1. admin@dainikdrishtipat.com : admin :
  2. driste4391@yahoo.com : Dailik Drishtipat : Dailik Drishtipat
বৃহস্পতিবার, ০৯ জুলাই ২০২০, ০৪:৪৮ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
ত্যাগ, মানবতা, ঐক্য আর সৃষ্টিশীলতার প্রতিমুখ ॥ পরপারে খাদেম সাহেব ॥ আমাদের শোক গাঁথা ॥ আমাদের হারানোর বেদনা ঘরে ঘরে করোনা: কেউ বলছে ॥ কেউ চুপ ॥ রোগের নতুন উপসর্গ সর্দি-জ্বর ঘোনায় ভবন নির্মাণ কাজ উদ্বোধন করলেন এমপি রবি সাতক্ষীরায় করোনা আক্রান্তদের সেবা প্রদানের জন্য প্লাজমা ব্যাংক উদ্বোধন করলেন পুলিশ সুপার মোস্তাফিজুর রহমান সাতক্ষীরায় চিকিৎসক, স্বাস্থ্য কর্মী সহ আরো ৩১ জনের করোনা পজেটিভ ॥ মেডিকেলে উপসর্গ নিয়ে এক স্বাস্থ্যকর্মী মৃত্যু স্বাস্থ্যকর্মী ছেলের মৃত্যুর সংবাদ পেয়ে মায়ের মৃত্যু ট্রাকের ধাক্কায় এক ভাটা শ্রমিক নিহত দৈনিক দৃষ্টিপাত পরিবারের শোক ঘূর্ণিঝড় আম্পানে ক্ষতিগ্রস্ত গৃহহীন পরিবারে খাদ্য সহায়তা প্রদান করলেন বাবু জেলা নাগরিক অধিকার ও উন্নয়ন সমন্বয় কমিটির শোক

ঘুর্ণিঝড় আম্ফানের শক্তিকে রুখে দিলো প্রিয় সুন্দরবন ॥ বন অভ্যন্তরে জলোচ্ছ্বাসের পানি : তদন্তে কমিটি গঠন

দৃষ্টিপাত ডেস্ক :
  • Update Time : শুক্রবার, ২২ মে, ২০২০

দৃষ্টিপাত রিপোর্ট ॥ যতবারই প্রকৃতি উপকুলের উপর নিষ্ঠুর প্রদর্শন করেছে ততোবারই সুন্দরবন প্রকৃতিকে রুখে দিয়েছে। হ্যাঁ সুন্দরবন জনপদকে রক্ষা করেছে। জীবন হানীর ঘটনা হতে মানুষকে পরিত্রান দিয়েছে। গ্রামের পর গ্রাম ধ্বংসের কবল হতে এগিয়ে এসেছে। আর এ সকল ঘনঘটায় সুন্দরবন বিবর্ন হয়েছে। আহত এবং জখম হয়েছে সুন্দরবন। আমাদের মায়ের মত মা যেমন তার সন্তান কে আগলে রাখে স্নেহ মায়া মমতা আর সব ধরনের প্রতিকুলতা হতে আবেগে, আবেশে, স্বযন্তে নিজেকে ক্ষতির মুখে রেখেও সন্তানকে সবার উপরে রাখে, অনুরুপ ভাবে সুন্দরবন মা হিসেবে তার ভূ-খণ্ডকে তার প্রাণীকুল কে রক্ষা করে চলেছে। বুধবারে দেশের উপকুলের উপর দিয়ে বয়ে যাওয়া ঘূর্ণিঝড় আমফানের দানবীয় হিংস্রতা কে অনেকাংশে রুখে দিয়েছে সুন্দরবন। বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড়টি আম্ফান নাম ধারন করে বিধ্বংসী আক্রমণাত্মক ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়ে সুন্দরবনের উপর দিয়ে আছড়ে পড়ে এবং দীর্ঘ ৭/৮ ঘন্টা যাবৎ শক্তি প্রদর্শন করে, আর উন্মোদনায় ফুসে ওঠে। প্রিয় সুন্দরবন প্রথমেই আম্ফানকে প্রতিরোধ করেছে প্রতিহত করেছে আর এই কারনে আম্ফান অনেকটা শক্তিহীন হয়েছে কিন্তু দানবীয় রূপ ঠিকই প্রদর্শন করে তছনছ করেছে উপকূল সহ গোটা সাতক্ষীরাকে। সুন্দরবন যদি আম্ফানকে বাঁধা বা প্রতিরোধ না করতো তাহলে সাতক্ষীরার প্রতিটি জনপদ যেভাবে ধ্বংস হয়েছে, ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে সে অপেক্ষা বহুগুন ধ্বংসলীলায় পরিনত হত। প্রতিরোধে সুন্দরবনের অজস্র বৃক্ষলতা বিবর্ণ হয়েছে, ক্ষত হয়েছে, এখানেই শেষ নয় ঘূর্ণিঝড়ের পাশাপাশি ভয়াবহ জ্বলোচ্ছাসের নির্মমতায় সুন্দরবন বিধৌত তবে এই বিধৌত সেই বিধৌত নয় জোয়ারভাটাকে সুন্দরবনে অন্তত পাঁচ/ছয়ফুট পানি ওঠায় সুন্দরবনের অবস্থানে, অস্তিত্বে আঘাত লেগেছে। প্রকৃতির অপরূপ সৃষ্টি সৌন্দর্য এবং সম্পদের লীলা ভূমি আমাদের সুন্দরবনে জোয়ারের পানি ওঠে আবার ভাটায় নেমে যায়, কিন্তু আকস্মিক ভাবে ব্যাপক পানির অস্তিত্ব এবং তা সুবিশাল আকারের মাধ্যমে প্রবেশ সুন্দরবনকে বিশেষ ভাবে ক্ষত করেছে। সুন্দরবন কি পরিমান ক্ষতি হয়েছে তা এই মুহুর্তে বলা সম্ভব না হলেও জীব বৈচিত্রের ব্যাপক ক্ষতি, বৃক্ষলতার পড়ে যাওয়া, বন্য প্রাণীদের আবাসস্থলে ধ্বংস হওয়া, হিংস্র প্রাণী বাঘের মৃত্যুর ঘটনাও অস্বাভাবিক নয়, সৌখিন, সৌন্দর্য, আর মায়ার প্রতিক হরিনের ভাগ্যে কি ঘটেছে তা সময়ই বলে দেবে। বন ও পরিবেশ মন্ত্রণালয়ের পক্ষ হতে ঘূর্ণিঝড় আম্ফানে সুন্দরবনের কেমন ক্ষতি হয়েছে তা নিরূপনে একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। সুন্দরবন ত্রান কর্তার ভূমিকায়, রক্ষা কর্তার ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়ে নিজেকে স্বপ্রনোদিত ভাবে ভয়াবহ ক্ষতির মুখে ফেলেছে। এ যেন সেই ঐতিহাসিক কথকথা- চল আমরা মোমবাতির মত বাঁচি নিজেকে জ্বালিয়ে অন্যকে আলো দিয়ে, সুন্দরবন অপরকে আলো দিচ্ছে সত্যই তবে কোন অবস্থাতেই সুন্দরবনকে ক্ষতি হতে দেওয়া যাবে না। বিভিন্ন সূত্রে জানাগেছে সুন্দরবন অভ্যন্তরে একষট্টিটি টহল ফাঁড়ি ও ষোলটি স্টেশন জ্বলোচ্ছাসের পানিতে তলিয়ে গেছে। নিকট অতীতের আইলা, সিডর এবং বুলবুলের তান্ডবের আঘাত সুন্দরবন স্বরণীয়। সুন্দরবন বিধ্বস্থ, অতি ক্ষমতাধর আম্ফানকে মোকাবিলা করার দুর্দান্ত শক্তি এবং সামর্থ দেখিয়ে সুন্দরবন নিজেই আহত। আমাদের প্রিয় সুন্দরবনকে বাঁচাতে হবে। বারবার প্রকৃতির নিষ্ঠুর তান্ডব হতে রক্ষা করে চলা সুন্দরবনের ক্ষয়ক্ষতি অবিলম্বে ব্যবস্থা গ্রহন করতে হবে। সুন্দরববনের অভ্যন্তরে অতন্ত্রপ্রহরী হিসেবে সর্বত্র বিচরন করা রয়েলবেঙ্গল বাঘের আবাসস্থল নির্বিঘœ করতে হবে। জ্বলোচ্ছাসে বন্যপ্রানীর ধ্বংস হওয়া আবাসস্থল সুসংহত করতে হবে। জলোচ্ছাসের কারনে বন অভ্যন্তরে খাদ্যাভাব যেন দেখা না দেয় সে বিষযে পরিকল্পনা প্রনয়ন করতে হবে। আমাদের অস্তিত্ব অহংকার আর বিপদের সাথী সেই সাথে সম্পদ আর সৌন্দর্যের প্রতিক সুন্দরবন যেন অক্ষত থাকে। সুন্দরবন যেন সুন্দর থাকে সে বিষয়ে সর্বোপরি পরিকল্পনা গ্রহন করতে হবে।

শেয়ার

আরও খবর
© All rights reserved © 2020 dainikdristipat.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbazardristip41