1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : Dailik Drishtipat : Dailik Drishtipat
সোমবার, ২৬ জুলাই ২০২১, ১১:০০ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
চালের উৎপাদন বাড়লেও ভোক্তা পর্যায়ে কমছে না দাম রেকর্ড গড়া জয়ে সিরিজ বাংলাদেশের সাতক্ষীরায় কঠোর লকডাউনে চিকিৎসাধীন মৃত্যু ৯ \ শনাক্ত ৬১ জন আশাশুনি উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানের সাথে ঢাকাস্থ ছাত্র কল্যাণ সমিতির শুভেচ্ছা বিনিময় বৃহস্পতির উপগ্রহ ইউরোপা অভিযানের প্রস্তুতি নাসার বিজিবি পৃথক অভিযানে সীমান্ত থেকে আটক ৫ শ্যামনগর বুড়িগোয়ালীনীতে রাস্তার বেহাল দশা পরিদর্শনে উপজেলা চেয়ারম্যান দোলন নূরনগরে বেশি দামে সার বিক্রি করার অপরাধে ভ্রাম্যমান আদালতে জরিমানা খাজরায় মূর্তি চুরির ঘটনায় মন্দির পরিদর্শন করলেন সহকারি পুলিশ সুপার জামিল আহমেদ চামড়া শিল্পের দুরবস্থা নিরসন জরুরী

যশোর শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রে ফের বন্দি বিক্ষোভ-ভাঙচুর

দৃষ্টিপাত ডেস্ক :
  • Update Time : রবিবার, ১১ জুলাই, ২০২১

এফএনএস: যশোর শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রে (বালক) বিক্ষুব্ধ বন্দিরা কেন্দ্রের অভ্যন্তরে তিন ঘণ্টা ধরে বিক্ষোভ ও ভাঙচুর চালিয়েছে। গত শনিবার রাত ১০টা থেকে শুরু করে রাত ১টা পর্যন্ত চলে এ বিক্ষোভ। প্রশাসনের শীর্ষ কর্মকর্তাদের হস্তক্ষেপে রাত ১টার পর পরিস্থিতি শান্ত হয়। জেলা প্রশাসক, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের উপস্থিতিতে বন্দিরা তাদের সমস্যার কথা তুলে ধরেন। এ সময় তাদের সমস্যা সমাধানের আশ্বাস দিলে বন্দিরা শান্ত হয়। যশোরের জেলা প্রশাসক মো. তমিজুল ইসলাম খান বলেন, দেড়শ জনের ধারণ ক্ষমতার কেন্দ্রটিতে ২৫০ জন বন্দি রয়েছে। বেশ কিছু দাবিতে তাদের অসন্তোষ রয়েছে। গত শনিবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে বন্দিরা বিক্ষোভ শুরু করে। একপর্যায়ে তারা কেন্দ্রে ব্যাপক ভাঙচুর করেছে। আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর পাশাপাশি জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তার সেখান যান। আমি নিজেও গিয়েছিলাম। তাদের কথা শুনেছি। সমস্যা সমাধানের আশ্বাস দিয়েছি। তিন ঘণ্টা পর বিক্ষুব্ধ বন্দিদের শান্ত করা সম্ভব হয়েছে। সেখানে ভাঙচুর হলেও কেউ আহত হয়নি। তিনি আরও বলেন, তদন্ত কমিটি গঠন করে বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে। এদিকে, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট কাজী মো. সায়েমুজ্জামান বলেন, করোনাকালে কেন্দ্রের বন্দিদের বাইরে বের হতে দেয়া হয় না। এজন্য তাদের ক্ষোভ আছে। খাবারের মান নিয়ে অভিযোগ আছে। এ ছাড়া সুপেয় পানির সমস্যা আছে। এমন বেশ কয়েকটি দাবিতে বন্দিরা বিক্ষোভ করেছে। আলোচনা করে পরিস্থিতি শান্ত করা হয়েছে। কেন্দ্রের সহকারী পরিচালক জাকির হোসেন বলেন, বেশকিছু ধরে বন্দিরা দৈনিক জনপ্রতি ৭২ টাকা করে খাদ্যের জন্য বরাদ্দের দাবি তুলে আসছিল। তাছাড়া কেন্দ্রটিতে আলাদা আলাদা রুমে সিনিয়র-জুনিয়র ভেদে খাদ্য সরবরাহের ও সুযোগ-সুবিধার দাবি তুলেছিল। সেই দাবিতে রাত সাড়ে ১১টার দিকে বন্দিদের মধ্যে বিক্ষোভ শুরু হয়। পরে কেন্দ্রের আনসার সদস্যরা বিক্ষোভ বন্ধে অভিযান চালান। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে যশোর জেলা পুলিশের শতাধিক সদস্য অভিযান চালান। পরে বন্দিদের ইটের আঘাতে পুলিশের দুই সদস্য আহত হন। বন্দিরা কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে যথারীতি স্বেচ্ছাচারিতা এবং চৌর্যবৃত্তির অভিযোগ করছে। যদিও সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা বলছেন, অভিযোগ পুরোপুরি ঠিক না। উলে­খ, ২০২০ সালের ১৩ আগস্ট যশোর শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রে তিন বন্দি কিশোরের মৃত্যু ও ১৫ জনের আহত হওয়ার ঘটনায় তোলপাড় শুরু হয়েছিল। একাধিকার তদন্ত কমিটি গঠন করা হলেও কমিটির সুপারিশ বাস্তবায়ন করা হয়নি। ফলে কেন্দ্রে বার বার এমন অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

শেয়ার

আরও খবর
© All rights reserved © 2020 dainikdristipat.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbazardristip41