1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : Dailik Drishtipat : Dailik Drishtipat
বুধবার, ১২ মে ২০২১, ০৩:৪২ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
মানুষের ঈদ উৎসব \ উচ্চ করোনা সংক্রমণের শঙ্কা ঘুর্ণিঝড় আম্ফানে ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে খাদ্য সামগ্রি বিতরণ সাতক্ষীরার বাজার গুলোতে তালের শাঁসের উপস্থিতি \ তপ্ত শরীর তৃপ্তি আর স্বাদে অদ্বিতীয় সাতক্ষীরায় বৈশাখের টানা বৃষ্টিতে জনজীবন বিপর্যস্ত \ শহর গামী মানুষের দূর্ভোগ চরমে আজ চাঁদ দেখা গেলে কাল ঈদ আমার মা আমাদের মা -ইয়াসমিন নাহার, সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সাতক্ষীরা। সৌদি আরবে চাঁদ দেখা যায়নি, ঈদ বৃহস্পতিবার দেবহাটার সুশিলগাতী আম বাগানে মহিলার লাশ সাতক্ষীরা জেলা পরিষদ মহামারী ও দূর্যোগকালীন সময়ে মানবিক সহায়তা নিয়ে মানুষের পাশ্বে দাড়ায় আলহাজ্ব নজরুল ইসলাম সাতক্ষীরা স্বাস্থ্য বিভাগের উদ্যোগে জলবায়ূ পরিবর্তন সড়ক দূর্ঘটনা প্রতিরোধ ও নিরাপদ খাদ্য বিষয়ক কর্মশালা

মেসির জোড়া গোলে বার্সার ঘাম ঝরানো জয়

দৃষ্টিপাত ডেস্ক :
  • Update Time : সোমবার, ৩ মে, ২০২১

এফএনএস স্পোর্টস: ভালেন্সিয়ার মাঠে নামলেই কী যেন হয় বার্সেলোনার। বিপদে পড়তে বসেছিল এবারও। রোমাঞ্চ ছড়ানো ম্যাচে দলকে পথ দেখালেন লিওনেল মেসি। দারুণ জয়ে শিরোপা লড়াইয়ে ভালোমতোই টিকে রইলো রোনাল্ড কুমানের দল। মেস্তায়া স্টেডিয়ামে রোববার রাতে লা লিগার ম্যাচে ৩-২ গোলে জিতেছে বার্সেলোনা। পাঁচটি গোলই হয় দ্বিতীয়ার্ধে। গাব্রিয়েল পাউলিস্তার গোলে পিছিয়ে পড়ে সফরকারীরা। দুর্দান্তভাবে ঘুরে দাঁড়িয়ে ১২ মিনিটে তিন গোল করে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নেয় তারা। শেষ দিকে কার্লোস সলের ব্যবধান কমালেও এবার আর বার্সেলোনাকে আটকাতে পারেনি তারা। আগের দিন আতলেতিকো মাদ্রিদ ও রিয়াল মাদ্রিদ নিজেদের ম্যাচে জয় পাওয়ায় ব্যবধানটা বেড়ে গিয়েছিল। এক ম্যাচ পর জয়ে ফিরে সেটা আবার আগের জায়গায় নিয়ে এলেন মেসিরা। ৩৪ ম্যাচে আতলেতিকোর পয়েন্ট ৭৬। রিয়ালের সমান ৭৪ পয়েন্ট নিয়ে মুখোমুখি লড়াইয়ে পিছিয়ে তৃতীয় স্থানে বার্সেলোনা। এক ম্যাচ কম খেলা সেভিয়ার পয়েন্ট ৭০। লিগে ভালেন্সিয়ার মাঠে আগের তিন ম্যাচে কোনো জয় ছিল না কাতালান ক্লাবটির; হেরেছিল একটি, দুটি ড্র। সব মিলিয়ে ভালেন্সিয়ার বিপক্ষে আগের ছয় ম্যাচে মাত্র একটিতে জিতেছিল বার্সেলোনা। কঠিন চ্যালেঞ্জে বার্সেলোনার শুরুটা হতো পারতো দারুণ। কিন্তু ফ্রেংকি ডি ইয়ংয়ের ছোট পাস ডি-বক্সে ফাঁকায় পেয়ে লক্ষ্যভ্রষ্ট শট নেন তরুণ মিডফিল্ডার পেদ্রি। ১০ মিনিট পর মেসির দারুণ ফ্রি কিকে ফ্লিক করেন রোনালদ আরাহো, বল যায় গোলরক্ষক বরাবর। ধীরে ধীরে গুছিয়ে ওঠা ভালেন্সিয়া ২৬তম মিনিটে প্রথম প্রতিপক্ষ গোলরক্ষকের পরীক্ষা নেয়। ডি-বক্সের বাইরে থেকে মিডফিল্ডার উরোস রাসিচের নিচু শট যদিও মার্ক-আন্ড্রে টের স্টেগেনকে তেমন ভাবাতে পারেনি। পাঁচ মিনিট পর মেসির ফ্রি কিক ক্রসবারের একটু ওপর দিয়ে বাইরে যায়। দ্বিতীয়ার্ধের চতুর্থ মিনিটে দারুণ এক প্রতি-আক্রমণে ‘ওয়ান-অন-ওয়ানে’ গোলরক্ষক বরাবর শট নিয়ে হতাশ করেন গনসালো গেদেস। কর্নারের বিনিময়ে ঠেকান টের স্টেগেন। ওই কর্নার থেকেই এগিয়ে যায় ভালেন্সিয়া। সলেরের দূরের পোস্টে নেওয়া কর্নারে পেছন থেকে বিনা বাধায় ছুটে গিয়ে হেডে বল ফাঁকা জালে পাঠান ব্রাজিলিয়ান ডিফেন্ডার পাউলিস্তা। রক্ষণভাগের পাশাপাশি পোস্ট ছেড়ে যাওয়া টের স্টেগেনের দায় আছে যথেষ্ট। সাত মিনিট পর এক ঘটনাবহুল গোলে সমতা টানেন মেসি। ভালেন্সিয়ার ডি-বক্সে ডিফেন্ডার তনি লাতো ইচ্ছাকৃতভাবে হাত দিয়ে মেসির ক্রস ঠেকানোয় পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। বার্সেলোনা অধিনায়কের দুর্বল স্পট কিক অবশ্য ঠেকিয়ে দেন ইয়াসপের সিলেসেন। আলগা বল পেয়ে পেদ্রির নেওয়া শট গোললাইনে প্রতিহত হয়। এরপরও বল ক্লিয়ার হয়নি, ফাঁকায় বল পেয়ে জোরালো শটে স্কোরলাইন ১-১ করেন মেসি। ৬৩তম মিনিটে এগিয়ে যায় তিন দিন আগে গ্রানাদার বিপক্ষে ঘরের মাঠে হারা বার্সেলোনা। জর্দি আলবার ক্রসে ডি ইয়ংয়ের হেড রুখে দিয়েছিলেন সিলেসেন; কিন্তু বিপদমুক্ত করতে পারেননি সাবেক বার্সেলোনা গোলরক্ষক। ছুটে গিয়ে বিনা বাধায় লক্ষ্যভেদ করেন গ্রিজমান। বর্ণাঢ্য ক্যারিয়ারে চোখ ধাঁধানো সব ফ্রি কিকে অনেকবার প্রতিপক্ষ গোলরক্ষককে পরাস্ত করেছেন মেসি। ৬৯তম মিনিটে দেখা মেলে আরেকটির। প্রায় ২০ গজ দূর থেকে তার বাঁকানো শটে বল কাছের পোস্টের ভেতরের দিকে লেগে জালে জড়ায়। এবারের লিগে এই নিয়ে ২৮ গোল করলেন রেকর্ড সাতটি পিচিচি ট্রফি জয়ী মেসি। ৭ গোল কম নিয়ে তালিকার দুই নম্বরে করিম বেনজেমা। এরপর অনেকটা সময় একটানা চাপ ধরে রাখে বার্সেলোনা। এর মাঝে আচমকা ব্যবধান কমায় ভালেন্সিয়া। ৮৩তম মিনিটে প্রায় ৩৫ গজ দূর থেকে হঠাৎ বুলেট গতির শটে গোলটি করেন সলের। এই গোলে নাটকীয় শেষের সম্ভাবনা জাগলেও বাকি সময়ে তেমন কিছু করতে পারেনি ভালেন্সিয়া। ম্যাচ শেষের বাঁশিতে যেন স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলে বার্সেলোনা। আগের ম্যাচে লাল কার্ড দেখায় এই ম্যাচে ডাগ আউটে ছিলেন না কুমান। আগামী শনিবার পরের রাউন্ডে আতলেতিকোর বিপক্ষে ঘরের মাঠেও তাকে পাবে না বার্সেলোনা। আরেকটি কঠিন লড়াই কোচকে ছাড়াই পাড়ি দিতে হবে তাদের। পরদিন মুখোমুখি হবে শিরোপা লড়াইয়ে থাকা অন্য দুই দল রিয়াল ও সেভিয়া।

শেয়ার

আরও খবর
© All rights reserved © 2020 dainikdristipat.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbazardristip41