখানে উপস্থিত ছিল ৬ জন শ্রমিক। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক ব্যক্তি জানান, ইউপি সদস্য আলমগীর হোসেন আঙ্গুর এর বিরুদ্ধে কর্মসূচির কাজের জন্য লোক নিয়োগে উৎকোচ গ্রহণ, অনুপস্থিত শ্রমিকদের টাকা ভাগাভাগি, কর্মসৃজন এর লোক যাচাই-বাছাই এ স্বজনপ্রীতি, নিজের বাড়ি সহ বিভিন্ন স্থানে শ্রমিকদের দিয়ে কাজ করানো সহ বিভিন্ন অভিযোগ রয়েছে। যে উদ্দেশ্যে সরকার ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে কর্মসৃজন কর্মসূচির কাজ চালু করেছিল সে উদ্দেশ্যকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে স্বজনপ্রীতির মাধ্যমে সরকারের উদ্দেশ্যকে ব্যাহত করছেন তিনি। এ বিষয়ে জানতে চাইলে আলমগীর হোসেন আঙ্গুর মুঠোফোনে জানান, আমি সব সময় ন্যায়ের পক্ষে, চেয়ারম্যান সাহেব আমাকে বলেছেন কর্মসূচির কাজে কোনো দুর্নীতি করা যাবে না। তারা যদি অনুপস্থিত থাকে তাহলে টাকা পাবে না। অপরদিকে, গত মঙ্গলবার ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ডে কুল্যা ইউপি চেয়রম্যান আব্দুল বাছেত আল হারুন চৌধুরী নিজে সরোজমিনে গিয়ে মৃত জামাল উদ্দিনের ছেলে আবু বক্কর সিদ্দিক, মিজানুর রহমানের ছেলে আবুল কালাম আজাদ, সুভাষ দাশের স্ত্রী সুন্দরী দাশী, আলাউদ্দিন সরদারের ছেলে বেলাল হোসেন, মৃত তারিফ সরদারের ছেলে মোফাজ্জেল হোসেন ও মৃত পরান সরদারের ছেলে আব্দুল হামিদকে কর্মক্ষেত্রে অনুপস্থিত পান। এসকল বিষয়ে ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল বাছেত আল হারুন চৌধুরী মুঠোফোনে জানান, কর্মসৃজন কর্মসূচি কাজে লোক নিয়োগের সময় আমি প্রত্যেক ইউপি সদস্যকে বিগত বছর গুলোতে যারা কাজে অনুপস্থিত ছিলো তাদের তালিকা থেকে বাদ দিয়ে নতুনদেরকে সুযোগ করে দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছিলাম। কিন্তু উর্দ্বতন কর্তৃপক্ষ ও স্থানীয়দের চাপে আমি আমার সিদ্ধান্ত যথাযথভাবে বাস্তবায়ন করতে পারেনি। তিনি আরও জানান, আমি ৪ নম্বর ওয়ার্ড সহ বিভিন্ন ওয়ার্ডে নিজে ঘুরে শ্রমিকদের অনুপস্থিত দেখে এসেছি। এবিষয়ে আমি উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করবো। এদিকে, কর্মসৃজন কর্মসূচি প্রকল্পে দুর্নীতি ও অনিয়মের বিরুদ্ধে তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য যথাযথ কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন ইউনিয়নের সচেতন মহল।

শেয়ার

আরও খবর
© All rights reserved © 2020 dainikdristipat.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbazardristip41