1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : Dailik Drishtipat : Dailik Drishtipat
বুধবার, ১৪ এপ্রিল ২০২১, ০৮:৫৭ পূর্বাহ্ন

আশাশুনির প্লাবন কবলিত মানুষ চরম ভোগান্তিতে

দৃষ্টিপাত ডেস্ক :
  • Update Time : বুধবার, ৭ এপ্রিল, ২০২১

এমএম নুর আলম \ আশাশুনি সদর ইউনিয়নের বেড়ী বাঁধ ভেঙ্গে প্লাবিত মানুষের দুঃখ-দুর্দশা প্রকাশ্যে না আসলেও ভিতরে ভিতরে চরম বিপর্যস্ততা অসহায় পরিবারগুলোকে কুরে কুরে খাচ্ছে। দীর্ঘ একটি বছর তার জীবন থেকে খসে গেলেও কষ্টকর সাম্প্রতিক অতীত, বর্তমান ও ভবিষ্যৎ তাদেরকে অন্ধকারাচ্ছন্নতার দিকে ঠেলে দিচ্ছে। সদর ইউনিয়নের মানুষকে দীর্ঘদিন ধরে প্রাকৃতিক দুর্যোগ আষ্টেপিষ্টে আকড়ে ধরে আছে। একের পর প্রাকৃতিক দুর্যোগ, জলোচ্ছ¡াস, সাইক্লোন পাউবো’র বেড়ী বাঁধ ভেঙ্গে এলাকাকে তছনছ করে দিয়েছে। অসংখ্য মানুষের ভিটে বাড়ি, চাষের জমি ও মৎস্য ঘের নদী গর্ভে বিলীন করে দিয়েছে। হাজার হাজার একর জমি নদীর কাছে নতি স্বীকার করে ছেড়ে দিয়ে ভ‚মিহীন, সম্বল হারা কিংবা চাষের জমি হারা হয়ে অনেকে ভবিষ্যৎকে সংকুচিত করতে বাধ্য হয়েছেন। এমনি পরিনতির মধ্যে থাকা মানুষ যখন নিজেদেরকে গুছিয়ে নিতে নতুন করে ভাবতে শুরু করেছিল। তখন এক বছর আগে ২০২০ সালের ২০ মে ভয়ঙ্কর সাইক্লোব আম্ফান আশাশুনিতে লন্ডভন্ড করে দিয়েছে। দীর্ঘ ৯ মাসেও ভেঙ্গে যাওয়া বাঁধ নির্মান করা সম্ভব হয়নি। রিং বাধ নির্মান করে অনেককে ভাঙ্গনের মধ্যে রেখে দিয়ে বৃহত্তর জনগোষ্ঠিতে ঠেকানো হয়। কিন্তু গত ৩০ মার্চ আবারও প্লাবনের শিকার হয় গোটা এলাকা। দীর্ঘ ৯ মাসে অনেকে ঘরবাড়ি গুছিয়ে নিয়ে, নতুন করে চাষাবাদ, মৎস্য চাষে সর্বস্ব বিনিয়োগ কিংবা ঋণ নিয়ে বিনিয়োগ করেন। কিন্তু বিধি বাম, তাদের সবকিছু আবারও নদীর জলে ভেসে গেল। ঘরবাড়ি ও অন্যান্য ক্ষয়ক্ষতির সাথে সদর ইউনিয়নের ৩৬০ হেক্টর জমির ৩১৫টি মৎস্য ঘের ভেসে গেছে। ফলে ইউনিয়নের মানুষের গায়ে সাদা কাপড়, গতানুগতিক চাল চলন দেখা গেলেও ভিতরে ভিতরে ঋণের জালে দেউলিয়া হতে বসেছে বললেও ভুল হবেনা।

শেয়ার

আরও খবর
© All rights reserved © 2020 dainikdristipat.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbazardristip41