1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : Dailik Drishtipat : Dailik Drishtipat
মঙ্গলবার, ২২ জুন ২০২১, ০১:৪৮ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
প্রতিবছরই নেয়া হয় বিভিন্ন প্রকল্প \ থামছে না নদী ভাঙন \ নিঃস্ব হচ্ছে মানুষ আজ ঢালাইয়ের মাধ্যমে দৃশ্যমান হচ্ছে সাতক্ষীরার দুই আদালতের যাতায়াত সড়ক \ সর্বশেষ প্রস্তুতি প্রত্যক্ষ করলেন সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ শেখ মফিজুর রহমান ষড়যন্ত্রের কবলে পাট \ বাড়তি দাম পাওয়ার পরও চাষে আগ্রহ কম \ আবাদ কমলেও পাট পরিচর্যায় ব্যস্ত কৃষক সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের পক্ষ থেকে বিদায়ী জেলা প্রশাসককে সংবর্ধণা প্রদান কালিগঞ্জের তারালী বিদ্যুৎস্পৃষ্টে নিহত ২ নির্বাচনী সহিংসতায় ২ মৃত্যু: প্রার্থীদের উপরেই দায় চাপালো ইসি শ্রীপুর কুড়িকাহুনিয়ার ভাঙ্গন পয়েন্ট আটকানো গেলেও \ অন্য দুটি পয়েন্টে জোয়ার ভাটায় নিমজ্জিত প্রতাপনগর বিদ্যালয় গুলোর ব্যবস্থাপনা প্রতিবন্ধী বান্ধব হতে হবে ঃ জেলা প্রাথঃ শিক্ষা অফিসার বেজা’র চেয়ারম্যান পদে সাবেক সচিব ইউসুফ হারুন বুধহাটায় সড়কের উপর পড়ে থাকা বটবৃক্ষ ৩ দিনেও সরানো হয়নি

মাকে মনে পড়ে

শেখ মফিজুর রহমান, সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ, সাতক্ষীরা
  • Update Time : সোমবার, ১০ মে, ২০২১

তোমার মতো এতো অমসৃণ হাত
আমি আর দেখি নি।
নারী হাত কোমল, নরম আর
মসৃণ হয় কিন্তু তোমারটা তা নয়।
তাপে, জলে, কেটেকুটে
কী অদ্ভুত শক্ত আর খসখসে।
আমার মাঝে মাঝে মনে হতো
খুব করে অলিভ অয়েল
মাখিয়ে রাখি, হাতটা একটু নরম হোক।
কিন্তু জানি না কী এক অদৃশ্য কারণে
আমার এই ইচ্ছাটা পূরণ হয় নি।
কিন্তু এই হাতের রান্না, সে যেন
সত্যিই অমৃত, স্বর্গীয় স্বাদ।
মা, তুমি আমার দেখা পৃথিবীর
সবচেয়ে সুন্দরী নারী যদিও
তোমার পায়ের গড়োলির জন্য
মাঝে মাঝেই তুমি বেশ কষ্ট পেতে।
যেদিন কোন ভালো পদের রান্না হতো
কী অদ্ভুত সুগন্ধ ম ম করতো
আর আমি ভাবতাম এতো মানুষ আমরা
এতো পাতে কীভাবে এই খাবার দেবে তুমি!
কিন্তু কি দারুণ ম্যানেজার আমার মা
সবাই খুশিমতো খেয়ে উঠতো
কিন্তু আমি জানি কত রাত তুমি
আধপেটা ভাত আর পানি খেয়ে থেকেছো।
তোমার চেহারা আমি কখনো ম্লান দেখিনি
সারাদিনের পরিশ্রম, শত চিন্তা-ভাবনা
এরপরও কী এক মায়াবী ঔজ্জ্বল্য
ঘিরে থেকেছে তোমার পবিত্র মুখ জুড়ে।
আমাদের অনেকগুলো ভাই-বোনের
শত অভিযোগের তুমি ছিলে ন্যায় বিচারক।
তুমি যেন একখন্ড মেঘমালার মতো
সময়ে ছায়া দিয়েছো আর কোন সময়ে
বৃষ্টি ঝরিয়ে আমাদের শান্ত করেছো।
স্বল্প শিক্ষিত তুমি কী দারুণ নেত্রী
পরিবারের ছোট বড় সব ঝামেলা
তোমার উন্নত বৈষয়িক চেতনায়
মিটিয়ে ফেলেছো দক্ষ হাতে।
তোমার স্নেহের ছায়ায় যতদিন ছিলাম
বুঝিনি কিছুই, বুঝিনি ঝড় কাকে বলে
বুঝিনি রৌদ্রের দাহন কত তীব্র হয়!
আজ আশ্রয় হারা পাখির মতো
তোমাকে খুঁজে ফিরি নিঃসীম নিলীমায়
আর রাতের শত তারার উজ্জ্বলতায়
খুঁজে ফিরি সেই মায়াবী মুখ।
নিজের চিন্তায়, নিজের পথ চলায়
মগ্ন আমি কতোটা সময় তোমার
সরব অস্তিত্ব উপেক্ষা করে পথ চলেছি
কিছুই বুঝতে পারিনি।
কিন্তু হঠাৎ কোন অভিমানে
চলে গেলে তুমি, সময় আমার
থমকে আছে সেই থেকে।
মুখ ফুলিয়ে বসে থাকবো না
শুধু একবার যদি আদর করে
নাম ধরে ডাকো, মা গো।

শেয়ার

আরও খবর
© All rights reserved © 2020 dainikdristipat.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbazardristip41