1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : Dailik Drishtipat : Dailik Drishtipat
মঙ্গলবার, ২২ জুন ২০২১, ০৫:৪৫ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
প্রতিবছরই নেয়া হয় বিভিন্ন প্রকল্প \ থামছে না নদী ভাঙন \ নিঃস্ব হচ্ছে মানুষ আজ ঢালাইয়ের মাধ্যমে দৃশ্যমান হচ্ছে সাতক্ষীরার দুই আদালতের যাতায়াত সড়ক \ সর্বশেষ প্রস্তুতি প্রত্যক্ষ করলেন সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ শেখ মফিজুর রহমান ষড়যন্ত্রের কবলে পাট \ বাড়তি দাম পাওয়ার পরও চাষে আগ্রহ কম \ আবাদ কমলেও পাট পরিচর্যায় ব্যস্ত কৃষক সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের পক্ষ থেকে বিদায়ী জেলা প্রশাসককে সংবর্ধণা প্রদান কালিগঞ্জের তারালী বিদ্যুৎস্পৃষ্টে নিহত ২ নির্বাচনী সহিংসতায় ২ মৃত্যু: প্রার্থীদের উপরেই দায় চাপালো ইসি শ্রীপুর কুড়িকাহুনিয়ার ভাঙ্গন পয়েন্ট আটকানো গেলেও \ অন্য দুটি পয়েন্টে জোয়ার ভাটায় নিমজ্জিত প্রতাপনগর বিদ্যালয় গুলোর ব্যবস্থাপনা প্রতিবন্ধী বান্ধব হতে হবে ঃ জেলা প্রাথঃ শিক্ষা অফিসার বেজা’র চেয়ারম্যান পদে সাবেক সচিব ইউসুফ হারুন বুধহাটায় সড়কের উপর পড়ে থাকা বটবৃক্ষ ৩ দিনেও সরানো হয়নি

রাজা প্রতাপাদিত্যের স্মৃতি বিজড়িত জাহাজ ঘাটা নৌদূর্গ অস্তিত্ব সংকটের পথে

দৃষ্টিপাত ডেস্ক :
  • Update Time : মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর, ২০২০

আবু ইদ্রিস ঃ ইতিহাস, ঐতিহ্য,সংকৃতি যে কোন দেশর তথ্য ভান্ডার কে সমৃদ্ধ করে।আর এ তথ্যের অনুসন্ধানে জ্ঞান পিপাসু মানুষের ছুটে চলা অবিরাম।তাই ইতিহাসবিদের গুরুত্ব সমাজ ,রাষ্ট্র ,বিশ্বে সমধিক যে কোন বিষয় থেকে।বাংলার ইতিহাসের পাতায় একটি স¥রনীয় নাম রাজা প্রতাপাদিত্য।রাজা প্রতাপাদিত্য মুঘলদের হাত থেকে নিজ সাম্রাজ্য রক্ষা করতে শক্তি শালী নৌবাহিনী গড়ে তোলেন। নৌবাহিনীকে সক্রিয় রাখতে তিনি শ্যামনগর উপজেলা অদুরে খানপুর গ্রামে জাহাজ ঘাটা নৌ-দূর্গ স্থাপন করেন।সুবিস্তৃত যমুনা ও ইছামতি নদী জাহাজচলাচলের জন্য বেশ উপযুক্ত হওয়ায় এ নদী দ্বয়ের পূর্বপাড়ে জাহাজ ঘাটা স্থাপন করা হয়। জাহাজ নির্মান ও মেরা মতের জন্য এ ঘাট ব্যবহার করা হত।এখানে ছিল রাজা প্রতাপাদিত্যের প্রধান সামরিক কার্য্যালয়। এটি পোতাশ্রয় হিসাবেও ব্যবহৃত হত।জাহাজ ঘাটা নৌদূর্গের একটি মাত্র ভবন । উত্তর -দক্ষিনে অবস্থিত ছয়(৬)কক্ষ বিশিষ্ট ভবনটি বিশ্রামাগার,অফিস,মালখানা হিসাবে ব্যবহৃত হত।ভবনটির একপাশে নেই কোন জানালা।ভবনটি রুচিপূর্ন নির্মান স্থাপত্য শিল্প অসাধারন।এটি অতীত স্থাপত্য শিল্পের স্মৃতি বহন করে।ভবনটির ভিতরে আলোক স্বল্পতা কাটাতে ছাদে বড় বড় দুটি গোলাকার স্বচ্ছ কাচ বিশিষ্ট ছিদ্র ছিল।এক সময়ের জমকাল এ জাহাজ ঘাটা সময়ের ব্যবধানে যেন বাধ্যকে পৌছায়।শুধু সময়ের ব্যপার মাত্র লোক চক্ষুর অন্তরালে অদৃশ্য হবার।সময়ের ব্যবধানে সুবিস্তৃত যমুন-ইছামতি নদী গতি পথ হারাতে থাকে।অসতিত্ব হারান নদী টি বর্তমানে কাগজে কলমে নদীর অস্তিত্ব নেই বললেও ভুল হবেনা।।প্রায় অদৃশ্য যমুনা নদী এখন শুধু ইতিহাস।যমুনা নদীর গতিপথ হারান এবং রাজাপ্রতাপদিত্যের শাসন কালের অবসান । তার এ স্মৃতিবিজড়িত এ ভবন ক্রমশ অস্তিত্ব সংকটের দিকে এগুচ্ছে। সংরক্ষনের অভাব,লবনাক্ত জলবায়ুর প্রভাবে ভবনটি ক্ষয়ে ক্ষয়ে পড়ছে।ষোল শতকের শেষের দিকে নির্মান (শ্যামনগর উপজেলার খানপুর গ্রাম) হওয়া এ জাহাজ ঘাটা নৌদূর্গ ভবন টি আমরা যারা দেখছি অতীত স্মৃতি বিজড়িত ও স্থাপথ্যশিল্প আমাদের হৃদয় নাড়িয়ে দেয় ।আমাদর পরবর্তি প্রজন্মও বিষয়টি সম্পর্কে জানুক,দেখুক এমন প্রত্যশা সুধীজনদের।অতীত স্থাপত্যশিল্পের ¯মৃতি বিজড়িত ভবনটি কালের স্বাক্ষী হয়ে থাকুক।তাই রাজা প্রতাপাদিত্যের স্মৃতি বিজড়িত জাহাজ ঘাটা নৌদূর্গ অস্তিত্ব সংকটের পথ থেকে ফেরাতে সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের প্রয়োজনীয় সকল ব্যবস্থা গ্রহন করা আবশ্যক এমন আশা সুশিল সমাজের।

শেয়ার

আরও খবর
© All rights reserved © 2020 dainikdristipat.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbazardristip41