1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : Dailik Drishtipat : Dailik Drishtipat
বৃহস্পতিবার, ১৫ এপ্রিল ২০২১, ১০:৩১ অপরাহ্ন

ধুলিহরে কলেজ শিক্ষার্থীর আত্মহত্যা

দৃষ্টিপাত ডেস্ক :
  • Update Time : শনিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী, ২০২১

ধুলিহর প্রতিনিধি \ সদর উপজেলার ধুলিহর ইউনিয়নের তেঁতুলডাঙ্গা গ্রামের কলেজ শিক্ষার্থী নবমিতা মন্ডল ইং- শুক্রবার দিবাগত গভীর রাতে পরিবারের চোখ ফাঁকি দিয়ে ঘরের আড়ার সাথে গলাই ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যার ঘটনা ঘটেছে। জানা গেছে, তেঁতুলডাঙ্গা গ্রামে স্বরজিত মন্ডলের কন্যা সাতক্ষীরা সরকারী মহিলা কলেজের এইচএসসি ১ম বর্ষের ছাত্রী নবমিতা মন্ডল (২০)এর সাথে কয়রা থানার শ্রীহমিতলা গ্রামের হিরময় বর্মার পুত্র পরিমল বর্মার সাথে কিছু দিন আগে কন্যার পরিবারের লোকজন কোট রেজিস্ট্রি করে বিয়ে দেন। আর এই নববধূকে সাজ সজ্জা করে শ্বশুর বাড়ির লোকজন আগামী ১ মার্চ নিয়ে যাওয়ার কথা। কিন্তু তার আগে নববধূ নবমিতা মন্ডল পরিবারের উপর অভিমান করে শুক্রবার গভীর রাতে সকলের অগোচরে ঘরের আড়ার সাথে ওড়না পেঁচিয়ে নিজে আত্মহত্যার পথ বেচে নিল। এ ব্যাপারে স্বামী পরিমল বর্মা জানান, বিয়ের পর থেকে সে আমার সাথে কোন যোগাযোগ করতো না। আমি মোবাইলে ম্যাসেজ বা রিং দিলে কোন উত্তর দিতো না। আমাকে এড়িয়ে চলতো। এ ব্যাপারে ব্রহ্মরাজপুর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ শরিয়াতুল­াহ জানান, তার সাথে কারও প্রেমের সম্পর্কে ছিলো বলে মনে হয়। কেননা নবমিতা মন্ডলের ঘর থেকে তার হাতের লেখা কয়েক খন্ডের একটি চিরকুট ইটের ফাঁকে পাওয়া গেছে। একাধিক টুকরো থাকার কারণে সবটুকু ভাল ভাবে বুঝা না গেলোও রুদ্র নামে একটি কথা খুবই স্পষ্টভাবে লেখা ছিলো। আসলে কে এই রুদ্র এমন প্রশ্নের জবাবে তার পরবিারের লোকজন কোন উত্তর দিতে পারেনি। স্বরজিত মন্ডল ও তার স্ত্রী কন্যার মৃত্যুর ব্যাপারে কোন কারণ বলতে পারেনি। এ ঘটনায় সাতক্ষীরা সদর থানার ওসি আসাদ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন । এসময় তার সাথে উপস্থিত ছিলেন ধুলিহর ইউপি চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান বাবু, ইউপি সদস্য বিপ্লব বিশ্বাস, আনিছুর রহমান, ইউপি সদস্যা আঞ্জুরা বেগম প্রমুখ। পরিবারের পক্ষ থেকে কোন অভিযোগ না থাকায় লাশ দাহ করার অনুমতি দেওয়া হয় বলে থানা সুত্রে জানা যায়।

শেয়ার

আরও খবর
© All rights reserved © 2020 dainikdristipat.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbazardristip41