1. admin@dainikdrishtipat.com : admin :
  2. driste4391@yahoo.com : Dailik Drishtipat : Dailik Drishtipat
বৃহস্পতিবার, ২২ অক্টোবর ২০২০, ০৩:৪৩ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
জেলা প্রশাসনের সুধী সমাবেশ ও সাংস্কৃতিক সন্ধ্যায় সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ ॥ সাতক্ষীরায় জাদুঘর স্থাপনে ইতোমধ্যে জমি অধিগ্রহণ করা হয়েছে মাধ্যমিকেও হচ্ছে না বার্ষিক পরীক্ষা কলারোয়ায় ফোর মার্ডারের ব্যবহৃত চাপাতি ও তোয়ালে উদ্ধার ॥ নিহতের ছোট ভাই রাহানুলের স্বীকারোক্তি ফলোআপ ঃ শোভনালীর চন্দ্র শেখর হত্যা মামলার আসামী মোবাশে^র আটক মুক্তিযোদ্ধা আবু নাসিম ময়নার বাড়ি ঘুরে এলেন সাংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী সখিপুরে লক্ষ টাকার ফুটবল টুর্নামেন্টের উদ্বোধন দেবহাটা উপজেলা পরিষদের কাঙ্খিত ছাদ বাগানের অগ্রযাত্রা নলতা-তারালী সড়কে ইঞ্জিনভ্যান ও মটরসাইকেল সংঘর্ষে নিহত-১ ॥ আহত-২ বসন্তপুর প্রাইমারি স্কুলের নতুন ভবনের উদ্বোধন করলেন এমপি লুৎফুল্লাহ সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রীর খুলনা শিল্পকলা একাডেমি পরিদর্শন

কলারোয়ায় কামারালীতে টমেটো ক্ষেত পরিদর্শনে ঊর্দ্ধতন কৃষি কর্মকর্তাদ্বয়

দৃষ্টিপাত ডেস্ক :
  • Update Time : শুক্রবার, ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০২০

কলারোয়া (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি ॥ টমেটো এখন বাজারে এক দামি সবজি হিসাবে পরিচিতি লাভ করেছে। অসময়ে হলে তো কথাই নেই। গ্রীষ্মকালীন টমেটো শীতের চেয়ে অন্তত চার-পাঁচ গুণ দামে বিক্রি হয় এখন। শীতেও চাষ করে ভালো লাভ করা যেতে পারে যদি আগাম চাষ করা যায়। সাতক্ষীরার কলারোয়া উপজেলার যুগিখালী ইউনিয়নের কামারালী গ্রামে ৯০জন কৃষক গ্রীষ্মকালীন নিরাপদ টমেটোর চাষ করায় শুক্রবার (২৫ সেপ্টেম্বর) সকালে কৃষি বিভাগের একটি প্রতিনিধিদল টমেটোর ক্ষেত পরিদর্শন করেছেন। কামারালীর মান্দারতলার মাঠের টমেটো চাষের ক্ষেত পরিদর্শনকালে উপস্থিত ছিলেন খুলনা কৃষি সম্প্রাসারণ অধিদপ্তর খামারবাড়ীর অতিরিক্ত পরিচালক কাজী আব্দুল মান্নান, সাতক্ষীরার কৃষি সম্প্রাসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক নুরুল ইসলাম, কলারোয়া উপজেলা কৃষি অফিসার রফিকুল ইসলাম, উপ-সহকারী কৃষি অফিসার তুষার কান্তি সরকার। সেসময় উপস্থিত ছিলেন কৃষক নুর ইসলাম, মোসলেম গাজী, বাবলু সানা, আয়ুব সানা, আব্দুর রাজ্জাক সানা, আফসার সানা প্রমুখ। টমেটো চাষী কৃষক নুর ইসলাম, মোসলেম গাজী, বাবলু সানা, আয়ুব সানা, আব্দুর রাজ্জাক সানা, আফসার সানা জানান, ‘বিঘা প্রতি লিজসহ ১লাখ ৫৫হাজার টাকা খরচ হয়েছে। চাষ প্রথম শুরু এপ্রিল মাষে আর শেষ হবে নভেম্বর মাসের শেষের দিকে। ফলন উৎপাদন হবে বিঘা প্রতি ৩লাখ ৪৩ হাজার টাকা। খরচ বাদে ১লাখ ৮৮ হাজার টাকা লাভ হবে। তবে আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে সেটা সম্ভব হবে।’তারা আরো জানান, ‘সপ্তাহে তিন দিন পাকা টেমেটো ক্ষেত থেকে উঠানো হয়। প্রতিদিন ৯০ থেকে ১০০মণ টমেটো ওঠানো হচ্ছে। এই টমেটো ঢাকা থেকে সরাসরি ব্যাপারী এসে ক্ষেত থেকে বাজার দর অনুযায়ী কিনে নিয়ে যাচ্ছে। বর্তমানে পাইকারী বাজারে প্রতিকেজি টমেটো ৬০টাকায় ব্যাপারীরা কিনছে।’ কৃষকরা আরো বলেন, ‘সরকার ও ব্যাংক থেকে বিনা সুদে ঋণ পেলে কৃষকরা ভাল করে টমোটোর চাষ করে লাভবান হতে পারতো।উল্লেখ্য, নিরাপদ গ্রীষ্মকালীন টমেটো ক্ষেত ছাড়াও কৃষি কর্মকর্তারা বাটরা সজবি ক্ষেত ও পৌর সদরের গোপিনাথপুরের পানি ফল উৎপাদন এলাকা পরিদর্শন করেন।

শেয়ার

আরও খবর
© All rights reserved © 2020 dainikdristipat.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbazardristip41