1. admin@dainikdrishtipat.com : admin :
  2. driste4391@yahoo.com : Dailik Drishtipat : Dailik Drishtipat
মঙ্গলবার, ২৬ মে ২০২০, ০৯:১৬ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
শ্যামনগরে শিক্ষিকা জেসমিন নাহার এর অকাল মৃত্যু জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণে প্রধানমন্ত্রী ॥ অনির্দিষ্টকালের জন্য মানুষের আয়-রোজগারের পথ বন্ধ রাখা যাবে না হকারদের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর উপহার সামগ্রী বিতরণ আশাশুনিতে আম্পানে ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর উপহার বিতরণ করলের জেলা প্রশাসক সাতক্ষীরা জেলা পুলিশের মাঝে ঈদ উপসার বিতরণ সোমবার ঈদুল ফিতর ঢাকা থেকে পালিয়ে আসা করোনা পজিটিভ আশাশুনির নিলুফা এখন সম্পূর্ণ সুস্থ কাশিমাড়ী খোলপেটুয়া নদীর বেড়িবাঁধ ভেঙে দুই উপজেলার ১২ গ্রাম প্লাবিত, কাজের কোনো অগ্রগতি নেই! সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসনের গণবিজ্ঞপ্তি বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদকের পক্ষে ঈদ উপহার বিতরণ

সিমান্ত কালিন্দী নদীর তীব্র ভাঙ্গন এলাকা পরিদর্শন করলেন ইউএনও

দৈনিক দৃষ্টিপাত ডেস্ক ::
  • আপডেট টাইম :: বৃহস্পতিবার, ২১ মে, ২০২০
  • ৭ বার পড়া হয়েছে

মথুরেশপুর (কালিগঞ্জ) প্রতিনিধি ॥ ঘূর্ণিঝড় আম্পানের তাণ্ডবে কালিঞ্জের উপকূলীয় মথুরেশপুর ইউনিয়নের হাড়দ্দাহ ও বসন্তপুর এলাকায় ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। বুধবার রাতে তীব্র বাতাস, ভারী বৃষ্টিপাত ও উঁচু জলোচ্ছ্বাস নিয়ে উপকূলজুড়ে তাণ্ডব চালিয়েছে। কালিগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) ৫ নম্বর পোল্ডারের ২নম্বর স্লুইজ গেট সংলগ্ন ৫০০ ফুট এলাকায় বেড়িবাঁধ ঝুঁকিপূর্ণ অবস্হানে রয়েছে। খবর পেয়ে বৃহস্পতিবার সকালে নদীর ভাঙনের কবলে পড়া এলাকা স্বেচ্ছাশ্রমে মেরামতের কাজ পরিদর্শন করেছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা। এসময় তিনি নদী ভাঙ্গন রোধে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহনের আশ্বাস দেন। সরেজমিনে গেলে এলাকাবাসি জানান, কালিগঞ্জ পাউবো এর আওতাধীন ৫/২ নম্বর পোল্ডার এলাকা বসন্তপুর ও হাড়দ্দাহ পয়েন্টে সহস্রাধিক মিটার বেড়িবাঁধ বর্তমানে মারাত্মক ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে। বর্ষা মওসুম শুরু হওয়ার আগেই নদ-নদীতে জোয়ার বৃদ্ধি পেয়েছে। ঘূর্ণিঝড় আম্পানে ১০ থেকে ১৫ ফুট পর্যন্ত উঁচু জলোচ্ছ্বাসে এই দু’টি পয়েন্টে বাঁধের ভাঙ্গন আরো তীব্র আকার ধারণ করে। বুধবার রাতে নদীতে জোয়ারের পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় বেড়িবাঁধ ছাপিয়ে নোনা পানি ভিতরে ঢুকে পড়ে। পাউবো কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে কোনো প্রকার সাড়া না পেয়ে রাতেই এলাকাবাসির সাথে করোনা এক্সপার্ট টিমের সদস্যরা লোনা পানি বন্ধ করে। পরদিন সকালে বেড়িবাঁধ রক্ষার শত শত এলাকাবাসি স্বেচ্ছাশ্রমের ভিত্তিতে কাজ করে। যেকোনো মুহূর্তে ঝুঁকিপূর্ণ বেড়িবাঁধ ভেঙে ইউনিয়নের বিস্তীর্ণ এলাকা প্লাবিত হতে পারে। কিন্তু পাউবো কর্তৃপক্ষ এ এলাকায় টেকসই বেড়িবাঁধ নির্মাণে কোনো কার্যকর পদক্ষেপ নিচ্ছে না। তাছাড়া নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে কালিন্দী নদীতে অবাধে চলছে গলদা ও বাগদা চিংড়ির পোনা আহরণ। এতে ধ্বংস হচ্ছে নদী ও সামুদ্রিক বিভিন্ন প্রজাতির মাছের পোনা। জেলেরা ১টি চিংড়ি পোনার জন্য নষ্ট করছেন অনেকগুলো বিভিন্ন প্রজাতির মাছ। ফলে নদীটি দিন দিন অস্থিত্বের সংকটে পড়েছে গলদা-বাগদাসহ বিভিন্ন প্রজাতির মাছ। নষ্ট হচ্ছে জীববৈচিত্র। জেলেরা প্রকাশ্যে গলদা-বাগদা চিংড়ির পোনা আহরণ করলেও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ কোনো ব্যবস্থা নিচ্ছে না বলে অভিযোগ করেছেন স্থানীয়রা। অপর দিকে গত বছর একই স্হানে বাঁধ ভেঙে যাওয়ার উপক্রম দেখা দিলে ইউপি চেয়ারম্যানের উদ্যোগে কোন রকমে ভাঙন পয়েন্টটি মেরামত করা হয়। বছর না যেতেই আবার সেখানে ভাঙন দেখা দেয়ায় বাঁধটি ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে পড়ে। ফলে নদীভাঙন থেকে কখনোই নিষ্কৃতি পান না সিমান্ত নদী পাড়ের বাসিন্দারা। এ বিষয়ে মথুরেশপুর ইউপি চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান গাইন বলেন, ইউনিয়নের সিমান্ত নদীর বাঁধ ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে। প্রতি বছর এই ইউনিয়নের কোনো না কোনো জায়গার বাঁধ ভাঙা যেন নিয়মে পরিণত হয়েছে। তিনি নদীতে জেলেরা বাগদা-গলদা চিংড়ির রেনু সংগ্রহ বন্ধ করলে নদী ভাঙা রক্ষা করা সম্ভব বলে মনে করেন। দ্রুত টেকসই বেড়িবাঁধ নির্মাণে পাউবো কর্তৃপক্ষের কাছে অনুরোধ জানান তিনি। এবিষয়ে কালিগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ-সহকারী প্রকৌশলী তন্ময় হালদার বলেন, এলাকাবাসীর মাধ্যমে আমি জানতে পেরেছি এবং উর্ধ্বতন কতৃপক্ষকে জানিয়েছি। আশা করি দ্রুত ভাঙ্গন রোধে আমরা কাজ করতে পারবো। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোজাম্মেল হক রাসেলের নিকট নদী ভাঙ্গনেরর বিষয়টি জানতে চাইলে তিনি বলেন, নদী ভাঙনে উপজেলায় ৫টি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। নদী ভাঙন রোধে ঝুঁকিপূর্ণ বেড়িবাঁধ টেকসই করতে কার্যকর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2020 dainikdristipat.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbazardristip41