1. admin@dainikdrishtipat.com : admin :
  2. driste4391@yahoo.com : Dailik Drishtipat : Dailik Drishtipat
মঙ্গলবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০১:১৮ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের নেতৃবৃন্দের হাতে র‌্যাবের বিশেষ সাময়িকী উপহার তুলে দিলেন র‌্যাব-৬ সাতক্ষীরা জেলা ক্রীড়া সংস্থার নির্বাচন আজ ॥ লড়ছে জেলা ক্লাব ঐক্য পরিষদ ও স্বাধীনতা ক্লাব ঐক্য পরিষদ ‘শেখ মুজিব: এ নেশান’স ফাদার’ বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করেছেন প্রধানমন্ত্রী সাতক্ষীরায় পল্লী বিদ্যুতের জোনাল অফিস উদ্বোধন করলেন এড, মুস্তফা লুৎফুল্লাহ এমপি সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের নেতৃবৃন্দের সাথে সৌজন্য সাক্ষাত ও শুভেচ্ছা বিনিময় করলেন শহর কাঁচা ও পাকা মাল ব্যবসায়ী সমিতির নব-নির্বাচিত সেক্রেটারী আব্দুর রহিম বাবু সামেকে করোনার উপসর্গে মৃত্যু এক শিমুল বাড়িয়ায় ঈদগাহ উন্নয়নে চেক প্রদান দেবহাটা প্রেসক্লাবের নির্বাচন ॥ মনোনয়ন পত্র বিক্রি শুরু দেবহাটা আইন শৃংখলা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত বাংলাদেশের কৃষি, শিল্প ও বিশ্ব বাণিজ্য

আসামে বন্ধ হচ্ছে সরকারি মাদ্রাসা

দৃষ্টিপাত ডেস্ক :
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ১৩ ফেব্রুয়ারী, ২০২০

এফএনএস বিদেশ : আসামে রাষ্ট্রীয় সব মাদ্রাসা ও সংস্কৃত টোল বন্ধ করে দিয়ে ছয় মাসের মধ্যে সেগুলোকে সাধারণ স্কুলে পরিণত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য সরকার। এই সিদ্ধান্তের ব্যাখ্যায় আসামের শিক্ষামন্ত্রী হিমন্ত বিশ্ব শর্মা বলেছেন, “শিশুদের ধর্ম, ধর্মগ্রন্থ ও ভাষা, যেমন আরবি, শিক্ষা দেওয়া ধর্মনিরপেক্ষ সরকারের কাজ না।” এনডিটিভি জানিয়েছে, আসামের বিজেপি নেতৃত্বাধীন সরকার ২০১৭ সালে মাদ্রাসা ও সংস্কৃত টোল বোর্ড তুলে দিয়ে বোর্ডের অধীন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোকে মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের অধিভুক্ত করেছিল; এখন তারা সেগুলোকে পুরেপুরি বন্ধ করে দেওয়ার পরিকল্পনা নিয়েছে। এ বিষয়ে শিক্ষামন্ত্রী শর্মা এনডিটিভিকে বলেন, “আসামে প্রায় ১২০০ মাদ্রাসা ও ২০০ সংস্কৃত টোল আছে, কিন্তু এগুলো পরিচালনা করার মতো স্বতন্ত্র কোনো বোর্ড নেই। এই প্রতিষ্ঠানগুলোর লোকজন ম্যাট্রিকুলেশন বা উচ্চমাধ্যমিকস্কুলের সমমানের সার্টিফিকেট পাওয়ায় অনেক সমস্যা তৈরি হচ্ছে। এ কারণেই রাজ্য সরকার সব মাদ্রাসা ও সংস্কৃত টোলকে নিয়মিত স্কুলে পরিণত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।” এর পাশাপাশি রাজ্যটিতে বিদ্যমান প্রায় দুই হাজার বেসরকারি মাদ্রাসাকে নিয়ন্ত্রণে আনতে কঠোর বিধিবিধান করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। “রাজ্য সরকার ধর্মনিরপেক্ষ সত্তা হওয়ায় এটি ধর্মীয় শিক্ষায় নিয়োজিত সংস্থাকে অর্থায়ন করতে পারে না। তবে বেসরকারি মাদ্রাসা ও সংস্কৃত টোলগুলো কার্যক্রম অব্যাহত রাখতে পারবে, কিন্তু তারা যেন একটি নিয়ন্ত্রক কাঠামো অনুযায়ী চলে তা নিশ্চিত করতে আমরা শিগগিরই নতুন একটি আইন করবো,” বলেন শিক্ষামন্ত্রী। অভিভাবকের নেওয়া সিদ্ধান্তের কারণে শিশু যেন উপযুক্ত শিক্ষা থেকে বঞ্চিত না হয়, তা নিশ্চিত করতেই এ পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে বলে জানান তিনি। তিনি আরও জানান, ধর্মীয় শিক্ষার পাশাপাশি বাধ্যতামূলক সাধারণ শিক্ষা মাদ্রাসাগুলোতে নিশ্চিত করতেও পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে।

শেয়ার

আরও খবর
© All rights reserved © 2020 dainikdristipat.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbazardristip41