1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : Dailik Drishtipat : Dailik Drishtipat
বুধবার, ১২ মে ২০২১, ০২:৫০ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
মানুষের ঈদ উৎসব \ উচ্চ করোনা সংক্রমণের শঙ্কা ঘুর্ণিঝড় আম্ফানে ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে খাদ্য সামগ্রি বিতরণ সাতক্ষীরার বাজার গুলোতে তালের শাঁসের উপস্থিতি \ তপ্ত শরীর তৃপ্তি আর স্বাদে অদ্বিতীয় সাতক্ষীরায় বৈশাখের টানা বৃষ্টিতে জনজীবন বিপর্যস্ত \ শহর গামী মানুষের দূর্ভোগ চরমে আজ চাঁদ দেখা গেলে কাল ঈদ আমার মা আমাদের মা -ইয়াসমিন নাহার, সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সাতক্ষীরা। সৌদি আরবে চাঁদ দেখা যায়নি, ঈদ বৃহস্পতিবার দেবহাটার সুশিলগাতী আম বাগানে মহিলার লাশ সাতক্ষীরা জেলা পরিষদ মহামারী ও দূর্যোগকালীন সময়ে মানবিক সহায়তা নিয়ে মানুষের পাশ্বে দাড়ায় আলহাজ্ব নজরুল ইসলাম সাতক্ষীরা স্বাস্থ্য বিভাগের উদ্যোগে জলবায়ূ পরিবর্তন সড়ক দূর্ঘটনা প্রতিরোধ ও নিরাপদ খাদ্য বিষয়ক কর্মশালা

সবরমতীর উপাখ্যান

দৃষ্টিপাত ডেস্ক :
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ১৫ এপ্রিল, ২০২১

শেখ মফিজুর রহমান, সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ সাতক্ষীরা
আমি আজ তোমাকে মুক্ত করে দিলাম!
কথা দিচ্ছি তোমাকে আয়েশা নামের
কোন মেয়েই আর কখনো বিরক্ত করবে না।
তুমি রাত-দিন চিন্তা করবে না
কেন এই মেয়ের সাথে বিয়ে হলো।
বিয়ের পবিত্র বন্ধন তােমার
আর কখনো শৃঙ্খল মনে হবে না।
তোমাকে আজ মুক্ত করে দিলাম।
বিয়ের পর থেকে তুমি শুধুই
আর্থিক স্বাচ্ছন্দ্য চেয়েছো
আমাকে দিয়ে লাভবান হতে চেয়েছো।
তুমি, তোমার পরিবার সবাই মিলে
আমাকে মানসিকভাবে, শারীরিকভাবে
কষ্টের উপর কষ্ট দিয়েছো।
অভিমানী মন আমার মেনে নেয় নি
তোমাদের এই নিগ্রহ নির্যাতন।
তাই তো বিদ্রোহী হয়েছি,
আইনের আদালতের আশ্রয় নিয়েছি।
কিন্তু সত্যি বলতে কি জানো
কোথাও কোন শান্তি পাই নি।
আজ আমি বড় ক্লান্ত
আমি আর শান্তির খোঁজে ছুটতে চাই না।
ধীরে বয়ে চলা সবরমতী নদীর বুকে
চির শান্তির ঘুম দিতে চাই।
তোমার ভালোবাসা চেয়েছিলাম
লড়তে চাই নি, তাই
তোমাকে মুক্ত করে দিলাম
বাবা, কি আর হবে মামলা করে?
সবার কপালে কি ভালোবাসা জোটে?
আমাকে নিয়ে ভেব না,
মনে করো আমার জীবনের পরিসমাপ্তি
এখানেই, নদীর শান্ত সমাধিতে।
একটা কথা রাখবে, বাবা?
পারলে মামলাটা তুলে নিয়ো।
যাকে হৃদয়ের বন্ধনে বাঁধতে পারি নি
কি হবে তাকে আইনের বাঁধনে বেঁধে?
মায়ের সাথে কি আর কথা বলবো?
তাঁকে বলো আল­াহর সাথে মিলিত হতে যাচ্ছি
দোয়া করতে বলো নিরন্তর।
আজ আমার মন বাতাসের মত হাল্কা
পৃথিবীর সব বন্ধন হতে
নিজেকে মুক্ত করে
অন্যকে মুক্তি দিয়ে
স্বেচ্ছায় চলে যাচ্ছি বহু দূরে
সত্যি বলছি, কোন আফসোস নেই
বিদায় পৃথিবী, বিদায় অধরা ভালোবাসা
সবরমতী নদী আমার
বিনা দ্বিধায় গ্রহণ করাে আমায়….
কবিতাটা লিখেছি সুদূর ভারতের
আহমেদাবাদের আয়েশা বানুকে নিয়ে।
মনের কষ্টে যে সবরমতী নদীর বুকে
শেষ আশ্রয় খুঁজে নিয়েছে।
আত্মহনন কোন সমাধান নয় জানি
কিন্তু এই মেয়েটির সাবলীলতা
আর তার বন্ধন হতে জীবনসঙ্গীকে
মুক্ত করে দেয়ার যে অদম্য প্রয়াস
ব্যক্ত করেছে সে বারংবার,
তা মুগ্ধ করেছে আমায়।
ভালোবেসে বাঁধতে পারে পুরুষ
কিন্তু মুক্ত করতে পারে- শুধুই
নারী হৃদয়।
পন্থা হিসেবে আত্মহত্যা
সর্বাবস্থায় পরিত্যাজ্য
কিন্তু মৃত্যুর মুখে দাঁড়িয়ে এই
সাহসী উচ্চারণ এটাও কি
প্রবাহমান জীবনধারার প্রতি
বিদ্রোহ নয়? অঙ্গুলি নিক্ষেপ কি করে না
তথাকথিত সমাজ ব্যবস্থার প্রতি?
সম্পর্কের অসারতার প্রতি?
প্রশ্ন থাকলো আমার;
জীবনের টানা পোড়নে জ্বলতে থাকা
কোন আয়েশাকে পেলে উত্তরটা দিয়ে দেবেন…
(বিঃদ্রঃ একটি সত্য ঘটনা অবলম্বনে…।
সূত্রঃ- ভারতের গুজরাটের সবরমতী নদীতে ২৭ ফেব্র“য়ারি ২০২১ সালে আত্মহত্যার আগে আয়েশা বানুর নিজে করা ভিডিও ফুটেজ )

শেয়ার

আরও খবর
© All rights reserved © 2020 dainikdristipat.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbazardristip41