1. admin@dainikdrishtipat.com : admin :
  2. driste4391@yahoo.com : Dailik Drishtipat : Dailik Drishtipat
বৃহস্পতিবার, ০৯ জুলাই ২০২০, ১১:১২ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
ত্যাগ, মানবতা, ঐক্য আর সৃষ্টিশীলতার প্রতিমুখ ॥ পরপারে খাদেম সাহেব ॥ আমাদের শোক গাঁথা ॥ আমাদের হারানোর বেদনা ঘরে ঘরে করোনা: কেউ বলছে ॥ কেউ চুপ ॥ রোগের নতুন উপসর্গ সর্দি-জ্বর ঘোনায় ভবন নির্মাণ কাজ উদ্বোধন করলেন এমপি রবি সাতক্ষীরায় করোনা আক্রান্তদের সেবা প্রদানের জন্য প্লাজমা ব্যাংক উদ্বোধন করলেন পুলিশ সুপার মোস্তাফিজুর রহমান সাতক্ষীরায় চিকিৎসক, স্বাস্থ্য কর্মী সহ আরো ৩১ জনের করোনা পজেটিভ ॥ মেডিকেলে উপসর্গ নিয়ে এক স্বাস্থ্যকর্মী মৃত্যু স্বাস্থ্যকর্মী ছেলের মৃত্যুর সংবাদ পেয়ে মায়ের মৃত্যু ট্রাকের ধাক্কায় এক ভাটা শ্রমিক নিহত দৈনিক দৃষ্টিপাত পরিবারের শোক ঘূর্ণিঝড় আম্পানে ক্ষতিগ্রস্ত গৃহহীন পরিবারে খাদ্য সহায়তা প্রদান করলেন বাবু জেলা নাগরিক অধিকার ও উন্নয়ন সমন্বয় কমিটির শোক

বালিথায় আগুনে পুড়ে মটর সাইকেলসহ ঘরের যাবতীয় মালামাল ভষ্মিভূত

দৃষ্টিপাত ডেস্ক :
  • Update Time : সোমবার, ২৯ জুন, ২০২০

ধুলিহর প্রতিনিধি ॥ সদর উপজেলার ফিংড়ী ইউনিয়নের বালিথা ঘোষ পাড়ায় বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিটের কারণে ঘরে রাখা মটর সাইকেলসহ যাবতীয় মালামাল পুড়ে যাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার (২৭ জুন) দিবাগত রাত্রে বালিথায় মদন মোহন ঘোষের পুত্র মটর সাইকেল চালক প্রসাদ ঘোষ (৪০) বাড়িতে। জানা গেছে, গত শনিবার ( ২৭ জুন) রাতে প্রসাদ ঘোষের বাড়ির সকল সদস্য তাদের কাজকর্ম শেষ করে ঘুমিয়ে পড়ে। রাত আনুমানিক ২টার দিকে আগুনের লেলিহান শিখা যখন চারিদিকে ছড়িয়ে পড়ে। তখন পরিবারের সদস্যদের ঘুম ভেঙ্গে যায়। তারা তড়িঘড়ি করে উঠে হাক চিৎকার শুরু করলে স্থানীয়রা আগুন নিভানোর জন্য ছুটে আসে। স্থানীয়দের চেষ্টায় কোন কাজ না হওয়ায় সাতক্ষীরার ফায়ার সার্ভিসের কর্মকর্তারা এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। ততক্ষণে ঘরে থাকা প্রসাদের আয়ের একমাত্র উৎস তার মটর সাইকেলসহ যাবতীয় মালামাল পুড়ে শেষ হয়ে যায়। রাখে আল্লাহ মারে কে? তাই ঘরে কেউ ছিলো না বলে এই যাত্রায় জীবনে বেঁচে গেল পরিবারের সদস্যরা। তবে আগুন নিভানোর চেষ্টায় প্রসাদের স্ত্রী মনিমালা ঘোষ ও পিতা মদন মোহন ঘোষ মারাত্মক আহত হলে ফায়ার সার্ভিসের গাড়িতে করে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করেন বলে প্রসাদ ঘোষ জানান। অশ্রস্বজল চোখে ও কান্নাভরা কণ্ঠে প্রসাদ ঘোষ বলেন, আমি সর্ব শান্ত হয়ে গেছি। আমি হার্ডের রোগী, আমার আয়ের একমাত্র উৎস আমার মটর সাইকেলটি পুড়ে শেষ হয়ে গেছে। তিনি আরও বলেন, বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিটের কারণে আগুন লাগতে পারে বলে ধারণা করেছেন।

শেয়ার

আরও খবর
© All rights reserved © 2020 dainikdristipat.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbazardristip41