1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : Dailik Drishtipat : Dailik Drishtipat
বুধবার, ১৪ এপ্রিল ২০২১, ০১:০৯ অপরাহ্ন

কেশবপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় ব্যাংক কর্মকতা নিহত

দৃষ্টিপাত ডেস্ক :
  • Update Time : বুধবার, ২৪ মার্চ, ২০২১

একে সোহাগ কেশবপুর যশোর থেকে \ কেশবপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় মোটরসাইকেল চালক ইসলামী ব্যাংক এজেন্ট ব্যাংকিং সাগরদাড়ী শাখার ইনচার্জ মনিরুজ্জামান (৩৫) নামে এক ব্যাংকার মারা গেছেন। তিনি উপজেলার ফতেপুর গ্রামের মৃত রজব আলী খাঁনের ছেলে। বুধবার বিকেলে কেশবপুর-ত্রিমোহিনী সড়কের ভোগতী নামক স্থানে মোটরসাইকেল ও কাভার্ড ভ্যানের মুখোমুখি সংঘর্ষে তিনি মারা যান। দূর্ঘটনার সময় তার সঙ্গে থাকা অপর আরোহী একই উপজেলার কাস্তা গ্রামের শামসুর রহমান দফাদার গুরুতর আহত হয়েছেন। তাকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। কাভার্ড ভ্যান ও চালককে আটক করেছে কেশবপুর থানা পুলিশ। মোটরসাইকেলটি পুলিশের হেফাজাতে রয়েছে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, কেশবপুর-ত্রিমোহিনী সড়কের ভোগতী খাদিজাতুল কোবরা মাদ্রাসার পাশে একটি গাছ সড়কের উপর ঝুকে থাকায় ত্রিমোহিনীর দিক থেকে আসা কাভার্ড ভ্যানটি ওই গাছে ধাক্কা লেগে কেশবপুর থেকে আসা মোটরসাইকেলের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষের এ দুর্ঘটনা ঘটে। স্থানীয়রা উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নিকট উক্ত গাছটি অপসারণের দাবি জানিয়েছেন। নিহত মনিরুজ্জামানের ভাই তরিকুল ইসলাম মোবাইল ফোনে দৃষ্টিপাতকে জানান, মনিরুজ্জামান সিঙ্গাপুর ভিত্তিক কোম্পানীর জাহাজের ইলিক্ট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ার ছিল। গত বছর আগস্ট মাসে ছুটিতে বাড়ি এসে করোনার কারণে আর যেতে পারেনি। বর্তমান ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেডের এজেন্ট কেশবপুর সাগরদাড়ী শাখার ইনচার্জ হিসেবে কর্মরত ছিলেন। কেশবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপে¬ক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার আহসানুল মিজান রুমী বলেন, মনিরুজ্জামানকে মুমূর্ষ অবস্থায় হাসপাতালে আনা হলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় জরুরী বিভাগেই মারা যান। আহত শামসুর রহমানের অবস্থা খুবই আশঙ্কাজনক প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে উন্নত চিকিৎসার জন্য স্বজনরা খুলনায় নিয়ে গেছেন। এ ব্যাপারে কেশবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) জসীম উদ্দীন জানান, কাভার্ড ভ্যান ও চালককে আটক করা হয়েছে। মোটরসাইকেলটি পুলিশের হেফাজাতে আছে।

শেয়ার

আরও খবর
© All rights reserved © 2020 dainikdristipat.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbazardristip41